দুর্গাপুরে শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানায়নি আ.লীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, দুর্গাপুর: দলীয় কর্মসুচির অংশ হিসেবে সারাদেশে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে। দিবসটি পালন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন সহ নানা কর্মসুচি পালন করা হলেও সেক্ষেত্রে ব্যাতিক্রম ঘটেছে রাজশাহীর দুর্গাপুরে। সোমবার সকাল ১০ টায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদনের আয়োজন করা হয়। স্থানীয় সংসদ সদস্য, উপজেলা প্রশাসন, সরকারের বিভিন্ন দপ্তর ও বিভিন্ন সংগঠন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানালেও শ্রদ্ধা জানায়নি উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং পৌর আওয়ামী লীগ। এ নিয়ে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের মাঝে। দিনভর বিষয়টি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলেছে সর্ব মহলে।

জানা গেছে, ৪৭তম জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে নানা কর্মসুচি গ্রহণ করা হয়। সোমবার সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদনের আয়োজন করা হয়। প্রথমেই নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য প্রফেসর ডাঃ মোঃ মনসুর রহমান। এরপর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল রানা। পর্যায়ক্রমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন পৌরসভা কর্তৃপক্ষ, থানা পুলিশ, বীর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড কাউন্সিল, উপজেলা কৃষক লীগ, উপজেলা যুবলীগ, উপজেলা ছাত্রলীগ ও বিভিন্ন সংগঠন। কিন্তু উপজেলা আওয়ামী লীগ ও পৌর আওয়ামী লীগের ব্যানারে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়নি। এতে তাৎক্ষনিক গুঞ্জন শুরু হয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে। দিনভর বিষয়টি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলে বিভিন্ন মহলে।

আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতার বলেন, আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন না করে এক ধরনের ধৃষ্টতা দেখানো হয়েছে। দীর্ঘ সময় আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলেও সাংগঠনিক ভাবে এই উপজেলায় আওয়ামী লীগ পিছিয়ে গেছে এটাই তার নমুনা।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ মোজাম্মেল হক প্রথমে দাবি করেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে কেউ না কেউ ফুলেল শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। কিন্তু উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আলাদা ভাবে শ্রদ্ধা জানানো হয়নি প্রশ্নটি পুণরায় তাকে করা হলে তিনি বলেন, আমি নিজ উদ্যোগে আমার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেছিলাম। এ কারনে সকালে উপজেলায় যেতে পারিনি। তাছাড়া এই দায়িত্ব উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান ফিরোজের উপরে ছিলো। তিনি সম্ভবত সেখানে ছিলেন। তিনিই ভালো বলতে পারবেন।

পৌর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকেও শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়নি এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ নেতা মোজাম্মেল হক বলেন, পৌর আওয়ামী লীগের ঘোষিত কমিটি কেন্দ্র থেকে স্থগিত করার কারনে এমনটা ঘটতে পারে।

তবে বিকেলে দুর্গাপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে শোক সভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয় বলে দাবি করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক।

এ ব্যাপারে কথা বলতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান ফিরোজের ব্যাক্তিগত মুঠোফোনে কল করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।


প্রকাশিত: আগস্ট ১৬, ২০২২ | সময়: ৩:৩৬ অপরাহ্ণ | সানশাইন