রাবিতে চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থীদের অবস্থান

রাবি প্রতিনিধি: ফল পুনঃমূল্যায়নের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) চারুকলা অনুষদের গ্রাফিক ডিজাইন, কারুশিল্প ও শিল্পকলার ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থীরা। রোববার (২৮ আগস্ট) সকাল ৮ টা থেকেু প্রায় তিন ঘন্টাব্যাপী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন একাডেমিক ভবনের মূল ফটকে তালা লাগিয়ে অবস্থান কর্মসূচি করেন তারা।
পরে আগামী রোববারের মধ্যে বিষয়টি সমাধান করা হবে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের এমন আশ্বাসে আন্দোলন স্থগিত করেন শিক্ষার্থীরা।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ২ আগস্ট প্রকাশিত বিভাগটির তৃতীয় বর্ষের ফলাফলে গ্রাফিক ডিজাইন ডিসিপ্লিনের ইসতিহাত শাফিন, মেহেদী হাসান পুলক, রিংকি, হাজদা এবং উইলিয়াম নামের ৫ জন শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীরা বেশ কিছুদিন যাবত বিভাগের সভাপতি, চারুকলা অনুষদের ডিন এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে বার বার দেখা করার পরও কোনো সমাধান না পেয়ে অনুষদের তিন বিভাগের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে রোববার সকালে অবস্থান কর্মসূচিতে বসেন।
পরবর্তীতে ঘটনাস্থলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক উপস্থিত হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য বরাবর ফল পুনঃমূল্যায়নের দাবি জানিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের লিখিত আবেদন জানাতে বলেন। পরে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মধ্যে তিনজন লিখিত আবেদন নিয়ে উপাচার্যের সঙ্গে সরাসরি দেখা করেন। এসময় উপাচার্য বিষয়টি আগামী রোববারের মধ্যে সমাধানের আশ্বাস দেন।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ইসতিহাত শাফিন বলেন, তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষায় কোনো কারণ ছাড়াই আমাদের পাঁচজনকে ফেল করিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফল প্রকাশের পর আমরা প্রায় ২৪ দিন যাবত বিভাগের সভাপতি, চারুকলা অনুষদের ডিন এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে ফল পুনঃমূল্যায়নের জন্য যোগাযোগ করছি। কিন্তু কোনো সমাধান পাই নি। পরবর্তীতে আমরা অবস্থান কর্মসূচিতে যেতে বাধ্য হয়েছি। আর আমাদের চারুকলায় আরও অনেক ধরণের আনুষঙ্গিক সমস্যা রয়েছে। সবগুলো সমস্যা নিয়েই আমাদের আজকের আন্দোলন।
আন্দোলন স্থগিতের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের মধ্যে থেকে তিনজন সহপাঠি উপাচার্যের সঙ্গে আজ আলোচনায় বসেছিলেন। উপাচার্য আগামী রোববারের মধ্যে সমস্যাটি সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন। সেই আশ্বাসের প্রেক্ষিতে আমরা আন্দোলন স্থগিত করেছি। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সমস্যার সমাধান না হলে আমরা কঠোর আন্দোলনের দিকে ধাবিত হব।
সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে গ্রাফিক ডিজাইন, কারুশিল্প ও শিল্পকলার ইতিহাস বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক টি এম এম নূরুল মোদ্দাসের চৌধুরী বলেন, এটি আমাদের বিভাগের অভ্যন্তরীণ একটি বিষয়। বিভাগের শিক্ষার্থীদের অভিযোগটিকে আমরা একদম অবহেলা করছি না। আমরা এ বিষয়ে একাডেমিক কমিটির মিটিংয়ে বসেছিলাম। আমরা বিষয়টি গুরুত্বের সহিত খতিয়ে দেখছি।


প্রকাশিত: আগস্ট ২৯, ২০২২ | সময়: ৫:৫২ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর