রাজশাহীতে জোরে হর্ন বাজানোর দায়ে ৩ বাসকে জরিমানা

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীতে নিষিদ্ধ হাইড্রোলিক হর্ন বাজানোয় যাত্রীবাহী তিনটি বাসকে জরিমানা করা হয়েছে। এসব হর্ন থেকে অনুমোদিত মাত্রার চেয়ে উচ্চমাত্রায় শব্দ সৃষ্টি হয়। রোববার দুপুরে নগরের কাজলা এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে বাস ৩টিকে মোট ২ হাজার ৬০০ টাকা জরিমানা করে পরিবেশ অধিদপ্তর।
শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত ও অংশীদারত্বমূলক প্রকল্পের আওতায় পরিবেশ অধিদপ্তরের রাজশাহী জেলা কার্যালয়ের পক্ষ থেকে এ অভিযান চালানো হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্ব দেন রাজশাহী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুমতাহিনা কবির।
প্রসিকিউটরের দায়িত্ব পালন করেন পরিবেশ অধিদপ্তর রাজশাহী জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক কবির হোসেন। এ সময় বাস তিনটিকে শব্দদূষণ বিধিমালা ২০০৬-এর নিষিদ্ধ হাইড্রোলিক হর্ন বাজানোয় মোট ২ হাজার ৬০০ টাকা জরিমানা ধার্য করে আদায় করা হয়।
বাংলাদেশ শব্দদূষণ (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালা ২০০৬ অনুযায়ী, শব্দের সর্বোচ্চ ঘনমাত্রার ওপর নির্ভর করে বিভিন্ন এলাকাকে পাঁচটি শ্রেণিতে ভাগ করা হয়েছে। নীরব এলাকা, আবাসিক এলাকা, মিশ্র এলাকা, বাণিজ্যিক এলাকা ও শিল্প এলাকা।
এই বিধিমালায় বলা হয়েছে, আবাসিক এলাকায় রাত ৯টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত শব্দের মাত্রা ৪৫ ডেসিবেল এবং দিনের অন্য সময়ে ৫৫ ডেসিবেল অতিক্রম করতে পারবে না।
বাণিজ্যিক এলাকায় তা যথাক্রমে রাতে ৬০ ও দিনে ৭০ ডেসিবেলে থাকতে হবে। হাসপাতাল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, অফিস-আদালতের আশপাশে ১০০ মিটার পর্যন্ত নীরব এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হয় এতে। এসব এলাকায় রাতে ৪০ ও দিনে ৫০ ডেসিবেল শব্দমাত্রা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। শিল্প এলাকায় এ মাত্রা রাতে ৭০ ও দিনে ৭৫ ডেসিবেল এবং মিশ্র এলাকায় রাতে ৫০ ও দিনে ৬০ ডেসিবেল।
পরিবেশ অধিদপ্তরের রাজশাহী কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক কবির হোসেন বলেন, নিষিদ্ধঘোষিত হাইড্রলিক হর্ন ব্যবহার করার জন্য তিনটি বাসকে জরিমানা করা হয়েছে। এসব হর্ন থেকে ১০০ থেকে ১০৫ ডেসিবেল মাত্রার শব্দ সৃষ্টি হয়।


প্রকাশিত: নভেম্বর ২৮, ২০২২ | সময়: ৫:৩১ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর