সর্বশেষ সংবাদ :

পত্নীতলায় মহিলা মাদ্রাসা পরিদর্শন করলেন ইউএনও

 

পত্নীতলা প্রতিনিধিঃ

পত্নীতলায় বৃহস্পতিবার উপজেলা সদর নজিপুর কলোনীপাড়া আল জামিয়াতুল ইসলামিয়া খাতুনে জান্নাত কওমি মহিলা মাদ্রাসার শিক্ষা কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

 

 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ রুমানা আফরোজ সহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দদের মাদ্রাসা পরিদর্শন করান মাদ্রাসাটির প্রতিষ্ঠাতা মুহতামিম মাওলানা আবু সালেহ্ মুসা। এসময় উপস্থিত ছিলেন নজিপুর পৌরসভার মেয়র রেজাউল কবির চৌধুরী বাবু, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আহাদ রাহাত, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাতিজাতুল কোবরা মুক্তা, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আজিজুল কবির, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ খালিদ সাইফুল্লাহ, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোখলেছুর রহমান, উপজেলা ম্যাধমিক শিক্ষা অফিসার এটিএম জিল্লুর রহমান, পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ পলাশ চন্দ্র দেব, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা প্রকাশ চন্দ্র সরকার, উপজেলা মৎস কর্মকর্তা আবু সাইদ, আল জামিয়াতুল ইসলামিয়া খাতুনে জান্নাত কওমি মহিলা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ্ব মাওলানা খয়বর আলী, পত্নীতলা প্রেসক্লাব ও উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব বুলবুল চৌধুরীর, পৌর কাউন্সিলর আব্দুল মজিদ, সহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ, শিক্ষকবৃন্দ সুধীজন প্রমুখ।

 

 

 

উল্লেখ্য নজিপুর আল জামিয়াতুল ইসলামিয়া খাতুনে জান্নাত কওমি মহিলা মাদ্রাসা ও এতিম খানাটি ২০০৭ সনে প্রতিষ্ঠিত। অত্র প্রতিষ্ঠানে বর্তমান ৭৩৫ জন ছাত্রী রয়েছে। বর্তমানে অত্র প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক ও শিক্ষিকা ৩০ জন এবং ১৩ জন কর্মচারী দ্বারা শিশু শ্রেনী হইতে ৮ম শ্রেনী পর্যন্ত জেনারেল শিক্ষা সহ নূরানী, মক্তব, হেফজ ও কিতাব বিভাগ ১ম জামাত হইতে তাকমীল (দাওরায়ে হাদিস) পর্যন্ত চালু আছে এবং নিজস্ব ভবনে পরিচালিত হচ্ছে। এতীম ও গরীব মেধাবী ছাত্রীকে গোরাবা ফান্ড থেকে প্রয়োাজন অনুযায়ী খরচ বহন করা হয়। এতিমখানায় বর্তমানে রয়েছে ২৭ জন ছাত্রী।

 

 

সানশাইন/টিএ


প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৯, ২০২৩ | সময়: ৬:৫৩ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine