অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশের উন্নয়ন

স্টাফ রিপোর্টার : শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত মন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলছে, সে গতির সঙ্গে আমাদের সকলকে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। তার সে গতিকে আমরা যেন আমাদের কাজ দিয়ে আটকে না দেই। আমরা যেন তাকে বেগবান করি। তাঁর হাতকে যেন শক্তিশালী করি।
শিক্ষা মন্ত্রী রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠান ও সাংস্কৃতিক উৎসব উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
শিক্ষা মন্ত্রী বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব আমাদের দরজায় কড়া নাড়ছে। সেই চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য আমাদের তৈরি হতে হবে। এক্ষেত্রে অনেক চ্যালেঞ্জ আসবে। তাকে মোকাবিলা করার প্রস্তুতি নিতে হবে। সেটির সময় কিন্তু এখনই। উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে তাদের প্রথাগত যে শিক্ষা পদ্ধতি রয়েছে, তা থেকে একটু সরে এসে এই নতুন কিছুকে আলিঙ্গন করতে হবে। তাকে নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার মতো খোলা মন নিয়ে কাজ করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, শিক্ষার্থীদেরকে চাকরী পাওয়ার উপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে। আমরা শিক্ষিত বেকার ও সনদধারী বেকার তৈরী করতে চাই না, দক্ষ মানব সম্পদ তৈরী করতে চাই। শিক্ষার্থীদের জ্ঞানে, বিজ্ঞানে ও প্রযুক্তিতে এবং মানবীয় গুণাবলী তৈরী করতে হবে। শিক্ষার্থীদের চাহিদাকে মাথায় রেখে আমাদের কাজ করতে হবে।
মন্ত্রী বলেন, আমরা যেন গবেষণায় এগিয়ে যেতে পারি সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। প্রয়োজনে বরাদ্দ বাড়ানো যাবে।
এর আগে মন্ত্রী চার জাতীয় নেতার অন্যতম শহিদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান এর সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও দোয়া মোনাজাতে অংশগ্রহন করেন। এরপর তিনি রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং শহিদ জোহার সমাধিত ও উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক হাসান আজিজুলের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর তিনি রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ে দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।
রাবি উপাচার্য প্রফেসর গোলাম সাব্বির সাত্তারের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন ও রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য মো. আয়েন উদ্দিন ও সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য আদিবা আঞ্জুম মিতা। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাবি উপ-উপাচার্যদ্বয় প্রফেসর চৌধুরী মো. জাকারিয়া ও প্রফেসর মো. সুলতান-উল-ইসলাম এবং স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন প্রফেসর মলয় ভৌমিক। সেখানে ‘জাতির পিতার রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও কর্মময় জীবন’ শীর্ষক আলোচনায় মুখ্য আলোচক ছিলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মশিউর রহমান।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ৩-৫ ও ১১-১৪ ডিসেম্বর ৭ দিনব্যাপী সাংস্কৃতিক উৎসব আজ শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে।
জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন এবং বেলুন-ফেস্টুন উড়িয়ে এই উৎসব উদ্বোধনের কার্যক্রম শুরু হয়। এসময় সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশিত হয়। এরপর স্কুলের শিক্ষার্থীরা নৃত্য-গীত পরিবেশন করে। উপাচার্য অতিথিবৃন্দকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান এবং স্মারক উত্তরীয় পরিয়ে দেন।
শিক্ষামন্ত্রী বিকেলে রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবেধে বিশ^াসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।


প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৪, ২০২১ | সময়: ৬:৩১ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর