সর্বশেষ সংবাদ :

বিএসপিএ’র বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ মিরাজ

স্পোর্টস ডেস্ক: ব্যাট ও বল হাতে বছর জুড়ে দারুণ পারফরম্যান্সের স্বীকৃতি পেলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ক্রীড়া সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ স্পোর্টস প্রেস অ্যাসোসিয়েশনের (বিএসপিএ) দেওয়া বর্ষসেরা ক্রিকেটারের সঙ্গে বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদের পুরস্কার জিতলেন জাতীয় দলের এই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার।
রাজধানীর একটি হোটেলে শুক্রবার জমকালো আয়োজনের মাধ্যমে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ২০২১ সালের সেরাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয় সংগঠনটি। বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ হওয়ার দৌড়ে মিরাজের সঙ্গে সংক্ষিপ্ত তালিকায় ছিলেন ফুটবলার তপু বর্মন ও আর্চার দিয়া সিদ্দিকী।
গত বছর টেস্ট ক্যারিয়ারে প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পান মিরাজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চট্টগ্রামে খেলেছিলেন ১৬৮ বলে ১০৩ রানের ইনিংস। সারা বছর লাল বলে তিনি আলো ছড়িয়েছেন বোলিংয়েও। গত বছর মিরাজ ৭ টেস্টে ১২ ইনিংস বোলিং করে নেন ২৫ উইকেট। ইনিংসে ৫ উইকেট একবার। ১২ ইনিংসে একটি করে শতক ও অর্ধশতকসহ রান করেন ৩১৯। ১১ ওয়ানডে ম্যাচে উইকেট ১৫টি।
ওয়ানডে দলে জায়গাটা নড়বড়ে হয়ে যাচ্ছিল মিরাজের। ২০২১ সালেই নিজেকে ফিরে পান তিনি নতুন করে। এই সময়ে দেশের মাটিতে যে দুটি ওয়ানডে সিরিজ বাংলাদেশ জেতে, দুটিতেই সাফল্যের গল্প লেখা হয় মিরাজের হাত ধরে। গত বছরের শুরুতে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশড করেছিল বাংলাদেশ। তিন ম্যাচে ৭ উইকেট নিয়ে মিরাজ ছিলেন সর্বাধিক উইকেট শিকারি। আর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে জেতা সিরিজে ৩ ম্যাচে ৭ উইকেট নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন মিরাজ, যা ছিল সিরিজে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।
পপুলার চয়েজ অ্যাওয়ার্ডেও মনোনিতদের সংক্ষিপ্ত তালিকায় ছিলেন মিরাজ। তবে পুরস্কারটি জিতে নিয়েছেন ফুটবলার তপু বর্মন। মিরাজ ও তপুর সঙ্গে এই পুরস্কারের লড়াইয়ে ছিলেন বর্ষসেরা নারী ক্রিকেটারের পুরস্কার পাওয়া শারমিন আক্তার সুপ্তা।
বিএসপিএ’র অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানটি পরিণত হয়েছিল সাবেক-বর্তমান ক্রিড়াবিদদের মিলন মেলায়। সাবেক ক্রিকেটারদের মধ্যে রকিবুল হাসান, গাজী আশরাফ হোসেন লিপু, হাবিবুল বাশারদের উপস্থিতি যেমন ছিল, তেমনি অনুষ্ঠান আলোকিত করেন সাবেক ফুটবলার শেখ মোহাম্মদ আসলাম, আরমান মিয়া, সাবেক হকি তারকা মামুন উর রশিদের মতো তারকারা।
অনুষ্ঠানের শুরুতে সদ্য প্রয়াত তৃণমূলের পুরস্কারজয়ী কোচ আকবর আলীর স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। অ্যাওয়ার্ড নিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকার উদ্দেশে সাতক্ষীরা থেকে রওনা দেওয়ার সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান তিনি। তারকা ফুটবলার সাবিনা খাতুন, মাশুরা পারভীন, স্প্রিন্টার শিরিন আক্তারদের মতো অসংখ্য অ্যাথলেট তৃণমূলের এই কোচের হাতেই গড়া।
ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সিনিয়র ক্রিকেট কোচ নাজমুল আবেদীন ফাহিম যেমন গান গেয়ে শোনান। বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান তানভির আহমেদ টিটোও গান পরিবেশন করেন। ১৯৬৪ সাল থেকে এই পুরস্কার দিয়ে আসছে দেশের ক্রীড়া সাংবাদিকদের সবচেয়ে পুরনো সংগঠন বিএসপিএ। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ২০২০ সালে অবশ্য পুরস্কারটি দেওয়া হয়নি।
তবে ওই বছরের শুরুতে অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ী বাংলাদেশ দলকে এদিন দেওয়া হয় বিশেষ সম্মাননা (বর্ষসেরা দল ২০২০)। পমাট ১৬টি ক্যাটাগরিতে এবার ১৯ জন বর্তমান ও সাবেক ক্রীড়াবিদ, সংগঠক ও পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করা হয়।
কুল-বিএসপিএ ক্রীড়া পুরস্কার ২০২১ পেলেন যারা- বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ: মেহেদি হাসান মিরাজ (ক্রিকেট), পপুলার চয়েজ অ্যাওয়ার্ড: তপু বর্মন (ফুটবল), বর্ষসেরা ক্রিকেটার ২০২১: মেহেদি হাসান মিরাজ, বর্ষসেরা ফুটবলার ২০২১: তপু বর্মন, বর্ষসেরা হকি খেলোয়াড় ২০২১: সোহানুর রহমান সবুজ, বর্ষসেরা আর্চার ২০২১: দিয়া সিদ্দিকী, বর্ষসেরা বডি বিল্ডার: মাকসুদা আক্তার মৌ, বর্ষসেরা কোচ: অস্কার ব্রুজন (বসুন্ধরা কিংস), বর্ষসেরা সাইক্লিষ্ট: ফয়সাল হোসেন, বর্ষসেরা নারী ক্রিকেটার: শারমিন আক্তার সুপ্তা, উদীয়মান ক্রীড়াবিদ: রিতু আক্তার (অ্যাথলেটিক্স), শরিফুল ইসলাম (ক্রিকেট), আলী কাদের হক (জিমন্যাস্টিকস), তৃণমূলের ক্রীড়াব্যক্তিত্ব ২০২১: আকবর আলী (ফুটবল কোচ, সাতক্ষীরা), মো. আমিরুজ্জামান আমির বাবু (ক্রিকেট সংগঠক, মাদারীপুর), বিশেষ সম্মাননা: আবদুল গাফফার (সাবেক ফুটবলার ও সংগঠক), বর্ষসেরা সংগঠক: সৈয়দ শাহেদ রেজা (মহাসচিব, বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন), সেরা সংগঠন: দাবা ফেডারেশন ও বর্ষসেরা পৃষ্ঠপোষক: আমরা নেটওয়ার্ক লিমিটেড।


প্রকাশিত: জুন ৪, ২০২২ | সময়: ৬:২১ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর