সর্বশেষ সংবাদ :

দুর্গাপুর পৌরসভার উপ-নির্বাচনে মেয়র পদে আ’লীগের ১, বিএনপির ৪ প্রার্থী

স্টাফ রিপোর্টার, দুর্গাপুর: রাজশাহীর দুর্গাপুর পৌরসভার উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র জমা দেয়ার শেষদিনে মোট ৫ জন প্রার্থী মেয়র পদে নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। সোমবার (৩১অক্টোবর) সকাল থেকে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার দপ্তরে নিজ নিজ কর্মী সমর্থকদের নিয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দেন প্রার্থীরা।

আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন দলীয় মনোনয়ন পাওয়া সাজেদুর রহমান মিঠু। আওয়ামী লীগের অনেকেই মনোনয়ন পত্র উঠালেও দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে কেউ মনোনয়ন জমা দেননি। মিঠু উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এবং সদ্য প্রয়াত মেয়র তোফাজ্জল হোসেনের ছোট ছেলে। আসন্ন উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা মিঠুকে মেয়র পদে দলীয় (নৌকা প্রতীক) মনোনয়ন দিয়েছেন।

অপরদিকে, বিএনপির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না থাকলেও অনানুষ্ঠানিক ভাবে মেয়র পদে নির্বাচনে অংশ নিতে ৪ বিএনপি নেতা মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন। তাঁরা হলেন, পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক বজলুর রহমান, জিয়া পরিষদ পৌর শাখার সাবেক সভাপতি জিয়াউল হক রতন, পৌর যুবদলের সাবেক সভাপতি মোশারফ হোসেন ও বিএনপি নেতা জার্জিস হোসেন সোহেল। সোহেল ২০২১ সালের নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপি থেকে দলীয় (ধানের শীষ প্রতীক) মনোনয়ন পেয়েছিলেন। তবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেনের কাছে পরাজিত হয়েছিলেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান জানান, মনোনয়ন পত্র জমা দেয়ার শেষদিনে উপ-নির্বাচনে অংশ নিতে মেয়র পদে মোট ৫ জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এরমধ্যে আওয়ামী লীগের একজন দলীয় প্রার্থী রয়েছে। অপর ৪ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। মঙ্গলবার (১ নভেম্বর) রিটার্নিং কর্মকর্তার দপ্তরে প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাই করা হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম বলেন, আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতা মনোনয়ন ফরম তুলেছিলেন। কিন্তু দল থেকে একজনকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। দলীয় সিদ্ধান্তকে সম্মান দেখিয়ে দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে কেউ মনোনয়ন পত্র জমা দেননি। এতে করে প্রমাণিত হয় আওয়ামী লীগ একটি সুসংগঠিত দল। আগামী ১৬ নভেম্বর সকলের সহযোগিতায় একটি অংশগ্রহণমুলক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। দলীয় প্রার্থীর বিজয় সুনিশ্চিত করতে নেতাকর্মীরা সুসংগঠিত হয়ে কাজ করবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

তফসীল অনুযায়ী আগামী ১৬ নভেম্বর দুর্গাপুর পৌরসভায় মেয়র পদে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন ছিল ৩১ অক্টোবর। যাচাই বাছাই ১ নভেম্বর। প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষদিন ৬ নভেম্বর।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, এই নির্বাচনে ৯ টি ওয়ার্ডে মোট ২১ হাজার ১২৬ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার রয়েছে ১০ হাজার ৪৪৫ জন ও মহিলা ভোটার রয়েছে ১০ হাজার ৬৮১ জন। ১১টি ভোটকেন্দ্রে ৫৭ টি বুথে ভোট গ্রহণ করা হবে। সবগুলো কেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহার করা হবে।

প্রসঙ্গত; সর্বশেষ ২০২১ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি দুর্গাপুর পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন তোফাজ্জল হোসেন। গত ২১ আগস্ট চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার একটি হাসপাতালে মেয়র তোফাজ্জল মৃত্যুবরণ করলে নির্বাচন কমিশন থেকে মেয়র পদটি শুন্য ঘোষণা করে গেজেট জারি করা হয়।


প্রকাশিত: অক্টোবর ৩১, ২০২২ | সময়: ৫:০২ অপরাহ্ণ | সানশাইন

আরও খবর