সিংড়ায় বজ্রপাতে নানা-নাতির মৃত্যু

সিংড়া প্রতিনিধি: নাটোরের সিংড়ায় মাছ ধরতে গিয়ে বাসায় ফিরা হলো না নানা-নাতির। বজ্রপাতে একই সাথে নানা জমির উদ্দিন শেখ (৭০) ও তার নাতি স্কুল ছাত্র পাপ্পু হোসেন (১২) বজ্রপাতে মূত্যু হয়েছে। মৃত পাপ্পু চৌগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র।
মৃত জমির উদ্দিন শেখের ছেলে শামিম হোসেন জানান, তার পিতা জমির উদ্দিন শেখ প্রতিদিনের মত বুধবার বিকেলে জাল নিয়ে মাছ ধরার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। সাথে তার আদরের নাতি পাপ্পু হোসেনকে নিয়ে যায়। তারা বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলো মিটার দুরে পশ্চিম চৌগ্রাম বিলে যায় মাছ ধরতে।
কিন্তু সন্ধ্যার পেড়িয়ে অন্ধকার হয়ে গেলেও তারা দু’জন বাড়িতে ফিরে না আসায় খোজাখুজি শুরু করে। এক পর্যায়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার চৌগ্রাম পশ্চিম বিল এলাকা থেকে নানা-নাতির মৃতদেহ পানির মধ্যে থেকে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। স্কুল ছাত্র পাপ্পু তার নানার বাড়ি চৌগ্রাম থেকে চৌগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ে লেখা পড়া করতো। তার বাবার বাড়ি পাশের ছোট চৌগ্রামে। বুধবার বিকেলে বাড়ির এক কিলোমিটার দুরে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে নানা-নাতি মারা যায়।
স্থানীয় ইউপি সদস্য গোলাম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এমএম সামিরুল ইসলাম বলেন, মৃত নানা-নাতির নাম জেলার সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। বরাদ্দ আসলে তাদের সহযোগিতা করা হবে।


প্রকাশিত: আগস্ট ৫, ২০২২ | সময়: ৫:৪৬ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর