চাঁপাইনবাবগঞ্জে নৌকার মাঝি মাহি না অন্য কেউ, জানা যাবে আজ

সানশাইন ডেস্ক: বিএনপির সংসদ সদস্য আমিনুল ইসলাম পদত্যাগ করায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনটি শূন্য হয়। ইতোমধ্যে এ আসনে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এই আসনের জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের পাশাপাশি চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছেন।
কে হবেন নাচোল, গোমস্তাপুর ও ভোলাহাট উপজেলা নিয়ে গঠিত চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের নৌকার মাঝি তা আজ রাতে জানা যাবে। আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হবে রোববার রাতে। সেই সভায় চূড়ান্ত হবে দলীয় প্রার্থী। জানা গেছে, আগামী ১ ফেব্রুয়ারি চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রার্থীদের আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে।
এই আসন থেকে অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি বৃহস্পতিবার দুপুরে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন এবং শুক্রবার রাতে জমা দেন। পরে তিনি আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করেন। মাহির দলীয় ফরম সংগ্রহের পর থেকে কানাঘুষা শুরু হয়। তাহলে কি মাহিয়া মাহি এবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে নৌকার মাঝি হচ্ছেন? দলের সিনিয়র নেতাদের মধ্যেও এ প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে।
আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা রোববার (১ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত হবে। ওই দিন বিকেল সাড়ে ৪টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে এ সভা অনুষ্ঠিত হবে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
এ সভায় ঠাকুরগাঁও-৩, বগুড়া-৪, বগুড়া-৬, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের উপনির্বাচনে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে। সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, কাজী জাফর উল্যাহ, ওবায়দুল কাদের, রাশিদুল আলম, দীপু মনি প্রমুখ সভায় উপস্থিত থাকতে পারেন বলে সূত্রটি জানিয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ১১ ডিসেম্বর বিএনপির সাত এমপি স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন। এর মধ্যে একজন এমপি (হারুন-অর রশিদ) বিদেশে থাকায় তার পদত্যাগপত্র ওইদিন গৃহীত হয়নি। অন্য ছয় জনের আসন শূন্য ঘোষণা করা হয়। এর মধ্যে একটি সংরক্ষিত নারী আসন। বাকি পাঁচ সংসদীয় আসনে ১ ফেব্রুয়ারি উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানায় নির্বাচন কমিশন।
পরে হারুন বিদেশ থেকে ফিরে পদত্যাগপত্র জমা দিলে তা গৃহীত হয় এবং তার আসনও (চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩) শূন্য ঘোষণা করা হয়। নির্বাচন কমিশন অন্য আসনগুলোর সঙ্গে একই দিন এই আসনেরও উপনির্বাচনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।


প্রকাশিত: জানুয়ারি ১, ২০২৩ | সময়: ৬:৪৬ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ