সর্বশেষ সংবাদ :

ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে যৌতুকবিহীন শত বিয়ে

সানশাইন ডেস্ক: টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে শতাধিক যৌতুকবিহীন বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। তাবলিগের রেওয়াজ অনুযায়ী শনিবার বিকালে ইজতেমা মাঠে এই যৌতুকবিহীন বিয়ের আয়োজন করা হয়। সকাল থেকেই অভিভাবকরা পাত্র-পাত্রীদের নাম তালিকাভুক্ত করাতে শুরু করেন।
শনিবার বাদ আছর ইজতেমা ময়দানের পশ্চিম-উত্তর দিকে দোয়া মঞ্চ থেকে এসব বিয়ে পড়ান ভারতের মাওলানা জুবায়রুল হাসানের ছেলে মো. জোহায়রুল হাসান। কনের সম্মতিতে বর ও উভয় পক্ষের লোকজনের উপস্থিতিতে হয় এই বিয়ে। আনুষ্ঠানিকতা শেষে বয়ান মঞ্চ থেকে মোনাজাতের মাধ্যমে নব দম্পতিদের সুখ-সমৃদ্ধি কামনায় দোয়া করা হয়।
এর আগে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিন শুরু হয় বাদ ফজর ঈমান-আমলের বয়ান দিয়ে। ফজরের নামাজের পরই বয়ান শুরু করেন মাওলানা খুরশিদ আলম। এরপর জোহর, আছর ও মাগরিবের নামাজের শেষে শুরু হয়ে খাবার গোসলের বিরতি দিয়ে বয়ান চলবে এশার নামাজের আগ পর্যন্ত। বয়ানের ফাঁকে জিকির-আজগারে ব্যস্ত সময় পার করছেন অংশগ্রহণকারীরা।
ইজতেমাকে ঘিরে টঙ্গীর তুরাগপাড় এখন কানায় কানায় পূর্ণ সারাদেশ থেকে আসা মানুষে, এসেছেন বিদেশিরাও। এর মধ্যে শনিবারও ইজতেমায় মানুষদের আসতে দেখা গেছে। আখেরি মোনাজাতের আগ পর্যন্ত এ আগমন অব্যাহত থাকবে বলে জানান বিশ্ব ইজতেমার আয়োজক কমিটির সদস্য প্রকৌশলী মো. মাহফুজ।
শনিবার সকাল থেকে ইজতেমা মাঠ ঘুরে দেখা যায়, বিশাল চট নির্মিত প্যান্ডেলের নিচে খিত্তায় (নির্ধারিত জায়গা) অবস্থান করছেন তাবলিগ জামাতের অনুসারী মুসলমানরা। তবে যারা ময়দানে খিত্তায় প্যান্ডেলের নিচে জায়গা পাননি তারা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ও কামাড়পাড়া সড়কের দুই পাশের ফুটপাতে কিংবা খোলা জায়গায় অবস্থান নিয়েছেন। এমনকি ইজতেমা ময়দান এলাকায় বহুতল বিশিষ্ট টয়লেট ভবনের ছাদেও পাটি, চট দিয়ে বিছানা পেতে এবং পলিথিন/ট্রিপল টানিয়ে বসে বয়ান শুনছেন তারা।
টাঙ্গাইল থেকে আসা নাজিম উদ্দিন বলেন, শুক্রবার রাতে টঙ্গী পৌঁছান তিনি। কিন্তু ততক্ষণে ইজতেমা মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে। তাই মাঠের ভেতরে ঢোকার সুযোগ না পেয়ে সড়কের পাশে চট বিছিয়ে রাত কাটিয়েছেন। এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে পাঁচ হাজার ৪১৪ জন চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম।
এ ছাড়া ২০ জনকে ভর্তি ও ১১ জনকে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, রোগীদের বেশির ভাগ ডায়রিয়া, অ্যাজমা (শ্বাসকষ্ট), জ্বর-ঠাণ্ডাসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। খাবারের বিষক্রিয়া, ধুলা-বালি ও কুয়াশার কারণেই এসব রোগ বেশি হচ্ছে বলে তার ধারণা।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা আদায় সাড়ে ৫৯ হাজার : বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের দ্বিতীয় দিনে ১৫টি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেছে গাজীপুর জেলা প্রশাসন। অভিযানে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার পরিবেশন, খাবার ও বিভিন্ন পণ্যের মূল্যবৃদ্ধির দায়ে ১৪ জনকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকির হোসেন জানান, ইজতেমা ময়দানের আশে-পাশের এলাকায় শনিবার বিকাল ৩টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ১৪ মামলায় ৫৯ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা ও আদায় করা হয়েছে।


প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৫, ২০২৩ | সময়: ৬:১৪ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর