সর্বশেষ সংবাদ :

বাঘায় মেয়র পদে ৮ ও সাধারণ সদস্য পদে ৪০ জনের মনোনয়ন জমা

নুরুজ্জামান,বাঘা :

আগামী ২৯ ডিসেম্বর রাজশাহীর বাঘা পৌরসভা নির্বাচন। এই নির্বাচনকে ঘিরে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে শেষ দিন (১-ডিসেম্বর ২০২২) বৃহস্পতিবার বিকেল ৪ টা পর্য়ন্ত নিজ-নিজ কর্মী সমর্থকদের সাথে করে মনোনয়ন দাখিল করেছেন স্ব-স্ব প্রার্থীরা। এর মধ্যে মেয়র পদে ৮ জন, সংরক্ষিত নারী কমিশনার পদে ১৩ এবং পুরুষ কমিশনার পদে ৪০ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ।

সরেজমিন লক্ষ্য করা গেছে, বেলা ১২ টার দিকে ক্ষমতাসীন দল আ’ওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ও চলমান প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান পিন্টু দলীয় কার্যালয় থেকে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে রাজশাহী জেলা আ’লীগের সহ সভাপতি আমানুল হাসান দুদু, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল , জেলা আ’লীগ নেতা আজিজুল আলম, জেলা স্বো”ছাসেবক লীগের সভাপতি রোকনুজামান রিন্টু , বাঘা পৌর আ’লীগের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস সরকার এবং সাধারণ সম্পাদক মামুন হোসেন,উপজেলা মহিলা আ’লীগের সভাপতি ফাতেমা মাসুদ লতা, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ্ , জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদিকা বিপাশা খাতুন সহ উপজেলা আ’লীগের সকল নেত্রীবৃন্দ এবং পৌর আ’লীগের বিভিন্ন ওয়ার্ডের সভাপতি-সম্পাদক সহ আওয়ামী সহযোগী সকল সংগঠনের মিলে প্রায় তিন হাজার জনগন নিয়ে একটি র‌্যালী করে উপজেলা নির্বাচন অফিসে এসে দলীয় মনোনয়ন জমা দেন। এই মনোনয়ন জমা নেন রাজশাহী জেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার আবুল হোসেন ও বাঘা উপজেলা নির্বাচন অফিসার মজিবুল আলম।

এদিকে মনোনয়ন জমা দেয়ার পর দলীয় নেতা-কর্মীরা বাঘা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গিয়ে জমায়েত হন এবং প্রার্থী শাহিনুর রহমান সহ হাফ ডজন নেতা বক্তিতা করেন। এই বক্তব্যে পৌর সভার উন্নয়নের সার্থে নৌকার পক্ষে ভোট চেয়ে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক মেয়র আক্কাস আলীকে তাঁর মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য অনুরোধ জানান বাঘা উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০ টায় গত পৌর নির্বাচনে নৌকা পেয়েও পরাজয় বরণকারী প্রার্থী এবং এবারের বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক মেয়র ও জেলা আ’লীগের সদস্য আক্কাছ আলী প্রায় দুই শতাধিক লোকজন সাথে করে উপজেলা নির্বাচন অফিসে এসে তাঁর মনোনয়ন পত্র জমাদেন।

এদিকে গত পৌর নির্বাচনে প্রার্থীতা-জাচাই-বাছাই এ বাদ পড়া জামায়তে ইসলাম এর পক্ষে বুধবার(৩০ নভেম্বর) দুপুরে সতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে প্রায় শতাধিক নেতা-কর্মী সাথে করে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বাঘা পৌর জামাতের আমির ও মোজাহার হোসেন মহিলা ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক সাইফুল ইসলাম। এরপর তারা একটি সোডাউন করে নির্বাচন অফিস থেকে বেরিয়ে যান। এই সোডাউন দেখে অনেকেই মন্তব্য করে বলেন, যারা ধর্মের নামে জঙ্গীবাদ সৃষ্টি করে মানুষ খুন করে তাদের ভোট চাওয়ার কোন অধিকার নেই।

 

 

এর দু’দিন আগে বাঘা পৌর বিএনপির সভাপতি কামাল হোসেন তার কর্মী-সমর্থকদের সাথে করে (সতন্ত্র প্রার্থী) হিসাবে মনোনয়ন পত্র জমা দেন। এ ছাড়াও বৃহস্পতিবার সতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন জমাদের পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তফিকুল ইসলাম তফি। তবে এই মনোনয়ন দাখিল নিয়ে বিএনপির একটি পক্ষ দাবি করেছেন, যেখানে দল থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে বারণ সেখানে কেউ যদি নিজ দায়িত্বে দলীয় প্রতীক বাদে ভোট করে কোন প্রকার দ্বন্দ্ব-ফেসাদে জড়িয়ে পড়েন তবে তার দায়ভার সেই প্রার্থী কেই বহন করতে হবে।

 

বাঘা উপজেলা নির্বাচন অফিসার মজিবুল আলম জানান, এ বছর বাঘা পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে এখানে মেয়র পদে মনোনয়ন উত্তোলন করেছিলেন ১০ জন, সংরক্ষিত নারী কমিশনার পদে ১৩ জন এবং পুরুষ কমিশনার পদে ৪১ জন। তবে জমা দিয়েছেন কমিশনার পদে ৮ জন। নারী কমিশনার পদে ১৩ এবং পুরুষ কমিশনার পদে ৪০ জন। এ পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ৩১ হাজার ৬৫৯ । এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৫ হাজার ৮১২ ও নারী ভোটার ১৫ হাজার ৮৫৭ জন। এখানে ইভিএমের মাধ্যমে ১১ টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিলো ১ ডিসেম্বর, যাচাই-বাছাই হবে ৩ ডিসেম্বর, প্রার্থীতা প্রত্যাহার ১০ ডিসেম্বর এবং প্রতীক বরাদ্দ হবে ১১ ডিসেম্বর।

 

সানশাইন/তারেক


প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১, ২০২২ | সময়: ৬:৪২ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine

আরও খবর