সর্বশেষ সংবাদ :

চল্লিশ বছর পর বসতভিটা ফিরে পেলো ভোলা মার্ডি

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি: রাজশাহীর জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপে ৪০ বছর পর বাসতভিটা ফিরে পেলো আদিবাসী পরিবার। রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার রিশিকুল ইউনিয়নের বামলাহাল মৌজার ৯০১ দাগের ৩৪ শতক খাস জমি ভোলা মার্ডি নামের এক ব্যক্তিকে ১৯৮৯-৯০ সালে বন্দোবস্ত দেওয়া হয়। ভোলা মার্ডি ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর সদস্য।
ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর ওই পরিবারের সদস্যদের ভয়ভীতি দেখিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ গোদাগাড়ী সদরের ভূমিদস্যু সারোয়ার জাহান ডাবলু স্থানীয় শাজাহানের সহযোগিতায় জায়গাটি জবর দখল করে আসছিলো।
দুই-তিন সপ্তাহ আগে হঠাৎ ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠী পরিবারের সদস্যদের ভয়ভীতি দেখিয়ে তারা ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করে। কয়েকদিন আগে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম টুলুকে অভিযোগ দেওয়ার পরও কোন প্রতিকার পাননি ভোলা মার্ডি। স্থানীয় ভাবে জায়গাটি উদ্ধারের জন্য দিকহারা হয়ে পড়েন ভোলা মার্ডি। উপায় না পেয়ে বৃহস্পতিবার ভোলা মার্ডি রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকের নিকট লিখিত অভিযোগ করেন।
অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে রাজশাহী জেলার জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল গোদাগাড়ী উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সবুজ হাসানকে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলেন।
এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সবুজ হাসান সেই নির্দেশনা মোতাবেক শুক্রবার বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পান। পরে অভিযান পরিচালনা করে বুলটুলাইজার দিয়ে নির্মাণাধীন অবৈধ স্থাপনা গুডিয়ে দিয়ে আদিবাসী পরিবারের নিকট জমিটি ফিরিয়ে দেওয়া হয়।
এই বিষয়ে গোদাগাড়ী উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সবুজ হাসান বলেন, ডিসি স্যারের নির্দেশনায় তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেয়ে অভিযান চালিয়ে বাড়ী গুড়িয়ে দিয়ে ভোলা মার্ডিকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে এমন অভিযান অব্যহত থাকবে বলে জানান।
ভোলা মার্ডি বলেন, দীর্ঘদিন পর আমার জায়গা পেয়ে খুব খুশি হয়েছি। জেলা প্রশাসক ও স্থানীয় প্রশাসনকে তিনি ধন্যবাদ জানান।


প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২৩ | সময়: ৫:৫৯ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ