দুর্গাপুরে বিএনপির দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি সভা

স্টাফ রিপোর্টার, দুর্গাপুর: জিয়াউর রহমানের ৪১তম শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে রাজশাহীর দুর্গাপুরে পাল্টাপাল্টি সভা করেছে বিএনপি। সোমবার বিকেলে দুর্গাপুর ধান হাটার পাশে বিএনপির সাবেক নেতা জার্জিস হোসেন সোহেলের কার্যালয়ে জিয়াউর রহমানের শাহাদৎ বার্ষিকী পালন করেন রাজশাহী জেলা বিএনপি’র আহবায়ক আবু সাঈদ চাঁদের সমর্থিত নেতাকর্মীরা।
অপরদিকে, রাজশাহী জেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য এডভোকেট নাদিম মোস্তফার সমর্থিত নেতাকর্মীরা পালন করেন সিংগা বাজারে আনসার আলীর ভবনের ছাদে।
উপজেলা বিএনপির দুই গ্রুপের পৃথক ভাবে আয়োজন করা জিয়াউর রহমানের ৪১তম শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণ সভা ও মিলাদ মাহফিল উপলক্ষে সোমবার বিকেলে বিএনপির নেতাকর্মীদের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তবে কোনো ধরনের সহিংস ঘটনা ছাড়াই সভা শেষ করে বিএনপির উভয় পক্ষ।
জেলা বিএনপির আহব্বায়ক আবু সাঈদ চাঁদের সমর্থিত নেতাকর্মীদের আয়োজনে ডাকা সভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসার ফারুক ইমাম সুমন, উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব প্রভাষক জুবায়ের হোসেন, যুগ্ন আহব্বায়ক আয়নাল হক, সদস্য মাইনুল ইসলাম রঞ্জু, উপজেলা যুবদলের সাবেক যুগ্ন আহব্বায়ক ওমর ফারুক, জেলা যুবদলের সদস্য মাসুদ রানা মাসুম, জেলা যুবদলের সিনিয়র যুগ্ন আহ্বায়ক ফয়সাল সরকার ডিকো, পৌর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ছানোয়ার হোসেন টুটুল।
অপরদিকে, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য এডভোকেট নাদিম মোস্তফার সমর্থিত নেতাকর্মীদের আয়োজনে ডাকা দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা বিএনপির আহব্বায়ক কামরুজ্জান আয়নাল, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান মন্টু, পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি আব্দুল আজিজ মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক, উপজেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি সাবেক ও নওপাড়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আজাদ রেজাউল করিম রেজা, পানানগর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম রবিন, কিসমত গনকৈড় ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মাসুদ রানা।
এর আগে বিএনপির দুই গ্রুপের নেতারা নিজনিজ কর্মী সমর্থকদের নিয়ে দুর্গাপুর সদরে শোডাউন দেন।
এদিকে একই সময়ে বিএনপির দুই গ্রুপের ডাকা জিয়াউর রহমানের শাহাদৎ বার্ষিকী পালন করা নিয়ে নিজ দলের কর্মীদের মাঝে অসন্তোষ ছড়িয়ে পড়ে। পাশাপাশি নেতাকর্মীদের মাঝে কিছুটা উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।
বিএনপির তৃণমুল নেতাকর্মীরা জানান, দলের এই সঙ্কট মুহূর্তে নিজ দলের মধ্যে যদি লবিং-গ্রুপিংয়ের মাধ্যমে জিয়াউর রহমানের শাহাদত বার্ষিকী পালন করা হয় তা হলে এর চেয়ে দুঃখজনক আর কিছু নেই।
এ ব্যাপারে কথা বলতে চাইলে বিএনপির দুই গ্রুপের দায়িত্বশীল কোনো নেতা আনুষ্ঠানিক ভাবে বক্তব্য দিতে চাননি।


প্রকাশিত: মে ৩১, ২০২২ | সময়: ৬:৪১ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ