সর্বশেষ সংবাদ :

সীতাকুণ্ডের আগুনে নিহতদের পরিবার পাবে সাড়ে ১২ লাখ টাকা

সানশাইন ডেস্ক : সীতাকুণ্ডে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা করে নগদ সহায়তা প্রদান করবে বিএম কন্টেইনার ডিপো কর্তৃপক্ষ। এছাড়া যারা গুরুতর আহত হয়েছেন কিংবা অঙ্গহানির শিকার হয়েছেন তাদেরকে ৬ লাখ টাকা করে এবং অপরাপর আহতদের ৪ লাখ টাকা প্রদানের ঘোষণা দেয়া হয়েছে।
রোববার (৫ জুন) সন্ধ্যায় বিএম কন্টেইনার ডিপোর অন্যতম স্বত্ত্বাধিকারী, স্মার্ট গ্রুপের জেনারেল ম্যানেজার মেজর (অব.) শামসুল হায়দার সিদ্দিকী এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিএম কন্টেইনার ডিপোতে অনাকাক্সিক্ষত ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড এবং বিস্ফোরণে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির ঘটনায় বিএম কন্টেইনার মালিকপক্ষ গভীর দুঃখ ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। সেই সাথে দুর্ঘটনায় যারা নিহত হয়েছেন তাদের প্রত্যেকের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা করে নগদ সহায়তা প্রদান, যারা গুরুতর আহত হয়েছেন কিংবা অঙ্গহানির শিকার হয়েছেন তাদেরকে ৬ লাখ টাকা করে এবং অপরাপর আহতদের ৪ লাখ টাকা প্রদান করবেন।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দুর্ঘটনার পর থেকে ২০টি এম্বুলেন্সের মাধ্যমে আহতদেরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে কোম্পানির পক্ষ থেকে। রোগি ও তাদের আত্মীয় স্বজনের খাবার-দাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। বিনামূল্যে ওষুধের জন্য চারটি দোকানকে সার্বক্ষণিকভাবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। আহতদের রক্তদানের জন্য স্বেচ্ছাসেবকদের পাশাপাশি প্রায় ৫০০ জনকে কোম্পানির পক্ষ থেকে স্বেচ্ছায় রক্তদাতা হিসেবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রায় ২৮০ জন স্বেচ্ছায় রক্ত দিয়ে রোগীদের জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন। সেইসাথে আহতদের সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত সম্পূর্ণ চিকিৎসা সহায়তা দেবার ঘোষণা দেয়া হয় কোম্পানির পক্ষ থেকে।
বিএম কন্টেইনার মালিক পক্ষ আরো জানান, এই মর্মান্তিক অগ্নিদুর্ঘটনায় কর্মচারী নিহত হলে তাদের পরিবারে শিশু থাকলে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত তাঁর পরিবারকে বেতনের সমপরিমাণ টাকা প্রদান এবং উপার্জনক্ষম সদস্য থাকলে চাকুরির ব্যবস্থা করা হবে।
বিএম কন্টেইনার ডিপো মালিক পক্ষ বিবৃতিতে আরো বলেন, এই দুর্ঘটনার ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ ৫ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করছে। তদন্ত রিপোর্ট অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা এবং সরকার কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটিগুলোকে পূর্ণ সহায়তা দানের অঙ্গিকার ব্যক্ত করা হয় কোম্পানির পক্ষ থেকে।
এদিকে, চট্টগ্রামে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণে নিহতদের পরিবারকে আড়াই লাখ টাকা করে অর্থ সহায়তা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান। রবিবার হাসপাতালে দগ্ধ ও আহতদের পরিদর্শন শেষে গণমাধ্যম কর্মীদের তিনি এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহতদের পরিবারকে ৫০ হাজার ও আহতদের ২৫ হাজার করে টাকা দেওয়া হবে। এছাড়া শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে নিহতদের পরিবারকে দুই লাখ টাকা করে অর্থ সহায়তা দেওয়া হবে। এ সময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান জানান, দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৫ জন নিহত ও ১৬৩ জন আহত হয়েছেন।
তবে সিভিল সার্জন মো. ইলিয়াস চৌধুরী গণমাধ্যম কর্মীদের জানিয়েছেন দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৯ জন নিহত হয়েছেন। এর আগে, নিহতদের মধ্যে ১৭ জনের লাশ শনাক্তের তথ্য জানিয়েছেন পিবিআই পুলিশ পরিদর্শক মো. মনির হোসেন। তিনি বলেন, ‘প্রযুক্তির সহায়তায় লাশগুলোর পরিচয় শনাক্ত করার চেষ্টা করছি। আঙুলের ছাপের মাধ্যমে পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা চলছে। ইতোমধ্যে ১৭ জনের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে। যাদের আঙুলের ছাপ নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না তাদের ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে শনাক্ত করা হবে।’


প্রকাশিত: জুন ৬, ২০২২ | সময়: ৬:০৬ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ