সর্বশেষ সংবাদ :

বাঘায় জামায়াত নেতার শোডাউন

স্টাফ রিপোর্টার,বাঘা: আগামী ২৯ ডিসেম্বর বাঘা পৌরসভা নির্বাচন। এই নির্বাচনকে সামনে রেখে নিবন্ধন বাতিল হওয়া ও স্বাধীনতা বিরোধী সংগঠন জামায়তে ইসলাম এর পক্ষে বুধবার দুপুরে সতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে প্রায় শতাধিক নেতা-কর্মী সাথে করে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বাঘা পৌর জামাতের আমির ও মোজাহার হোসেন মহিলা ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক সাইফুল ইসলাম। এরপর তারা একটি সোডাউন করে নির্বাচন অফিস থেকে বেরিয়ে যান।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত পৌর নির্বাচনের সময় নিবন্ধন বাতিল হওয়া সংগঠন বাঘা পৌর জামাতের আমির প্রভাষক সাইফুল ইসলাম সতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে মেয়র পদে মাইকিং-সোডাউন সহ ব্যাপক প্রচার-প্রচারনা চালিয়ে ছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যায়ে এসে উপজেলা নির্বাচন অফিসে মনোনয়ন যাচাই বাছাই-এ তাঁর প্রার্থীতা বাতিল হয়ে যায়।
কিন্তু এবার তিনি আট-ঘাট বেধে সতন্ত্র প্রার্থী পরিচয়ে বিভিন্ন মোড়,হাট-বাজার ও পাড়া-মহল্লায প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন।সর্বশেষ তিনি বুধবার দুপুরে তাঁর কর্মী সমর্থক ও বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সাথে করে উপজেলা নির্বাচন অফিসে এসে মনোনয়ন পত্র জমাদেন। এরপর সেখান থেকে একটি সোডাউন করে ৫শ বছরের ঐতিহাসিক বাঘা শাহী মসজিদ এলাকায় গিয়ে একটি স্থানে মিলিত হন। এ সময় ঐ সোডাউনে উপস্থিত ছিলেন সাবেক বাঘা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা জামাতের আমির মওলানা জিন্নাত আলী।
প্রভাষক সাইফুল ইসলাম বলেন, বাঘা পৌর সভায় বিভিন্ন সময় আওয়ামীলীগ এবং বিএনপি থেকে মেয়র নির্বাচিত হয়েছে। এরপর ঐ সমস্ত মেয়র’রা এলাকায় উন্নয়নের চেয়ে জনগনের মাথায় একের পর এক, করের বোঝা চাপিয়েছেন। এ থেকে অনেক সাধারণ মানুষ খুব্ধ। তাঁরা নতুন মুখ দেখতে চাই। আমি সেই লক্ষ্য উদ্দেশ্য নিয়ে সতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে ভোট করতে নেমেছি।


প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১, ২০২২ | সময়: ৭:১৫ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ