জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় ৪ জনের যাবজ্জীবন

জয়পুরহাট প্রতিনিধি: জয়পুরহাটে পাওয়ার টিলার চালক এনামুলক হক হত্যা মামলায় বাবা ছেলেসহ ৪জনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়। এছাড়া মামলার আরেকটি ধারায় তাদের ৫ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড দেওয়া হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ নূর ইসলাম এ রায় দেন।
দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, সদর উপজেলার পন্ডিতপুর গ্রামের মৃত কুড়ানুর ছেলে রমজান আলী, তার দুই ছেলে রঞ্জু, শাহীন আলম ও রেজাউলের ছেলে হান্নান। এর মধ্যে রঞ্জু পলাতক রয়েছে। এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলা থেকে আরও তিনজনকে খালাশ দেওয়া হয়েছে।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, সদর উপজেলার ভাদসা ইউনিয়নের ফরিদপুর এলাকার আলতাব হোসেনের ছেলে এনামুল হক ২০০৫ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় বজরপুর এলাকায় ভগ্নিপতির বাড়িতে পাওয়ার টিলার আনতে যান। সেখানে রাতের খাওয়ার পর এনামুল হকের বাড়িতে পরের দিন সকালে পাওয়ার টিলার পৌঁছে দিবে বলে তার ভগনিপতি আবু বকর ভাদসা বাজার পর্যন্ত এনামুল হককে এগিয়ে দিয়ে নিজ বাড়িতে চলে যায়। এরপর থেকেই সে নিখোঁজ ছিল। রাতে আসামীরা তাকে মারপিট করে একটি আলুর ক্ষেতে তার লাশ ফেলে পালিয়ে যায়। পরের দিন সকালে স্থানায়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ এনামুলের লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় পরের দিন নিহতের পিতা সদর থানায় ৭ জনের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে ৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এ রায় দেন।


প্রকাশিত: নভেম্বর ১১, ২০২২ | সময়: ৬:৩৫ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ