রাশিয়ার ব্যাপক সামরিক কার্যক্রম, স্যাটেলাইট ছবি প্রকাশ

ইউক্রেনের সঙ্গে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার মধ্যেই সীমান্ত এলাকায় ব্যাপক আকারে সামরিক কার্যক্রম বৃদ্ধি করেছে রাশিয়া। স্যাটেলাইটে ধারণকৃত নতুন ছবিতে প্রমাণ পাওয়া গেছে, বেলারুশ, ক্রিমিয়া এবং রাশিয়ার পশ্চিম সীমান্তের একাধিক জায়গায় সামরিক তৎপরতা জোরদার করেছে। এসব স্যাটেলাইট ছবি সংগ্রহ এবং বিশ্লেষণ করেছে মাক্সার। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, গত দুই সপ্তাহে রুশ বাহিনী বেলারুশে পৌঁছেছে। অবশ্য এ নিয়ে দু’দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে যে, বড় ধরনের সামরিক প্রশিক্ষণ মহড়ার জন্য তাদের মোতায়েন করা হয়েছে।  লিখিত নোটে মাক্সার জানিয়েছে, রাশিয়ার এমন তোড়জোড় সামরিক প্রস্তুতিকে সামনে রেখেই এগুচ্ছে। ম্যাক্সার ও অন্যান্য স্যাটেলাইট ছবি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান বলছে, তারা গত কয়েক মাস ধরেই প্রতিবেশী ইউক্রেন সীমান্তের ১৫০ মাইলের মধ্যে সেনা ঘাঁটির পাশাপাশি সামরিক প্রশিক্ষণ ক্ষেত্র ব্যাপক আকারে সম্প্রসারণের প্রমাণ পেয়েছে। তবে কিছু কিছু সীমান্তের কয়েক মাইলের মধ্যেই অবস্থান নিতে গেছে।

ম্যাক্সার বলছে, নতুন চিত্রগুলো রুশ সামরিক বাহিনীর সম্প্রসারণ আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। যা পূর্বের অবস্থানকে ছাড়িয়ে গেছে অনেকটা। ম্যাক্সারের বর্ণনা অনুযায়ী, সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে রাশিয়ার মিত্র বেলারুশে উল্লেখযোগ্য সামরিক স্থাপনাও পরিলিক্ষিত হয়েছে। বেলারুশ, ক্রিমিয়া ও পশ্চিম রাশিয়ার প্রায় প্রতিটি সামরিক স্থাপনায় সেনা তাঁবু, সেনানিবাস দেখার কথা উল্লেখ করেছে মাক্সার। আর এমন তৎপরতা থেকে বোঝা যাচ্ছে, সামরিক ইউনিটগুলোতে সেনা আছে এবং তাদের সামগ্রিক প্রস্তুতির মাত্রাও বৃদ্ধি পেয়েছে। রাশিয়ার ভোরেনেজ এলাকায় দুই সামরিক দলকে ট্যাংক, কামানসহ তাঁবুও দেখা গেছে। এ ধরনের সামরিক কার্যক্রমের ব্যাপকতা নিয়ে মস্কো বরাবরই অস্বীকার করে আসছে। তবে যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমারা সতর্ক করে আসছে, ইউক্রেনে আক্রমণ করতেই সীমান্ত এলাকায় লক্ষাধিক সেনা মোতায়েন করেছে রাশিয়া। চলমান উত্তেজনাকে ঘিরে গতকাল পূর্ব ইউরোপে আরও সেনা মোতায়েনের আনুষ্ঠানিক অনুমোদন দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।


প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২২ | সময়: ৫:১৮ অপরাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর