মুন্ডুমালায় বঙ্গবন্ধু চত্বর ও মুর‌্যাল স্থাপনের উদ্যোগে সর্বমহলে প্রশংসিত মেয়র সাইদুর

তানোর প্রতিনিধি

রাজশাহীর তানোর উপজেলার মুন্ডুমালা পৌর সদরের ত্রি-মহনী নামক স্থানে রাস্তার মাঝখানে ‘বঙ্গবন্ধু চত্বর’ স্থাপন করা হচ্ছে। এছাড়াও তার পাশ ঘিরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মজিবুর রহমানের বড় আকারে হচ্ছে একটি মুর‌্যাল। যা ইতিমধ্যে নকশা প্রস্তুত করে কাজ শুরু করেছেন মুন্ডুমালা পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। রাজশাহী জেলা পরিষদ ও মুন্ডুমালা পৌরসভার যৌথ অর্থায়নে প্রকল্পটির ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের কাজ শুরু করা হচ্ছে । তবে, চলতি বছর শেষ হবার আগেই এ কাজ সমাপ্ত হবে বলে জানা গেছে।

 

শোকের মাসে এমন একটি স্থানে বঙ্গবন্ধুর নামে চত্বর ও মুর‌্যাল স্থাপনের খবরে খুশি ও আনন্দিত স্থানীয় আ.লীগের নেতাকর্মী ও সমর্থক ছাড়াও মুক্তিযোদ্ধাসহ সাধারণ মানুষ। তারা শুধু খুশি নয়, এমন উদ্যোগে পৌর মেয়র সাইদুর রহমানের বিশেষ প্রশংসাও করছেন।

 

পৌরসভার প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম ও নাজমুল হাসান বলেন, শোকের মাস শুরু হতেই জায়গা নির্ধারণ করে বাজারের জিরোপয়েন্ট নামক স্থানে বঙ্গবন্ধু চত্বর ও মুর‌্যাল স্থাপনের কাজ শুরু করেছেন। যতদ্রুত করা যাই সেক্ষেত্রে দিন-রাত কাজ চলছে।

 

এবিষয়ে তানোর উপজেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সাজ্জাদ আলী মাস্টার বলেন, বঙ্গবন্ধু চত্বর ও মুর‌্যাল নতুন প্রজেন্মের কাছে আরও বেশি পরিচিতি ও দীর্ঘয়িত হবে। তিনি আরও বলেন, দীর্ঘ ৯ মাস যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। দেখতে দেখতে প্রায় ৫১ট বছর পেরিয়ে গেলো। মুন্ডুমালার মত একটি গ্রামের বাজারে রাস্তায় বঙ্গবন্ধু নামে গোলচত্বর ও মুর‌্যাল স্থাপন হবে এটা কোনদিনই ভাবিনী। আজ সত্যি খুব ভাল লাগছে। বিশেষ করে মৃত্যুর পূর্বে হলেও দেখে যেতে পারবো। গ্রামের অনেক মুক্তিযোদ্ধা মারা গেছেন, তারা আজ বেঁচে থাকলে অনেক খুশি হতেন।

 

মুন্ডুমালা পৌর এলাকার আরেক বীর মুক্তিযোদ্ধা বেনজিন আহম্মেদ বলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর এ উপজেলায় অনেক চেয়ারম্যান ও পৌর মেয়র হয়েছেন। কিš‘ কেউ বঙ্গবন্ধুর স্বৃতি ফলক নিয়ে এমন উদ্যোগ নেননি। বর্তমান মুন্ডুমালা পৌর মেয়র সাইদুর রহমান বঙ্গবন্ধু নামে চত্বর ও মুর‌্যাল স্থাপনের কাজ শুরু করাই আমরা সকল বীর মুক্তিযোদ্ধারা খুশি হয়েছি।

 

মুন্ডুমালা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মোস্তাফা বলেন, মুন্ডুমালার মতো একটি জায়গায় বঙ্গবন্ধু নামে চত্বর হচ্ছে, মেয়রের এমন উদ্যোগে স্বাগত জানান তিনি। এছাড়া পৌর মেয়রকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমাদের পৌর এলাকার সকল ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা শুধু নয়, উপজেলার ৯০ ভাগ সাধারণ মানুষও আনন্দিত। পৌর বাজারে রাস্তা সরু হওয়াই সব সময় যানজোট লেগেই থাকতো। এমন সবভাল উদ্যোগে আমি পৌর মেয়র সাইদুর রহমানকে তাঁর সকল কাজে সহযোগিতা করবো।

 

তানোর উপজেলার মুন্ডুমালা পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পৌর মেয়র সাইদুর রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধু আদর্শ নিয়ে আমি রাজনীতি করে আসছি। আমার অনেক দিনের স্বপ্ন ছিল, মুন্ডুমালায় বঙ্গবন্ধুর স্বৃতি নিয়ে কিছু একটি করবো। আজ মেয়র হয়ে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছি। বঙ্গবন্ধু নামে বাজারের জিরোপয়েন্টে একটি চত্বর ও পাশে মুর‌্যালের কাজ শুরু করতে পেরেছি। এতে আমাকে সর্বদিক দিয়ে সহযোগিতা করছেন রাজশাহী জেলা প্রশাসন ডিসি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মহোদয়। এমন কাজে সহযোগিতা করাই আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ থাকবো।

সানশাইন / শাহ্জাদা মিলন


প্রকাশিত: আগস্ট ১৩, ২০২২ | সময়: ১০:০৬ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine

আরও খবর