৩১ লাখ টাকার দেনা : অপহরণ নাটক সাজিয়ে ধরা মুদ্রা ব্যবসায়ী

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে পাওনাদারের ৩১ লাখ টাকা আত্মসাৎ এবং পরিবারের কাছ থেকে অর্থ আদায় করতে অপহরণের নাটক সাজিয়ে মিজানুর রহমান (২৬) নামের এক যুবক গ্রেপ্তার হয়েছেন। মঙ্গলবার রাতে ঢাকার গাবতলী বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল। বুধবার দুপুরে গোয়েন্দা শাখা কার্যালয়ে তাকে সাংবাদিকদের সামনে হাজির করে বিস্তারিত জানায় পুলিশ।
গ্রেপ্তার মিজানুর রহমান রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার কাজীহাটা ধরমপুর গ্রামের এমারত আলীর ছেলে। তার নগরের কাশিয়াডাঙ্গা থানার টুলটুলি পাড়ায় বসবাস করে। ‘ফরেন এক্সচেঞ্জ’ নামের বিভিন্ন দেশের মুদ্রা কেনা-বেচা কেনার প্রতিষ্ঠানের মালিক মিজানুর।
মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার আরেফিন জুয়েল বলেন, গত ১২ ডিসেম্বর বিকেলে নিখোঁজ হয় মিজানুর রহমান। ১৩ ডিসেম্বর তার মা মনিরা বেগম কাশিয়াডাঙ্গা থানায় জিডি করে। এর পরের দিন সে অপহরণের বিষয়ে পরিবারকে জানিয়ে বলে অপহরণকারিরা তার অনলাইন ব্যবসার ৭৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।
মুক্তিপণের আরও ২০ লাখ টাকা না দিলে অপহরণকারীকে তাকে মেরে ফেলবে। এ বিষয়টি পরিবারের পক্ষ থেকে সাথে সাথে পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ তার অবস্থান সনাক্ত করে ঢাকার গাবতলী বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করে।
আরেফিন জুয়েল আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাবাদে মিজানুর প্রথমে অপহরণের কথা বললেও পরে নাটক সাজানোর কথা স্বীকার করে। তিনি পুলিশকে জানায়, অনলাইন ব্যবসায় গত সাত বছরে তার ৭৮ লাখ টাকা লোকসান হয়। পুঁজি হারিয়ে ব্যবসা প্রায় বন্ধ। এ জন্য ৩১ লক্ষ টাকা ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েন।
তিন বন্ধু নয় লাখ, এক চাচার ১৫ লাখ, নানার চার লাখ এবং একটি এনজিও তিন লাখ টাকা পাবে। সম্প্রতি পাওনাদাররা চাপ সৃষ্টি করলে টাকা না দেয়া ও পরিবার থেকে অর্থ আদায়ের কৌশল হিসেবে আত্মগোপনে গিয়ে অপহরণের নাটক সাজায় এবং তার একাউন্টে ২০ লক্ষ টাকা দিতে বলেন।


প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৩, ২০২১ | সময়: ৪:৪০ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর