সর্বশেষ সংবাদ :

শক্তিশালী বোলিং লাইনআপ নিয়ে প্রস্তুত শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টস ডেস্ক: পরপর দুই বছরে দুটি বিশ্বকাপ। পারফরম্যান্সে আহামরি উন্নতির জন্য মাঝের সময়টা যথেষ্ট নয়। তবে আপাতদৃষ্টিতে এই কথা খাটছে না শ্রীলঙ্কার ক্ষেত্রে। খর্ব শক্তির দল নিয়েও এশিয়া কাপে শিরোপা জিতে তারা দেখিয়ে দিয়েছে নিজেদের সামর্থ্য। এবার মূল পেসাররাও ফেরায় শক্তি বেড়েছে আরও। সুপার টুয়েলভে ওঠার পথ তাই খুব একটা কঠিন হওয়ার কথা নয় এশিয়ার চ্যাম্পিয়নদের।
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অষ্টম আসরের পর্দা উঠছে রোববার। উদ্বোধনী ম্যাচে নামিবিয়ার মুখোমুখি হবে শ্রীলঙ্কা। জিলংয়ে বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায় শুরু হবে খেলা। ‘এ’ গ্রুপের অন্য দুই দল নেদারল্যান্ডস ও সংযুক্ত আরব আমিরাত মুখোমুখি হবে দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে। প্রাথমিক পর্বে ‘বি’ গ্রুপের চার দল ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আয়ারল্যান্ড, স্কটল্যান্ড ও জিম্বাবুয়ে মাঠে নামবে পরদিন। এই দুই গ্রুপের সেরা চার দল যাবে সুপার টুয়েলভে। সেখানে আগে থেকেই আছে আট দল।
করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে গত বছর অক্টোবর-নভেম্বরে ওমান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে হয়েছিল গত আসর। মহামারী প্রায় পেরিয়ে আসার পর অনেকটা স্বাভাবিক পরিস্থিতিতেই হচ্ছে এবারের আসর। এবার প্রাথমিক পর্বে দুই সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে তুলনামূলক সহজ গ্রুপে পড়েছে লঙ্কানরা। দল হিসেবেও তারা আছে ভালো অবস্থানে। তবে একটা ঘাটতির জায়গা বড় হয়ে উঠতে পারে; গত মাসে এশিয়া কাপ জেতার পর আর কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেনি তারা।
তবে এটাকে বড় করতে দেখতে রাজি নন ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রতিনিধি হয়ে আসা ভানুকা রাজাপাকসে। “হ্যাঁ! (এশিয়া কাপের পর আর খেলিনি)। তবে এশিয়া কাপের আগে আমাদের অনেক খেলা ছিল। ছেলেদের বিশ্রাম দরকার ছিল। এমন বড় টুর্নামেন্ট খেলতে আসার আগে প্রস্তুতি প্রয়োজন আছে। মাঝের সময়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার সুযোগ হারিয়েছি। তবে এটি মূলত দুই দেশের বোর্ডের সমঝোতার ভিত্তিতে হয়। তবে আমরা নিজেদের প্রস্তুতি নিয়ে খুশি। এখন নামিবিয়ার বিপক্ষে প্রথম বল খেলার অপেক্ষা।”
ওয়েস্ট ইন্ডিজের গ্রুপে রয়েছে আরও দুটি টেস্ট খেলুড়ে দেশ। শ্রীলঙ্কার প্রতিপক্ষ তিন সহযোগী দেশ। স্বাভাবিকভাবেই তাদের গ্রুপে চ্যালেঞ্জ তুলনামূলক কম হওয়ার কথা। তবে এমন আলোচনা শুরুতেই উড়িয়ে দিতে চাইলেন রাজাপাকসে। “আমার মনে হয় না, বিশ্বকাপে কখনও সহজ গ্রুপ হয়। তাই ‘এ’ গ্রুপ হোক বা ‘বি’, বিষয়টা একই হতো। তবে অস্ট্রেলিয়া বা ইংল্যান্ডে আমাদের সুবিধা হলো শক্তিশালী বোলিং লাইনআপ। আমরা রান করতে পারলে, প্রতিপক্ষ যে-ই হোক না কেন তাদেরকে আটকে রাখতে পারব। তাই মূল বিষয় হলো রান করা। তবে আমরা কোনো দলকেই হালকাভাবে নেব না।”
চোটের জন্য এশিয়া কাপে খেলতে পারেননি দলের সেরা পেসার দুশমন্থ চামিরা। এছাড়া ছিলেন না আরেক গতি তারকা লাহিরু কুমারাও। বিশ্বকাপে দুজনই আছেন দলে। রাজাপাকসে জানালেন, এতে তাদের আত্মবিশ্বাসও বেড়েছে অনেক। “দুশমন্থ চামিরা আমাদের মূল ফাস্ট বোলার। আমি জানি না, একাদশ কেমন হবে। তবে আমার ব্যক্তিগতভাবে মনে হয় চামিরা ‘অটোমেটিক চয়েজ।’ এরপর অভিজ্ঞতা ও অবদানের কারণে প্রমোদ মদুশন এগিয়ে থাকবে। আমি জানি না কাদের বাদ দেওয়া হবে বা কী! তবে হ্যাঁ, দলে আগের চেয়ে বেশি অভিজ্ঞতা থাকবে।”
এদিনই ‘ক্যাপ্টেন্স ডে’ আয়োজনে লঙ্কান অধিনায়ক শানাকা জানান, এশিয়া কাপ জেতার আত্মবিশ্বাস পুরো দলকে চাঙা করে রেখেছে। ভানুকার মতো তিনিও ব্যাটিংয়ের দিকে বাড়তি মনোযোগ দেওয়ার কথা বলেছেন। “দারুণ এশিয়া কাপের পর আমরা এখন খুব আত্মবিশ্বাসী। দলের আবহ দারুণ। আমরা আমাদের ব্যাটিংয়ে মনোযোগী। যেহেতু এখন গ্রীষ্মের শুরু, তাই কন্ডিশন কিছুটা ভিন্ন হতে পারে। তাই আমরা সেদিকে মনোযোগ রাখছি। এর বাইরে বোলাররাও দারুণ ছন্দে আছে। (দুশমন্থ) চামিরা ও (লাহিরু) কুমারা আমাদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে। তারা দলে বাড়তি শক্তি যোগ করবে।” টি-টোয়েন্টিতে এখন পর্যন্ত মাত্র একবারই মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলঙ্কা ও নামিবিয়া। বিশ্বকাপের গত আসরে প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে নামিবিয়াকে ৯৬ রানে গুটিয়ে দিয়ে ৭ উইকেটে জিতেছিল লঙ্কানরা।


প্রকাশিত: অক্টোবর ১৬, ২০২২ | সময়: ৬:০৩ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর