সর্বশেষ সংবাদ :

বাঘায় বিকাশের দোকান থেকে ৩ লক্ষ টাকা ছিনতাই

স্টাফ রিপোর্টার,বাঘা : রাজশাহীর বাঘার ছাতারি এলাকায় অবস্থিত রিমন ইসলাম নামে এক ব্যক্তির বিকাশের দোকান থেকে ২ লক্ষ ৯৭ হাজার টাকা সিনতাই এর ঘটনা ঘটেছে। বুধবার(১০-আগষ্ট) সন্ধ্যায় পার্শ্ববর্তী বলিহার গ্রামের চার যুবক রিমনকে মারপিট করে তার টেবিলের ডয়ার ভেঙ্গে এই টাকা সিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় রিমন বাদি হয়ে রাতে বাঘা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার ছাতারি গ্রামের মৃত কামরুল মন্ডলের ছেলে রিমন ইসলাম(২৬) তার নিজ বাড়ির সামনে ডিজিটাল কম্পিউটার এ্যান্ড সার্ভিস সেন্টার নামে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলে সেখানে বিকাশ এবং নগদ এজেন্ট হিসাবে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। সেই সুবাদে তার সাথে অনেকেই অর্থ লেন-দেন করে থাকেন।

তবে পাশ্ববর্তী বলিহার গ্রামের নুরা প্রাং এর ছেলে শহিদুল ইসলাম (40) গত এক মাস পূর্বে রিমনের মাধ্যমে কোন এক ব্যক্তির নিকট চার হাজার টাকা বিকাশ পাঠায়। এরপর সে ঐ টাকা দুই-চার দিনের মধ্যে দিবে বলে ওয়াদা করে। কিন্তু এক মাস অতিবাহিত হওয়ার পরেও সে টাকা দিতে ব্যর্থ হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার সকালে শহিদুল এবং রিমনের সাথে বাক বিতন্ডা হয়। ঘটনার এক পর্যায় শহিদুল ইসলাম-রিমনকে হুমকি দিয়ে সেখান থেকে চলে আসে।

সর্বশেষ সন্ধ্যার সময় দু’টি মোটর সাইকেল যোগে শহিদুল ও তার ভাতিজা সহ অপর দুই ব্যক্তি রিমনের দোকানে গিয়ে তার উপর হামলা চালায় এবং তার টেবিলের ডয়ার ভেঙ্গে ২ লক্ষ ৯৭ হাজার টাকা সিনিয়ে নেয়। এ সময় হামলা কারিরা তার কম্পিউটারের মনিটর ভেঙ্গে ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত পালিয়ে যায় বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে শহিদুল ইসলামের মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তার ভাই সাইদুল ইসলাম ফোন রিসিভ করে বলেন, চার হাজার টাকা পাওয়ার ঘটনা সঠিক। কিন্তু টাকা সিনতাই এর ঘটনা সঠিক না। সকালে আমার ছেলে ঐ দোকানে ফেক্সিলোড নিতে গেলে পাওনা টাকার বিষয় নিয়ে তার সাথে তর্কে জড়িয়ে পড়ে রিমন। এক পর্যায় আমার ছেলেকে ধরে সে মারপিট করে । এই ঘটনার জের ধরে সন্ধ্যায় তাকে মারা হয়।

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি)সাজ্জাদ হোসেন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


প্রকাশিত: আগস্ট ১০, ২০২২ | সময়: ৯:৫৭ অপরাহ্ণ | সানশাইন

আরও খবর