সর্বশেষ সংবাদ :

এক মাসেই শহর রক্ষা বাঁধে ফাটল

সিংড়া প্রতিনিধি: নাটোরের সিংড়া শহর রক্ষা বাঁধ নিমার্ণে ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে প্রায় ১৭ কোটি টাকার ১৭৮ মিটার শহর রক্ষা বাঁধের প্রকল্প অনুমোদন করা হয়। ২০১৯ সালের এপ্রিলে নাটোর পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় শহর রক্ষা বাঁধের কাজ শুরু করেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। চলতি বছর ৩০ জুলাই সিংড়া শহর রক্ষা বাঁধের উদ্বোধন করেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম। উদ্বোধনের এক মাসের মধ্যেই শহর রক্ষার বাঁধটিতে ফাটল দেখা দিয়েছে।
জানা যায়, নাটোরের সিংড়া অংশের আত্রাই নদীর তীরে প্রায় অর্ধলক্ষ মানুষের স্বপ্ন বাস্তবায়নে চলনবিলের রুপকার স্থানীয় সাংসদ ও আইসিটি প্রতিমন্ত্রী অ্যাড. জুনাইদ আহমেদ পলকের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে প্রায় ১৭ কোটি টাকার ১৭৮ মিটার শহর রক্ষা বাঁধের প্রকল্প অনুমোদন হয়। ২০১৯ সালের এপ্রিলে নাটোর পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় শহর রক্ষা বাঁধের কাজ শুরু করেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। চলতি বছর ৩০ জুলাই সিংড়া শহর রক্ষা বাঁধের উদ্বোধন করেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম।
স্থানীয়রা জানান, নাটোর-রগুড়া মহাসড়কের আত্রাই নদীর উপর নির্মিত সেতুর নিচে স্থানীয় প্রভাবশালীর নদী থেকে উত্তোলনকৃত বালু ড্রেজার থেকে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ড্রেজার ইঞ্জিনের ব্যাপক কম্পনের সৃষ্টি হয়। এতে করে বাঁধে গর্ত হয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে।
স্থানীয় বাসিন্দা হাফিজুর রহমান সবুজ ও নদীর তীরবতি মানুষ বলেন, নদীর তীরবর্তী বাসিন্দাদের স্বপ্নের বাঁধ এটা। বালু খালাসের ড্রেজার বেঁধে রাখার কারণে শহর রক্ষা বাঁধে গর্ত দেখা দিয়েছে। বাঁধটি সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য কর্তৃপক্ষের নজর দেয়া উচিত বলে অনেকেই মনে করেন।
ইমরান খান নামের আরেকজন বাসিন্দা জানান, যেখানে গর্ত দেখা গেছে তার নিচে পাইপ আছে। কাজ চলার সময় পাইপ সরানোর জন্য বলা হলেও গুরুত্ব দেয়নি কেউ। শহর রক্ষা বাঁধে সকাল-বিকেল জগিং করা অনেকে বলেন, সিংড়াবাসীর জন্য একটা স্বপ্নের বাঁধ এটি। হঠাৎ ধস দেখে খারাপ লাগছে। সংস্কার করে রাষ্ট্রীয় এ সম্পদ রক্ষা করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সহায়তা চান তারা।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার সামিরুল ইসলাম বলেন, পৌর মেয়র মহোদয়ের সাথে কথা বলে সংস্কার সহ প্রয়েজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


প্রকাশিত: আগস্ট ২৭, ২০২২ | সময়: ৪:৪৬ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর