রাজশাহীতে নিখোঁজ দুই শিশুকে উদ্ধার করে মায়ের কাছে ফিরিয়ে দিলো পুলিশ

রাজশাহী প্রতিনিধি : মায়ের সঙ্গে রাজশাহী নগরীতে চিকিৎসা নিতে এসে হারিয়ে যাওয়া দুই শিশুকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিয়েছে রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। নিখোঁজ দুই শিশুকে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের প্রচেষ্টায় মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। ওই দুই শিশুর মধ্যে একজন ৭ বছর বয়সী উম্মে হাবিবা ও ৩ বছর বয়সী আদিয়া। তাদের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে।
পিতৃহারা নিখোঁজ সন্তানদের ফিরে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে উঠেন মা নাজনীন আক্তার। গত শুক্রবার এ ঘটনা ঘটে। রবিবার সকালে রাজশাহী মহানগর পুলিশের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
রাজশাহী মহানগর পুলিশ জানায়, গত শুক্রবার সন্ধ্যার পর গোয়েন্দা পুলিশের একটি টহল দল নগরীর ঝাউতলা মোডে দুই শিশুকে কান্নাকাটি করতে দেখেন। পরে সেখান থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। পরে নগর গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে তাদের নেওয়া হয়। সেখানে জিজ্ঞাসাবাদে তারা তাদের নাম ও মায়ের নাম বলেন। তাদের পিতা হাবিবুর রহমান মারা গেছেন বলেও জানান। তারা মায়ের সঙ্গে চিকিৎসার জন্য এসে হারিয়ে যায়। অনেক খুজে তারা আর মাকে খুজে পায় নি বলে পুলিশকে জানায়।
ঘটনা জানার পরপরই নগর গোয়েন্দা পুলিশ ওই দুই শিশুকে নিয়ে মায়ের খোজ শুরু করেন। একই সঙ্গে আরএমপির কন্ট্রোলকেও অবগিত করেন। নগরীর সব চিকিৎসাকেন্দ্র, ক্লিনিক ও ডায়াগনন্টিক সেন্টারেও খোজ নেন। শহরে মাইকিংও করা হয়। দীর্ঘ প্রচেস্টার পর রাতে তার মাকে খুজে পাওয়া যায় নগরীর লক্ষীপুর এলাকায় এ্যাপোলো হাসপাতালের সামনে। শিশুদের হারিয়ে তিনিও সেখানে কান্নাকাটি করছিলেন।
হারিয়ে যাওয়া শিশু দুইটির মা নাজনীন জানান, শুক্রবার বিকেলে তার দুই মেয়ে উম্মে হাবিবা ও আদিয়াকে নিয়ে তার মায়ের চিকিৎসার জন্য রাজশাহীর জেনারেল হাসপাতালে আসেন। সেখানে নাজনীনের পরিচিত জহুরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি তার দুই মেয়েকে বাইরে নিয়ে আইসক্রিম কিনে দিয়ে আবার হাসপাতলের ভিতরে রেখে যান। তবে চিকিৎসা শেষে নাজনীন আক্তার শিশু দুইটিকে তার কাছে নিয়ে আসার জন্য জহুরুলকে ফোন দিলে সে জানায়, তাদের অনেক আগেই হাসপাতালে রেখে এসেছে। পরে তারা শিশু দুইটিকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন।
পরে ওইদিন রাতেই রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে শিশু দুইটিকে তার মায়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়। দুই শিশুকে ফিরে পেয়ে মা নাজনীন আক্তার আনন্দিত হয়ে উঠেন। তিনি পুলিশের ভুমিকায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।


প্রকাশিত: আগস্ট ২২, ২০২২ | সময়: ৫:৫৫ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর