নগরীকে ঢেলে সাজাতে সকলের সহযোগীতা চাইলেন মেয়র লিটন

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, নগরবাসীর জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে রাসিক। রাজশাহী নগরীকে আরো সুন্দর করতে সকলকে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

লিটন বলেন, নাগরিক সেবা প্রতিষ্ঠান রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন। সকল নাগরিক সুযোগ সুবিধায় অন্যান্য কাজের মধ্যে স্যাটেলাইট টাউন নির্মাণ প্রকল্প প্রণয়ন কাজ এগিয়ে চলেছে।

শনিবার দুপুরে নগর ভবনের সরিৎ দত্ত গুপ্ত সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত উন্নয়ন সমন্বয় সভায় সভাপতির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন। সভার শুরুতে বর্তমান পরিষদের ৪র্থ বছর পূর্তিতে নগরজুড়ে পরিকল্পিতভাবে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালিত হওয়ায় মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জ্ঞাপন করা হয়।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘রাজশাহী মহানগরীর সমন্বিত নগর অবকাঠামো উন্নয়ন’ প্রকল্পের আওতায় মহানগরজুড়ে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। এই প্রকল্পের বাইরেও বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করতে হয়। একাজে সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, আলেম উলামাসহ সুধীজনদের মতামত নিয়ে এ সকল কাজ করতে চাই।

সভায় জানানো হয়, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা আধুনিকায়ন প্রকল্পের ডিপিপি প্রণয়ন করা হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় গৃহহীনদের জন্য বহুতল বিশিষ্ট গৃহনির্মাণ করা হবে। কবরস্থান ও খেলার মাঠ তৈরীর জন্য জমি অধিগ্রহণ সংক্রান্ত কাজ এগিয়ে চলেছে, হযরত শাহ মখদুম রূপোশ (র:) দরগাহ শরীফের উন্নয়ন প্রকল্পে দরগা মাদ্রাসার উন্নয়ন, শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান এঁর সমাধিসৌধ নির্মাণ প্রকল্প, রাজশাহী মহানগরীর জলাশয় সংরক্ষণ ও সবুজায়ন প্রকল্প, স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য গৃহ নির্মাণ প্রকল্প, সিটি হাসপাতালসহ নগর মাতৃসদন এবং ৪টি নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র চালুকরণ, দারুচিনি মার্কেট চালুকরণ, কারিগরী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান নার্সিং কলেজ স্থাপন, আরসিসি টেকনিক্যাল ডেভেলপমেন্ট সেন্টার, এবং ভাষা শিক্ষা ইনস্টিটিউট চালুকরণ, শেখ রাসেল আইসিটি ল্যাব স্থাপন, শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও চিড়িয়াখানার উন্নয়ন, শিরোইল উদ্যান উন্নয়ন, শহীদ জিয়া শিশু পার্ক উন্নয়ন, শেখ রাসেল শিশু পার্ক উন্নয়ন, মহানগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বেঞ্চ স্থাপন, এ্যানেক্স ভবনের কক্ষ ও ফ্লোর বরাদ্দ, নগর ডিজিটাল সেন্টার স্থাপন, কন্ট্রোল এন্ড কমান্ড সেন্টার চালু করা হয়েছে।

সভায় রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল হামিদ সরকার টেকন, ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযীম, ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নুরুজ্জামান টুকু, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এবিএম শরীফ উদ্দিন, সচিব মশিউর রহমান, প্রকল্পের ইঞ্জিনিয়ারিং এডভাইজার আশরাফুল হক, প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট স্পেশালিস্ট গোলাম মুর্শেদ, প্রধান প্রকৌশলী শরিফুল ইসলাম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নূর ইসলাম তুষার, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আবু সালেহ মোঃ নূর-ঈ-সাঈদ, বাজেট কাম হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম খান, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফএএম আঞ্জুমান আরা বেগম, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মামুন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সানশাইন/৩০ জুলাই/ এমআর


প্রকাশিত: জুলাই ৩০, ২০২২ | সময়: ৮:০১ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine