সর্বশেষ সংবাদ :

খাড়িতে স্লুইসগেট কাটতে গিয়ে কৃষকের মৃত্যু

গোমস্তাপুর প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে একটি প্রবাহমান খাড়িতে বাঁধ দিয়ে অবৈধভাবে ব্যক্তি উদ্যোগে স্লুইসগেট নির্মাণের বলি হয়েছেন বাক প্রতিবন্ধী বর্গা চাষী নজরুল ইসলাম (৬২)।
শুক্রবার সকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের বিষুক্ষেত্র এলাকায় বাঁধের মাটি কেটে জমিতে জমে থাকা অতিরিক্ত পানি সরাতে গিয়ে পানিতে ডুবে মারা যান তিনি। তিনি উপজেলার গোমস্তাপুর ইউনিয়নের রাজারামপুর গ্রামের মৃত হারুনের পুত্র। শুক্রবার বিকেলে ঘটনাস্থল সরেজমিনে পরিদর্শন করে এ তথ্য পাওয়া গেছে।
স্থানীয় কৃষকরা জানায়, একই ইউনিয়নের বেগমনগর গ্রামের আব্দুল করিম মাষ্টারের ছেলে নাসিম মাহমুদ পাশ্ববর্তী নাচোল উপজেলার কসবা ইউনিয়নের কালইর মৌজার হাজারদিঘী বিল মাছ চাষের জন্যে সম্প্রতি ইজারা নেন। ওইবিল সংলগ্ন ভিটাবাড়ী (বাচ্চামারী) খাড়ি দিয়ে নাচোল উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বৃষ্টির পানি দামুস বিল হয়ে মহানন্দা নদীতে পড়ে।
পাউবো পানি ব্যবস্থাপনা কমিটির মাধ্যমে খাড়িটি রক্ষণাবেক্ষণ করে থাকে। প্রায় ২ মাস পূর্বে ওই বিলের ইজারাদার নাসিম ওই প্রবাহমান খাড়িতে বাঁধ দিয়ে ব্যক্তি উদ্যোগে স্লুইসগেট নির্মাণ শুরু করে।
ফলে বৃষ্টির পানি ওই খাঁড়ি দিয়ে নিষ্কাশন না হওয়ায় সদ্য রোপন করা শত শত বিঘা জমির ধান জলাবদ্ধ হয়ে পড়ে। বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয় কৃষকরা বাধা দিতে গেলে তাদের পুলিশের ভয় দেখিয়ে স্লুইসগেট নির্মাণকাজ প্রায় শেষ করা হয়। এখন শুধু জলকপাট লাগানো বাকী রয়েছে।
বিষয়টি কৃষকরা দুই উপজেলার জনপ্রতিনিধিদের অবহিত করলে তারা জেলা সমম্বয় কমিটির সভায় উত্থাপন করে। জেলা প্রশাসক নাচোল ও গোমস্তাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পাউবোকে সরেজমিন তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসমা খাতুন জানান, জেলা প্রশাসনের নির্দেশনা পেয়ে গত মঙ্গলবার তিনিসহ নাচোল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের, নাচোল উপজেলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, কসবা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, গোমস্তাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জামালউদ্দিন ও পাউবোর কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে নির্মাণ করা স্লুইসগেটের সামনের বাঁধ অপসারণ করে পানি প্রবাহ অব্যাহত রাখা হয়।
এছাড়া বিল ইজারাদার নাসিমকে অবৈধভাবে নির্মাণ করা স্লুইসগেট ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেয়া হয়। অন্যথায় তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।
এদিকে, শুক্রবার সকালে ওই কৃষক বাঁধের বাকি অংশ কাটার সময় পানির তোড়ে ভেসে যায়। পরে ওই খাঁড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে স্থানীয়রা।
এ প্রসঙ্গে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান জামালউদ্দীন জানান, কৃষকদের অভিযোগের প্রেক্ষিত ওই খাড়িতে বাঁধ দিয়ে অবৈধভাবে স্লুইসগেট নির্মাণের শুরুতেই আমরা বাধা দেয়া হলেও সে কাজ চালিয়ে যায়।
এরই বলি হতে হয়েছে কৃষক নজরুলকে। পাউবোর উপ- বিভাগীয় প্রকৌশলী ময়েজউদ্দিন জানান, পানি প্রবাহ বন্ধ করে অবৈধভাবে ব্যক্তি উদ্যোগে স্লুইসগেট নির্মাণের বিষয়টি অবহিত হয়ে আমরা ওই ব্যক্তিকে তৈরি করা স্থাপনা সরিয়ে নিতে বলেছি। অন্যথায় তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
গোমস্তাপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হুমায়ুন রেজা জানান, বিষয়টি আমি ও নাচোল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের জেলার বিভিন্ন ফোরামে তুলে ধরেছি। যথাসময়ে ব্যবস্থা নিলে কৃষকের প্রানহানি হতো না। এ বিষয়ে অভিযুক্ত বিল ইজারাদার নাসিম ফোনে বক্তব্য দিতে রাজি হননি।


প্রকাশিত: আগস্ট ৭, ২০২২ | সময়: ৫:৫৫ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ