সাকিবের বাবার নামের জায়গায় তার শ্বশুরের নাম অনাকাঙ্ক্ষিত ভুলঃ হিরু

সানশাইন ডেস্কঃ

 

একের পর এক বিতর্কে জড়িয়ে পড়ছেন বাংলাদেশ দলের তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। বেট উইনার নিউজের সঙ্গে চুক্তি, শেয়ারবাজার কারসাজির অভিযোগের পর এবার সাকিবের বিরুদ্ধে নতুন অভিযোগ উঠেছে। একটি জাতীয় দৈনিকের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, শেয়ারবাজারে সাকিবের প্রতিষ্ঠান মোনার্ক হোল্ডিংসের নথিপত্রে নিজের বাবার নাম ভুল করেছেন দেশসেরা এই ক্রিকেটার।

 

একটি জাতীয় দৈনিকের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, শেয়ারবাজারে সাকিবের প্রতিষ্ঠান মোনার্ক হোল্ডিংসের নথিপত্রে সাকিব তার বাবার নাম ভুল উল্লেখ করেছেন। মোনার্ক হোল্ডিংসের সেই নথিতে সাকিব তার বাবার নাম লেখেন কাজী আব্দুল লতিফ। অথচ তার বাবার নাম খন্দকার মাশরুর রেজা।

 

কাজী আব্দুল লতিফ সম্পর্কে সংবাদ মাধ্যম থেকে জানা যায়, তিনি সাকিবের ব্রোকারেজ হাউস মোনার্ক হোল্ডিংস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী সাদিয়া হাসানের বাবা। মোনার্ক হোল্ডিংস লিমিটেডের চেয়ারম্যান সাকিব আল হাসান। আর তার প্রতিষ্ঠানের এমডি কাজী সাদিয়া হাসান শেয়ারবাজারের আলোচিত ব্যক্তিত্ব আবুল খায়ের হিরুর সহধর্মিণী। শেয়ারবাজারের ব্যবসায় সাকিবের বিজনেস পার্টনার আবুল খায়ের হিরু।

 

বিষয়টি অবশেষে পরিষ্কার করে জানালেন সাকিবের পার্টনার আবুল খায়ের হিরু। কেন সাকিবের বাবার নামের জায়গায় তার শ্বশুরের নাম লেখা হয়েছে, তার ব্যাখ্যায় তিনি জানান, এটি নিবন্ধনের সময় করা অনাকাঙ্ক্ষিত ভুল মাত্র। যৌথ মূলধন কোম্পানি ও ফার্মসমূহের পরিদপ্তর-আরজিএসসি ভুলটি করেছে। দ্রুতই ঠিক করে দেওয়া হবে।

 

গণমাধ্যমকে আবুল খায়ের হিরু বলেন, ‘কোম্পানি ফর্ম তৈরির সময় কোনো ভুল ছিল না। তখন ঠিকই ছিল। কিন্তু অ্যাডিশনাল কিছু কাজ যুক্ত করার সময় সাদিয়ার বাবার নাম ওরা ভুল করে সাকিবের বাবার নামে দিয়ে দেয়। বিষয়টি গতকালই (শনিবার) জানতে পেরেছি আমি। আজকে (রোববার) অবশ্য ঠিক করার জন্য সাবমিট করেছি। ভুলটা আরজিসি করেছে।’

 

 

এর আগে সাকিবের এই ইস্যুতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ভাষ্য জানতে চাইলে প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন গতকাল বলেন, ‘এটা সম্পূর্ণ একটা বাইরের ব্যাপার। যাকে নিয়ে আপনারা বলছেন, তিনিও (সাকিব) দেশের বাইরে আছেন, যতটুকু জানি। এ বিষয়গুলো আমাদের কাছে ওইভাবে আসেনি। আপনারা যেমন শুনেছেন, আমরাও শুনেছি। বিষয়টা নিয়ে আসলে এই মুহূর্তে আমার কিছু বলা সম্ভব নয়।’

 

পাশাপাশি দুবাইতে জাতীয় দলের ট্রেনিং ও দুটি ম্যাচে সাকিবের থাকা না থাকা নিয়েও কথা বলেছেন বিসিবি প্রধান নির্বাহী। তার ব্যাখ্যা, সাকিবের দুবাইতে প্র্যাকটিস সেশনে অংশ নেওয়া এবং ম্যাচ খেলার ব্যাপারে কোন অগ্রগতি নেই।

 

নিজামউদ্দীন চৌধুরী বলেন, ‘বাইরের একটা ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ খেলার জন্য তাকে আমরা অনেক আগেই এনওসি দিয়েছি। যেহেতু এটা আমাদের হুট করে নেওয়া সিদ্ধান্ত যে- একটা ট্যুর করবো। সে ক্ষেত্রে তাকে সিরিজে রাখা হবে কি না সেটা টিম ম্যানেজমেন্ট সিদ্ধান্ত নিবে।’

 

 

 

সুত্রঃআমাদের সময়

 

 

সানশাইন/টিএ

 

 


প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২২ | সময়: ৭:২৮ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine