মহাদেবপুরে পুকুর থেকে অবৈধভাবে খনিজ বালু উত্তোলনের অভিযোগ 

মহাদেবপুরে প্রতিনিধি:

নওগাঁর মহাদেবপুরে খননের মাধ্যমে অবৈধভাবে খনিজ বালু উত্তোলন করে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। মাটিখোকো একটি সিন্ডিকেট দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কৃষি জমিতে পুকুর খননের পাশাপাশি পুকুর খননের মাধ্যমে এ বালু উত্তোলন করে বিভিন্ন প্রকল্পে বিক্রি করলেও সংশ্লিষ্ট প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে কোনই ব্যবস্থা নেয়নি।

 

 

 

বুধবার উপজেলার চেরাগপুর ইউনিয়নের চৌমাসিয়া হিন্দুপাড়ায় গিয়ে দেখা যায়, গ্রামের ভিতর একটি বিশাল মজা পুকুরের মাটি কেটে সংস্কার করা হচ্ছে। পুকুরের মাঝখানে ও চারপাশে কাদামাটির নীচ থেকে বের হচ্ছে বালু। মাটির স্তরে স্তরে দেখা যায় খনিজ বালু। ভেকু মেশিন দিয়ে সে বালু তুলে পাড়ে বিশাল স্তুপ করে জমা রাখা হয়েছে। সেখান থেকে বিক্রি করা হচ্ছে গাড়িকে গাড়ি। সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের কাজেও এ বালু কিনে তা ব্যবহার করা হচ্ছে।

 

 

গ্রামবাসীরা জানান ওই পুকুরের মালিক ওই গ্রামের শ্রী কুমোদ চন্দ্র সরকারের ছেলে সুকুমার সরকার। পুকুরের পাশেই তাদের বাড়ি। তিনি বাড়িতে না থাকায় বাড়ির মেয়েরা জানান পুকুরের মাটি গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে সিরাজুল ইসলাম সিরাজের কাছে বিক্রি করা হয়েছে। কিন্তু পুকুরের মাটির নীচ থেকে যে বালু উঠবে তা তারা জানতেন না।

 

 

জানতে চাইলে সিরাজুল ইসলাম জানান, পুকুর সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোন অনুমতি নেননি। পুকুর থেকে বালু উত্তোলনের কথা স্বীকার করে তিনি জানান, নদী থেকে বালু উঠলে তা সরকারের। পুকুরের বালু সরকার পাবেনা বলেও তিনি মন্তব্য করেন। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু হাসান জানান, নদী বা পুকুর যে কোন জায়গায় বালু পাওয়া গেলেই তা খনিজ সম্পদ হিসেবে সরকারের। সাধারণ জনতা তা উত্তোলন বা বিক্রি করতে পারবেন না। ওই বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সানশাইন / শামি


প্রকাশিত: জানুয়ারি ১১, ২০২৩ | সময়: ১০:২৯ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine

আরও খবর