সর্বশেষ সংবাদ :

সিলেটে বন্যার্তদের সাহাযার্থে কৃষি অফিসার শফিউল্লাহ সুলতান

নুরুজ্জামান,বাঘা : ইসলাম মানবতার ধর্ম । এক মুসলমান অপর মুসলমানের ভাই। মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত ও বিপদগ্রস্ত হলে তাদের পাশে দাঁড়ানো , বিপদ মুক্তির জন্য সাহায্য করা ইসলামের শিক্ষা । তাদের দুর্দিনে আর্থিক সহায়তা , খাবার-দাবার, ত্রাণ ও পুনর্বাসন এবং চিকিৎসাসেবায় এগিয়ে আসা ইমানের দাবি। নামাজ, রোজা, হজ, জাকাতের মতো অসহায়-দুর্গত মানুষদের সাহায্য করাও ইবাদত। সম্প্রতি সিলেটের বন্যার্তদের পাশে দাড়িয়েছেন অনেক দানশীল মানুষ। তাদের মধ্যে একজন বাঘা উপজেলা কৃষি অফিসার শফিউল্লাহ সুলতান।

তিনি সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় এক হাজার প্যাকেট খাবার পাঠিয়েছেন। এসব খাবারের মধ্যে রয়েছে এক কেজি চিড়া , এক কেজি মুড়ি , দুই কেজি গুড় , এক প্যাকেট বিস্কুট , পাঁচ পিস খাবার স্যালাইন , এক ডজন মোমবাতি, দুই পিস দিয়াশলাই ও এক লিটার পানি । সোমবার বিকেলে বাঘা থেকে একটি ট্রাক যোগে এক হাজার প্যাকেট খাদ্য সামগ্রী মঙ্গলবার সকালে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার সুদক্ষ নির্বাহী অফিসার সীমা শারমিনের কাছে পৌঁছে দেয়া হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সীমা শারমিন নিজে বন্যা দুর্গতদের মাঝে সেই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।

শফিউল্লাহ সুলতান বলেন, বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ এবং নদীবিধৌত সমতল ব-দ্বীপ অঞ্চল। বন্যা বাংলাদেশের জন্য অনেকটা অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে। নদীগুলো হারিয়েছে নাব্যতা, খালে বিলে সবখানে পানির ঠাঁই নেই। কারণ এ সব স্থানে রয়েছে দখলদারদের বাণিজ্যিক থাবা। অন্যদিকে হাওড় বাঁওড়ের পানির উৎস ভারতের আসাম ও মেঘালয়। সেখানে আষাঢ়ের মৌসুমে লাগাতার বৃষ্টি হলেই পাহাড়ে ঢল নামে।

আমাদের হাওড়-বাঁওড় অধ্যুষিত সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোণা তার মধ্যে অন্যতম। এ কারনে বন্যায় ডুবেছে সিলেট বিভাগের বেশিরভাগ অঞ্চল। টানা বর্ষণ আর উজান থেকে নেমে আসা ঢলে সুরমা আর কুশিয়ার কূল উপচে সিলেট আর সুনামগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। এদের পাশা দাড়ানো প্রয়োজন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সহ সমাজের সকল বিত্তবানদের।

তিনি বলেন, এ দেশের মানুষের যেকোন সংকটে সব সময় পাশে থাকা প্রতিটা মানুষের একান্ত কাম্য। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে করোনাকালীন সংকটে মানুষের পাশে ছিলাম, এভাবে আগামীতেও দেশের যেকোন সংকট ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করবো।

এদিকে বাঘা উপজেলা কৃষি অফিসার সম্পর্কে স্থানীয় লোকজন জানান, শফিউল্লাহ সুলতান একজন মানবিক অফিসার । তিনি সফলতার সাথে সরকারি সকল দায়িত্ব পালনের পাশা-পাশি সমাজের দুস্থ ও অসহায় মানুষের উন্নয়ন এবং সামাজিক নিরাপত্তা জোরদার করার লক্ষে সর্বদা সচেষ্ট। তাঁর কাছে কোন অসহায় মানুষ গেলে কখনোই খালি হাতে ফিরেন না। বিশেষ করে শিক্ষার মান উন্নয়নে তিনি সমাজের গরিব এবং মেধাবী শিক্ষার্থীদের সর্বদা আর্থিক সহায়তা দিয়ে থাকেন ।


প্রকাশিত: জুন ২৩, ২০২২ | সময়: ৯:১২ পূর্বাহ্ণ | সানশাইন