সর্বশেষ সংবাদ :

প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত বাঘা উপজেলা প্রশাসন

স্টাফ রিপোর্টার,বাঘা : জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান অসহায় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়ী উপহার দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । বুধবার সকালে ঢাকা গনভবন থেকে সরাসরি ভিডিও কানফারেন্স এর মাধ্যমে এ বাড়ি উপহার দেয়া হয়। এ সময় বাঘা উপজেলা প্রশাসন এই কনফারেন্সের সাথে সংযুক্ত ছিলো। এ বাড়ীর নাম করণ করা হয়েছে “বীর নিবাস”।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে বলেন, বীর নিবাস প্রকল্পের আওতায় সারাদেশে প্রথম দফায় ৩০ হাজার পরিবার পাকা ঘর পাবে। এর মধ্যে আজ বুধবার উদ্বোধনের দিনে পাচ্ছে ৫ হাজার পরিবার। পরবর্তীতে পর্যায় ক্রমে সকল অসহায় মুক্তিযোদ্ধাদের ঘর বানিয়ে দেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই দেশকে স্বাধীন এবং হানাদার মুক্ত করতে জাতির পিতার ডাকে সাড়া দিয়ে যারা যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিল তাঁরা কখনো মানবেতর জীবন যাপন করতে পারেনা। আমরা ক্ষমতায় এসে মাত্র ৩ শত টাকা সম্মানী ভাতাকে ২০ হাজারে নিয়ে গেছি। এখন সামনে এইটিই লক্ষ, সেটি হলো-৭১ এর রনাঙ্গনে ঝাপিয়ে পড়া বীর সেনাদের মধ্যে যারা অসচ্ছল জীবন যাপন করছে তাদের “বীর নিবাস’’ উপহার দেওয়া।

এর আগে বাঘা উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে নির্বাহী অফিসার শারমিন আখতাদের সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড: লায়েব উদ্দিন লাভলু বাঘায় ঘর পাওয়া ১২ জন মুক্তিযোদ্ধার মুখে তাদের অনুভতি শুনে আবেগ-আপ্লত হন। ঘর পাওয়া মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে কথা বলেন, আব্দুল জব্বার, ইমাজ উদ্দিন, আনছার আলী মৃত শওকত আলীর ছেলে আলমঙ্গীর হোসেন প্রমুখ। এদের মধ্যে অনেকেই পাকা ঘর পেয়ে খুশিতে কেঁদে ফেলেন এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর প্রয়াত পিতা-মাতার জন্য দোয়া কামনা করেন।

বাঘা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা(পি.আই.ও) মাহামুদুল হাসান জানান, বাঘায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত “বীর নিবাস ’’ প্রকল্পের ১২ টি বাড়ীর কাজ চলমান রয়েছে। এ সকল বাড়ী নির্মানে ব্যায় করা হচ্ছে ১৪ লক্ষ ৩ হাজার ৮২ টাকা। এ সব বাড়িতে থাকছে তিনটি টায়েল্স যুক্ত বেড়রুম, দুইটি বাথরুম, একটি রান্নাঘর, একটি ডাইনিং এবং বিদ্যুৎ সহ পানি সরবরাহের ব্যবস্থা। ঘুব শির্ঘই আরো ১২ টি বাড়ী নির্মান করা হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

উক্ত কনফারেন্সে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাঘা উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, সকল ইউপি চেয়ারম্যান, বিভিন্ন দপ্তরের প্রধান কর্মকর্তা,সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের নেত্রীবৃন্দ।


প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২৩ | সময়: ৩:৪৪ অপরাহ্ণ | সানশাইন