সর্বশেষ সংবাদ :

ফুটবলের রাজাকে শেষ বিদায় জানাতে প্রস্তুত ভিলা বেলমিরো

স্পোর্টস ডেস্ক: ভিলা বেলমিরো, যে মাঠে একসময় পেলে জাদুতে মুগ্ধ হতো হাজার হাজার দর্শক। ফুটবলের রাজা আবারও সেই মাঠে আসছেন। এবার তিনি আর কোনও জাদু দেখাবেন না। তাকে নিয়ে কোনও উল্লাসধ্বনিও করবে না দর্শকরা। তার নিথর দেহের দিকে তাকিয়ে কেঁদে বুক ভাসাবেন তারা, শোকের ছায়ায় ঢেকে থাকবে সান্তোসের হোম ভেন্যু।
ব্রাজিলিয়ান লিজেন্ডকে শেষ বিদায় জানাতে প্রস্তুত ভিলা বেলমিরো। সান্তোসের হয়ে এই মাঠে কাটিয়ে দিয়েছেন ক্যারিয়ারের প্রায় পুরোটা। ১৮ বছর যে ক্লাব আর মাঠে বিমুগ্ধ করতেন পেলে, সেখানে এবার ১৬ হাজার দর্শককে কাঁদাবে তার নিথর দেহ। দীর্ঘ এক মাস ধরে সাও পাওলোর আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে মৃত্যুশয্যায় থেকে গত বৃহস্পতিবার না ফেরার দেশে চলে গেছেন তিনটি বিশ্বকাপ জয়ী একমাত্র ফুটবলার। কোলন ক্যানসারের সঙ্গে দীর্ঘদিন লড়াই করতে হয়েছিল তাকে।
পেলেকে শেষ বিদায় জানাতে ২৪ ঘণ্টা ভিলা বেলমিরোর মাঝমাঠে রাখা হবে তার কফিন। স্টেডিয়ামের দরজাগুলো জনসাধারণের প্রবেশের জন্য খুলে দেওয়া হবে স্থানীয় সময় সকাল ১০টা (বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টা)। ১৬ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতা সম্পন্ন স্টেডিয়ামে যে উপচে ভরা ভিড় হবে তা বলাবাহুল্য।
স্ট্যান্ডে তিনটি বড় পতাকা টাঙানো হবে। একটিতে থাকবে পেলের বিখ্যাত ১০ নম্বর জার্সি ধরে থাকার ছবি। অন্যটিতে লেখা থাকবে, ‘চিরজীবী হও রাজা।’ তৃতীয় পতাকায় ‘পেলে ৮২ বছর’। এই শেষকৃত্যের আয়োজকরা জানায়, মঙ্গলবার ১০টা পর্যন্ত পেলেকে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য স্টেডিয়ামে ঢুকতে পারবেন জনসাধারণ।
এরপর পেলের কফিন নিয়ে হবে শবযাত্রা। তার ১০০ বছর বয়সী মা সেলেস্তে আরান্তেসের বাড়ির সামনে দিয়ে নেওয়া হবে কফিন। বিশ্বখ্যাত ছেলের মৃত্যুর খবর এখনও জানেন না তিনি, বলেছেন পেলের বোন মারিয়া লুসিয়া দো নাসিমেন্তো, ‘তিনি জানেন না। তার জ্ঞান নেই।’ পেলের কফিন নিয়ে শবযাত্রা শেষ হবে সান্তোসের একটি কবরস্থানে, সেখানেই বিশেষ সমাধিতে দাফন করা হবে ফুটবলের রাজাকে।
এরই মধ্যে ভিলা বেলমিরোতে পেলের ভক্তরা ফুলে ফুলে ভরিয়ে দিয়েছেন। সাও পাওলোর সিলভিও নেভেস সোজা পেশায় একজন ইলেক্ট্রিশিয়ান। তিনি এসেছিলেন স্টেডিয়ামে। বললেন, আমি নিশ্চিত এই শেষ কৃত্যে অসংখ্য মানুষ আসবে, শুধু বয়স্করা নয় যারা তার খেলা দেখেনি, তারাও আসবে।’
রিও ডি জেনেইরোতে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের সদর দফতরের সামনে বড় পোস্টারে পেলের ছবির নিচে লেখা, ‘অবিনশ্বর’। রোববার তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া শুরু হবে এক মিনিটের নীরবতা পালনের মধ্য দিয়ে। সাও পাওলো সামরিক পুলিশ জানায়, ডিজিটাল স্ক্রিনে পেলের এই অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া দেখানো হবে। বিদেশ থেকে আগত ক্রীড়াবিদ, রাজনীতিক ও ভক্তদের নিরাপত্তায় কঙ্গোনহাস বিমাবন্দরে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা। শুধু ব্রাজিলের নয়, গোটা বিশ্বের মানুষই সম্ভবত ‘রাজার’ শেষ বিদায়ে অংশ নেবে, সেটা দূর থেকে হলেও।


প্রকাশিত: জানুয়ারি ৩, ২০২৩ | সময়: ৫:৩৪ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ