সর্বশেষ সংবাদ :

বাংলাদেশ উচ্চ আয়ের দেশে যাবার স্বপ্ন দেখছে : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

নুরুজ্জামান,বাঘা :

 

চারঘাট-বাঘার সাংসদ ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আলহ্জ শাহরিয়ার আলম বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা ১৫ আগস্ট তার পিতা-মাতা সহ পুরো পরিবারকে হারিয়ে যতটা না ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন , তার চেয়েও বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বাংলাদেশ। আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসেছে বলে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। একই সাথে ২০৪১ সাল নাগাদ উ”চ আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার স্বপ্ন দেখছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বাজুবাঘা ইউনিয়নের চন্ডিপুর উ”চ বিদ্যালয় মাঠে শোকাবহ আগস্টের আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

 

বাজুবাঘা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান ফজলের সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের দুর্ভাগ্য যার জন্য মায়ের ভাষা ফিরে পেয়েছি, তিনি আজ আমাদের মাঝে নেই। তবে তাঁর সুযোগ্য কন্যা পিতার সকল আদর্শ বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে এ থেকে আমার বিশ্বাস তাঁর আত্না অবশ্যই শান্তি পাবেন। তিনি বলেন, বিএনপি সরকার কখনো ভাবেনি বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত হবে। সেখানে আমরা মধ্যম আয়’তো বটেই, আগামী ২০৪১ সাল নাগাদ উচ্চ আয়ের দেশে পরিনত হওয়ার স্বপ্ন দেখছি। মন্ত্রী বলেন, কোন শর্ত দিয়ে বঙ্গবন্ধুকে দাবানো যায়নি, শেখ হাসিনাকেও যাবে না। জনগণ আমাদের সাথে আছে, আমরা উচ্চ আয়ের দেশে না পৌঁছানো পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকবো ইনশাল্লাহ ।

 

 

এর আগে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আখতার এর সভাপতিত্বে বাঘার বিভিন্ন ইউনিয়নের ক্যান্সার, কিডনী, লিভার সিরোসিস, প্যারালাইসিসে আক্রান্ত অসুস্থদের মাঝে সমাজসেবা অধিদপ্তরের আয়োজনে উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে চেক বিতরণ এবং যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মাধ্যমে যুবকদের মাঝে চেক হস্তান্তর করেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন, সমাজসেবা অফিসার নাফিজ শরিফ ও যুব উন্নয়ণ কর্মকর্তা শাখাওয়াত হোসেন।এ ছাড়াও তিনি সকালে বাউসা ইউনিয়নের ধন্দহ-আমরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের চারতলা একাডেমিক ভবনের শুভ উদ্বোধন করেন।

 

এসব অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, আমাদের সরকার ক্ষমতায় এসে যে পরিমান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এমপিও করণ সহ ভবন নির্মান করে দিলেন তা বিগত কোন সরকার করতে পারেনি। কারণ আমাদের প্রধানমন্ত্রী শিক্ষাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে খাকেন। একই সাথে তিনি এ দেশের গরিব ও অসহায় মানুষদের ভালবাসেন। এ কারনে নানা প্রকার ভাতা প্রদান সহ আশ্রয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছেন।

 

 

তিনি বলেন, জেলখানা হলো নিরাপত্তার জায়গা। সেখানে কিছু মানুষ সাজাভোগ করেন। আবার কিছু মানুষ বিচারকার্জ চলাকালিন সময়ে সেখানে অবস্থান করেন। অথচ পাকিস্থানী শাসকরা নিরাপত্তার জায়গায় নিয়ে গিয়ে জাতীয় চার নেতাকে নির্মম ভাবে হত্যা করেছিল। মন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর অনেক দেশ ঘুরেছি। তবে শেখ হাসিনার মতো দক্ষ নেত্রী আমি কখনো দেখিনি। তিনি যতদিন বেঁচে থাকবেন, ততোদিন দীপ্তপায়ে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ।

 

 

এ সকল পৃথক অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাঘা উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম মন্টু, অধ্যক্ষ নছিম উদ্দিন, আ’লীগ নেতা মাসুদ রানা তিলু, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াহেদ সাদিক কবীর, বাঘা পৌর আ,লীগের সভাপতি আবদুল কুদ্দস সরকার, বাঘা পৌর সভার প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান পিন্টু, উপজেলা মহিলা আ’লীগের সভানেত্রী ফাতেমা মাসুদ লতা, জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদিকা বিপাশা খাতুন,রাজশাহীজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানা ও বাজুবাঘা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানজিম হাসান স্বদেশ ।

 

উপস্থিত ছিলেন, ওয়ার্ড পর্যায়ের সকল রাজনৈতিক নেত্রীবৃন্দ, শিক্ষক মন্ডলী ,মহিলা আওয়ামীলীগ ও শিক্ষার্থী-সহ সকল সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী ও স্থানীয় সুধীজন। সব শেষে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্নজীবনীর উপর পাঠচক্র ও কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহনকারি বাজুবাঘার ইউনিয়নের ৫ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

সানশাইন / শাহ্জাদা মিলন

 


প্রকাশিত: আগস্ট ১১, ২০২২ | সময়: ৭:৩৭ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine