সর্বশেষ সংবাদ :

রাজশাহীতে বেগম রোকেয়া দিবসে শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের সম্মাননা প্রদান

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীতে জেলা প্রশাসন ও জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদায় বেগম রোকেয়া দিবস উদ্যাপন করা হয়। এ উপলক্ষ্যে শুক্রবার সকাল দশ’টায় নগরীর সপুরায় মানবসম্পদ উন্নয়ন প্রর্শিক্ষণ কেন্দ্রে ‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ’ শীর্ষক কার্যক্রমের আওতায় জেলা ও সিটি কর্পোরেশন পর্যায়ে নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের সংবর্ধনা প্রদান ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে জেলা ও সিটি করপোরেশন পর্যায়ে নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ জয়িতাদেরকে ৫টি ক্যাটাগরিতে মোট ৮ জনকে ক্রেস্ট, উত্তরীয় এবং সনদ প্রদান করা হয়। জেলা পর্যায়ে শিক্ষা ও চাকুরিতে সফল ক্যাটাগরিতে কল্যানী মিনজি, সফল জননী নারী ক্যাটাগরিতে আনোয়ারা বেগম ও সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখা নারী ক্যাটাগরিতে মেরিনা হাঁসদা সম্মাননা গ্রহণ করেন। সিটি করপোরেশন পর্যায়ে শিক্ষা ও চাকুরিতে সফল ক্যাটাগরিতে হোসনে আরা পারভীন, সফল জননী নারী ক্যাটাগরিতে নুসরাৎ রহমান ও সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখা নারী ক্যাটাগরিতে মোসা: মেহেরুন সম্মাননা গ্রহণ করেন। জেলা ও সিটি করপোরেশন উভয় পর্যায়ে অর্থনৈতিকভাবে সফল নারী ক্যাটাগরিতে মোসা: মনিরা খাতুন ও নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলা নতুন উদ্যমে জীবন শুরু ক্যাটাগরিতে সায়েমা পারভীন শ্রেষ্ঠ জয়িতার সম্মাননা গ্রহণ করেন।
অনুষ্ঠানে রাজশাহী স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক শাহানা আক্তার জাহানের সভাপতিত্বে সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপিকা জিনাতুন নেসা তালুকদার, বিশিষ্ট সমাজসেবী শাহীন আক্তার রেনী, রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের প্রফেসর তানজিমা জোহরা হাবিব ও জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান মর্জিনা পারভীন বক্তৃতা করেন। মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের রাজশাহী কার্যালয়ের উপপরিচালক শবনম শিরিন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।
জিনাতুন নেসা তালুকদার বলেন, নারীরা সমাজের বোঝা নয়। পুরুষের পাশাপাশি আজ অর্থনীতিতে বাংলাদেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে নারীরাই। আর এটা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ছিল নারী-পুরুষ যাতে সমস্ত ভেদাভেদ ভুলে বাংলাদেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে পারে। সেই জন্য তিনি সংবিধানে নারী-পুরুষের সমান অধিকার নিশ্চিত করেছিলেন। তাঁরই সুযোগ্য কন্যা আজ আমাদের মাঝে বেগম রোকেয়ার মত অগ্রণী ভূমিকা রেখে যাচ্ছেন।
শাহীন আক্তার রেনী বলেন, নারীরা এক সময়ে নিজেদেরকে দুর্বল মনে করত। ঘর ছেড়ে বাইরে আসতে চাইতো না লোকে খারাপ বলবে বলে। সেই জায়গা থেকে নারীদের সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে এসেছেন নারী জাগরণের অগ্রদূত বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন। তিনিই বাঙালি নারী জাগরণের একমাত্র পথিকৃত। নারী-পুরুষ একত্রে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করলে দেশ অনেক এগিয়ে যাবে বলে এ সময় তিনি আশা প্রকাশ করেন।
সভায় বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তর ও সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারী, নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ জয়িতাবৃন্দ, শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে রাজশাহীসহ বিভিন্ন স্থানে নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালিত হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যেছিল আলোচনা সভা, জয়িতাদের সংবর্ধনা প্রদান, ক্রেষ্ট বিতরণ । শুক্রবার “শেখ হাসিনার বারতা নারী পুরুষ সমতা” প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে এসব অনুষ্ঠিত হয়।
মহিলা পরিষদ : মহিলা পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখার উদ্যোগে ১৪২ তম মুসলিম নারী জাগরণের অগ্রদূত এবং প্রথম বাঙালি নারীবাদী রোকেয়া দিবস উপলক্ষে বিকাল ৪ টায় সাগরপাড়া পাড়া কমিটিতে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
এই সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি কল্পনা রায়। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ-সাধারণ সম্পাদক নিলুফার আহমেদ। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, প্রশিক্ষণ সম্পাদক সেলিনা বানু, সাংগঠনিক সম্পাদক আলিমা খাতুন, প্রচার সম্পাদক আফরোজা
পবা উপজেলা: উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উদ্যোগে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় বেগম রোকেয়া দিবসে জয়িতাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শিমুল বিল্লাহ সুলতানা’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার লসমী চাকমা। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অভিজিত সরকার, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াজেদ আলী খাঁন, যুব উন্নয়ন অফিসার এমএমএন জহুরুল ইসলাম, দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ আশরাফ আলী দেওয়ান, সম্পাদক ও সাংবাদিক কাজী নাজমুল ইসলাম, নারীনেত্রী রহিমা বেগম।
“জয়িতা অন্বেষনে বাংলাদেশ” কার্যক্রমের আওতায় ২০২২-২০২৩ অর্থ-বছরে পবা উপজেলায় ৫টি ক্যাটাগরিতে সফল জয়িতা হলেন যারা, অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনকারী নারী সাজেদা বেগম, শিক্ষা ও চাকরি ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী নারী সম্পা রায়, সফল জননী নারী রেহানা পারভীন, নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করেছেন যে নারী নাসিরা বিবি, সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রেখেছেন যে নারী মেরিনা হাঁসদা।
বাগমারা: উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে পরিষদের মিলানয়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার এ,এফ,এম আবু সুফিয়ানের সভাপতিত্বে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা খন্দকার মাক্কামাম মাহমুদার পরিচালনায় বক্তব্য দেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ আক্তার বেবী, মৎস্য কর্মকর্তা রবিউল করিম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাজীব আল রানা, একাডেমিক সুপারভাইজার আব্দুল মুমীত, ভবানীগঞ্জ কারিগরি ও ব্যবস্থাপনা কলেজের অধ্যক্ষ আতাউর রহমান শিবলী, সফল নারী জননী জেসমিন আরা ইতি প্রমুখ।
বড়াইগ্রাম: উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ইউএনও মোসা: মারিয়াম খাতুনের সভাপতিত্বে সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী, মেয়র কেএম জাকির হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস মিয়াজী, জাতীয় মহিলা সংস্থার সভাপতি নাজমা খাতুন ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা হাবিবা খাতুন বক্তব্য রাখেন। পরে অতিথিরা সম্মাননা প্রাপ্ত শেফালী খাতুন (সমাজ উন্নয়ন), নীলা চৌধুরী (অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনকারী), নুরজাহান বেগম (সফল জননী), রওশনারা খাতুন (শিক্ষা ও চাকরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী) এবং বিউটি বেগমের (নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে নতুন জীবন) হাতে ক্রেষ্ট ও সম্মাননাপত্র তুলে দেন।
নিয়ামতপুর: উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভার পূর্বে উপজেলা পরিষদের মেইন গেটে র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। সহকারী কমিশনার (ভূমি) লিজা আকতার বিথির সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ।
উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজনে আলোচনা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার (অতিরিক্ত) আমেনা বেগম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ¦ আইয়ুব হোসাইন মন্ডল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাদিরা বেগম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম, উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন, সহ-সভাপতি জাবেদ আলী, সাধারণ সম্পাদক জনি আহমেদ, জেলা স্পেশাল ব্রাঞ্চ (ডিএসবি) নাজমুল হক ও উজ্জ্বল হোসেন।
মহাদেবপুর: উপজেলা হলরুমে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আবু হাসান এর সভাপতিত্বে এবং উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মো: সুলতান মাহমুদ এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রধান অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান মো: আহসান হাবীব ভোদন। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) নুসরাত জাহান, থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাফফর হোসেন, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রাবেয়া রহমান পলি, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো: হাবিবুর রহমান। অনুষ্ঠানে সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখার জন্য নির্বাচিত জয়ীতা রাবেয়া রহমান পলি ও শিক্ষা ও চাকুরি ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী জয়ীতা আরতী রানীকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। অন্যদিকে ব্র্যাকের সামাজিক ক্ষমতায়ন ও আইন সুরক্ষা কর্মসূচির উদ্যোগে বেগম রোকেয়া দিবস পালিত হয়।
পত্নীতলা: শুক্রবার মানববন্ধন শেষে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম হলরুমে এক আলোচনা সভা এবং জয়িতা অন্বে¦ষন বাংলাদেশ শীর্ষক কার্যক্রমের আওতায় জয়িতাদের সম্মাননা ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা আফরোজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মনোরঞ্জন কুমার পাল। জাতীয় মহিলা সংস্থার আমিনুল ইসলামের সঞ্চালনায় বেগম রোকেয়ার জীবনী পর্যলোচনা করে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাদিজাতুল কোবরা মুক্তা, উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব বুলবুল চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব আবুল কালাম আজাদ।
আলোচনা সভা শেষে “জয়িতা অন্বে¦ষনে বাংলাদেশ” শীর্ষক কার্যক্রমের আওতায় শিক্ষা, সফল জননী, অর্থনৈতিক সাফল্য ও সমাজ উন্নয়নে অবদানের জন্য উপজেলা পর্যায়ে নির্বাচিত চার জন জয়িতাকে সনদ ও ক্রেষ্ট তুলে দেন অতিথিবৃন্দ। পরে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত রচনা প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহনকারী বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে অতিথিবৃন্দ পুরষ্কার তুলে দেন।
নওগাঁ: নওগাঁয় জয়িতাদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসন ও জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক খালিদ মেহেদী হাসান। অনুষ্ঠানে জেলা পর্যায়ে ৫ জন ও নওগাঁ সদর উপজেলা পর্যায়ে ৪ জন জয়িতাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম শাহনেওয়াজ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইব্রাহিম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মির্জা ইমাম উদ্দিন, জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ইশরাত জাহান, মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন বিভাগের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা নিলুফা বেগম অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।
গোদাগাড়ী: রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে জয়িতাদের সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর আয়োজনে উপজেলা পরিষদ হলরুমে আলোচনা সভা ও জয়িতাদের সম্মাননা তুলে দেয়া হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানে আলমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন সহকারী কমিশনার ভুমি সবুজ হাসান, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান ও পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল মালেক, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুফিয়া বেগম মিলি, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নিলুফার ই্য়াসমিন, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা লাইলা তাসলিমা নাসরিন। সরকারি কর্মকর্তা, এনজিও প্রতিনিধি, নির্বাচিত জয়িতারা, মহিলা সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।


প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১০, ২০২২ | সময়: ৬:১৪ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর