রাজশাহী বোর্ডে এবারও এগিয়ে মেয়েরা

স্টাফ রিপোর্টার

রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত এবারের এইচএসসি পরীক্ষাতে পাসের হার বেড়েছে। বেড়েছে জিপিএ-৫ এর সংখ্যাও। গত বছরের মতো এ বছরেও পাসের হারে ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে আছে মেয়েরা। তবে এবার জিপিএ-৫ প্রাপ্তির দিক থেকেও এগিয়ে আছে তারা।

এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৯৭ দশমিক ২৯ শতাংশ। এবার মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩২ হাজার ৮০০ জন। এর মধ্যে ছাত্রের সংখ্যা ১৪ হাজার ৪০০ জন, আর ১৮ হাজার ৪০০ জন ছাত্রী জিপিএ-৫ পেয়েছে।
আজ রোববার দুপুরে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. আরিফুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, রাজশাহী বোর্ডে এবার মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল মোট ১ লাখ ৪৭ হাজার ৪৮৪ জন শিক্ষার্থী । এর মধ্যে এক বিষয়ে অকৃতকার্য হয়েছে ৩ হাজার ৫৯৪ জন। যা অকৃতকার্য পরীক্ষার্থী শতকরা হিসাবে ২ দশমিক ৪৪।
মহামারীর মধ্যে অনেক পিছিয়ে গত বছরের ২ ডিসেম্বর ২ হাজার ৬২১টি কেন্দ্রে উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষা শুরু হয়েছিল। এতে ৯ হাজার ১৮৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৩ লাখ ৯৯ হাজার ৬৯০ শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

বিশেষ পরিস্থিতিতে এবার সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে গ্রুপভিত্তিক তিনটি বিষয়ে ছয়টি পত্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। সময় কমিয়ে আনা হয় দেড় ঘণ্টায়। পরীক্ষা না নেয়ায় বাংলা, ইংরেজির মত আবশ্যিক বিষয়গুলোর মূল্যায়ন করা হয়েছে জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে। ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় রাজশাহী বোর্ডে ৯৪ দশমিক ৭১ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৭ হাজার ৯০৯ জন। গতবার এই পাসের হার ছিল ৯০ দশমিক ৩৭ শতাংশ। গতবার জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২৬ হাজার ১৬৭ জন পরীক্ষার্থী।

গত বছরের চেয়ে এবার শতভাগ পাস করা কলেজের সংখ্যা বেড়েছে। এবার ১৬২টি কলেজ থেকে শতভাগ শিক্ষার্থী পাস করেছেন। গতকাল এই সংখ্যা ছিল ৩৪।

মেয়েদের পাসের হারে এগিয়ে থাকার ব্যাপারে জানতে চাইলে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান বলেন, মেয়েরা ছেলেদের চেয়ে একটু বেশি এগিয়ে। এর কারণ পারিবারিক শৃঙ্খলার মধ্যে তারা বড় হয়। তাদের পড়াশোনায় একাগ্রতা বেশি থাকে। ছেলেরা বাইরে বেশি সময় কাটায়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছেলেরা অনেক সময় নষ্ট করে। এ জন্য পাসের হারে তারা পিছিয়ে থাকছে বলে জানান শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ।

সানশাইন/টিএ


প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২২ | সময়: ৮:১৯ অপরাহ্ণ | সুমন শেখ