আক্কেলপুরে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

আক্কেলপুর প্রতিনিধি: জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে গোলাপী আক্তার (২৪) নামের এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। গৃহবধূ সাড়ে তিন বছর বয়সী এক কন্যা সন্তানের জননী ছিলেন। ঘটনাটি উপজেলার রুকিন্দীপুর ইউনিয়নের কানুপুর বকুলতলা গ্রামে ঘটেছে। তিনি ওই গ্রামের ভ্যান চালক আরিফুল ইসলামের স্ত্রী এবং নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলার মিঠাপুর ইউনিয়নের সাগরপুর (গোয়ালপুর) গ্রামের উজ্জল হোসেনের মেয়ে।
নিহতের পরিবার, থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ৭ বছর পূর্বে নিহত গোলাপীর বিয়ে হয় ভ্যান চালক অরিফুলের সাথে। বিয়ের পর থেকে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয়ে তাদের মধ্যে কলহ বিবাদ লেগেই থাকত।
শুক্রবার দুপুরে স্ত্রী গোলাপী আক্তার তার স্বামীর কাছ থেকে একটি সেলাই মেশিন কিনে চান। এনিয়ে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য সৃষ্টি হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ওই দিন বিকেলে বাড়ির সকলের অগোচরে আনুমানিক সাড়ে ৫ টায় তার নিজ শয়ন ঘরের বাঁশের সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দেয় গৃহবধূ গোলাপী আক্তার।
দীর্ঘ সময় সময় ঘর বন্ধ থাকায় পরিবারের লোকজন বাড়িতে এসে ডাকাডাকি করার পরেও দরজা না খোলায় জানালায় গিয়ে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে তার চিৎকারে স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করে। খবর পেয়ে শুক্রবার রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নেয়।
নিহতের বাবা উজ্জল হোসেন বলেন, ‘দুই দিন আগেই আমার মেয়ে আমার বাড়ি থেকে আসার সময় সেলাই মেশিন কেনার জন্য ১ হাজার টাকা নিয়ে এসেছে। আজ তার মৃত্যুর খবর পেয়ে এখানে এসেছি’।
নিহতের ননদ শারমিন আক্তার বলেন, ‘বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ভাবি গোলাপী গলায় ওরনা পেচিয়ে ফাঁস দেয়। বিষয়টি আমরা জানালা দিয়ে দেখতে পাই। তাকে অনেক ডাকাডাকি করলে দরজা না খোলায় উপর দিয়ে ঘরে প্রবেশ করে দরজা খুলে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে। সেলাই মেশিন কেনাকে কেন্দ্র করে তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়েছিল’।
আক্কেলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু বকর সিদ্দীক বলেন, ‘খবর পেয়ে রাতেই লাশটি উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নেওয়া হয়। এঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য লাশটি মর্গে পাঠানো হয়েছে’।


প্রকাশিত: আগস্ট ১৪, ২০২২ | সময়: ৫:০২ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ