নাদের আলী কলেজ অধ্যক্ষের সাথে হাতাহাতি, সভাপতি হাসপাতালে

পুঠিয়া প্রতিনিধি: রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বরে শহীদ নাদের আলী বালিকা স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও সভাপতির হাতাহাতি ঘটনা ঘটেছে। এতে প্রতিষ্ঠানটির সভাপতি মাহাবুর রহমান বাবু (৫৫) আহত হয়েছে। আহত মাহাবুবুর রহমান বাবু উপজেলার বানেশ্বর এলাকার সমসের আলীর ছেলে। রবিবার সকাল সড়ে ৮টায় প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষর রুহুল আমিনের ভাড়া বাড়ির সামনে এ ঘটনাটি ঘটে।
এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ দিন ধরে প্রতিষ্ঠানটির সভাপতি ও অধ্যক্ষর মধ্যে বিরোধ চলছিলো। প্রতিষ্ঠানের সভাপতি মাহাবুবুর রহমান বাবু বলেন, আমি অধ্যক্ষকে দূর্নীতির দায়ে বরখাস্ত করি। এ কারণে তিনি বিভিন্ন সময় আমাকে হত্যার চেষ্টা চালায়।
রবিবার সকালে আমি বানেশ্বর হাটের অধ্যক্ষর ভাড়াবাড়ির সংলগ্ন একটি সরকার ওয়েল এন্ড ডাউল মিলে তেল নিতে যাই। এসময় অধক্ষ্য রুহুল আমিন তার স্ত্রী ও তার ভাই আমাকে দেখতে পয়ে আমার উপর হামলা চালায়।
এসময় অধ্যক্ষ রুহুল আমিনের ভাই তার হাতে থাকা ধরালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। এসময় আমার চিৎকারে আশে পাশের লোকজন ছুটে এলে তারা পালিয়ে যায়। পরে আমি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছি।
এছাড়াও অধ্যক্ষ রুহুল আমিন জানান, সকালে আমার বাড়ির সামনে এসে সভাপতি চিৎকার ও গালমন্দ শুরু করে। এসময় আমি তার গালমন্দ শুনে নিচে নেমে আসি। এসময় সভাপতি আমার কলার ধরে মারধোর শুরু করেলে আমরা স্ত্রী বিয়য়টি দেখতে পেয়ে আমাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসে। দুই জনের ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে লোকজন এগিয়ে এসে আমাদের ছাড়িয়ে দেয়। তবে সভাপতিকে ধারালো অস্ত্রের আঘাত করার বিষয়টি তিনি মিথ্যা বলে অভিযোগ করেন।
এবিষয়ে পুঠিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, দুই পক্ষই থানায় এসেছে। তাদের অভিযোগ দেখে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে এ কর্মকর্তা জানান।


প্রকাশিত: অক্টোবর ৩, ২০২২ | সময়: ৬:৩৫ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর