সর্বশেষ সংবাদ :

আ’লীগ সাম্প্রদায়িক কোনো গোষ্ঠীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়বে না : তথ্যমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার : আওয়ামী লীগ সাম্প্রদায়িক কোনো গোষ্ঠীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়বে না মন্তব্য করে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, হাঁস ডিম পাড়ার আগে যেমন হাঁকডাক করে, আন্দোলন নিয়ে বিএনপিও তেমনি করছে। তাদের সমাবেশ দেখে এটিই প্রতীয়মান হয়- জনগণ তো দূরের কথা, বিএনপির কর্মীরাও সবাই সেখানে অংশগ্রহণ করেনি।
শুক্রবার সকালে রাজশাহী সার্কিট হাউজ প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন। জামায়াত ও হেফাজতের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সমঝোতা হচ্ছে কিনা সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে প্রশ্ন করা অবান্তর। আওয়ামী লীগ বাংলাদেশে অসাম্প্রদায়িক ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার প্রতীক। সেই লক্ষ্যে দেশ বিনির্মাণের কাজ চলছে। আওয়ামী লীগ সাম্প্রদায়িক কোনো গোষ্ঠীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়বে না।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, উন্নত দেশের তুলনায় বাংলাদেশে এখনও বিদ্যুতের দাম কম। সমগ্র পৃথিবীব্যাপী জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়েছে। ইউরোপে, অ্যামেরিকায় এবং ইউকেতে জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির কারণে সেখানে বিদ্যুতের রেশনিং করা হচ্ছে। বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হচ্ছে। ইউরোপ, কিংবা কন্টিনেন্টাল ইউরোপ, ইউকে এবং পৃথিবীর অন্যান্য দেশে যেভাবে বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়েছে, আমাদের দেশে সেভাবে দাম বাড়ানো হয়নি।
তিনি বলেন, বিদ্যুৎ খাতে আমাদের সরকার হাজার হাজার কোটি টাকা ভূর্তুকি দিচ্ছে। জনগণের যাতে অসুবিধা না হয়, সেজন্য সুলভ মূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার জন্যই হাজার হাজার কোটি টাকা সরকার ভর্তুকি দিচ্ছে। সেই ভর্তুকিটা কিছুটা কমানোর জন্য সামান্য বৃদ্ধি করার প্রস্তাব করা হয়েছে। সেটিও অন্যান্য উন্নত দেশের তুলনায় কম।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা জনগণের রায় নিয়ে সরকার গঠনের পর থেকেই বিএনপি কঠোর, কঠোরতর এবং বিভিন্ন সময় নানা ধরনের নাম দিয়ে আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছে। একবার আন্দোলন করার পর বলে যে, শীতের পরে আন্দোলন হবে, গ্রীষ্ণের পরে হবে, বর্ষার পরে হবে, বার্ষিক পরীক্ষার পরে হবে। গত ১৪ বছর ধরে তারা যে ঘোষণা দিয়েছে, আগামী ১৬ জানুয়ারি থেকে তাদের আন্দোলন সেটার ধারাবাহিকতা ছাড়া কিছু না।
আগামী ২৯ জানুয়ারি রাজশাহীতে প্রধানমন্ত্রীর জনসভা নিয়ে মন্ত্রী বলেন, রাজশাহীতে যে জনসভা হতে যাচ্ছে, সেদিন রাজশাহী শহর লোকে লোকারণ্য হয়ে যাবে। পুরো রাজশাহী শহরটাই সেদিন সমাবেশে রূপান্তরিত হবে।
তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র ব্যবস্থা থেকে অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র রচনার জন্যই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে স্বাধীনতা সংগ্রাম করেছে আওয়ামী লীগ। অসম্প্রদায়িক রাষ্ট্র ব্যবস্থার ভিত আরও মজবুত করার লক্ষ্যে কাজ করছে আওয়ামী লীগ।
এ সময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, খাদ্যমন্ত্রী ড. সাধন চন্দ্র মজুমদার, তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকসহ স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৪, ২০২৩ | সময়: ৫:৪৯ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ