Daily Sunshine

বিশাল অঙ্কের আর্থিক ক্ষতির শঙ্কায় ক্রিকেটাররা

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: করোনার প্রাদুর্ভাবে গৃহবন্দি হয়ে আছেন তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা। ঘরে ট্রেডমিল রাখার সুবিধা এখন ভোগ করতে পারছেন তিনজনই। নির্দিষ্ট সময় মেনে ফিটনেস ঠিক রাখতে নিয়মিত রানিং করছেন প্রত্যেকেই।
এই মুহূর্তে বাইরে বের হওয়ার সুযোগ নেই। অপ্রয়োজনে তাঁরা কেউই বাইরে বের হচ্ছেন না। কিন্তু এমন জীবন আর কতদিন? সেই প্রশ্ন প্রত্যেকেরই! পাশাপাশি চিন্তায় চলে আসছে আর্থিক দিকটিও। বিশেষ করে ঢাকা লিগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কপালে পড়েছে চিন্তার ভাঁজ। শুধু নিজেদের জন্য নয়, ঢাকা লিগে অংশগ্রহণ করা জাতীয় দলের বাইরের ক্রিকেটারদের জন্য চিন্তাটা বেশি।
মাহমুদউল্লাহর কণ্ঠে শঙ্কার সুর, ‘এমন অনেক ক্রিকেটার আছে যাদের আর্থিক অবস্থা ভালো না। ঢাকা লিগ খেলে অনেকেই জীবিকা নির্বাহ করে। তাদের জন্য ঢাকা লিগ একমাত্র পথ।’ ঢাকা লিগ শুরু হয়েছিল গত ১৫ মার্চ। প্রথম রাউন্ডের পর বন্ধ হয় লিগের খেলা। সামনের দিনগুলো আরও কঠিন। এ সময়ে খেলার চিন্তা আসছে না কোনোভাবেই। কিন্তু ভেতরের শঙ্কা তো দূর হচ্ছে না কোনোভাবেই।
ঢাকা লিগে এমন অনেক ক্রিকেটারই খেলেন যারা প্রথম শ্রেণির ঘরোয়া ক্রিকেটে সুযোগ পান না। তাদের জন্য লিগ ছিল অনেক গুরুত্বপূর্ণ। মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘অনেক ক্রিকেটার আছে যারা লাল বলে অনিয়মিত। সাদা বলের ক্রিকেট হলে তারা আবার ডাক পান। তাদের জন্য লিগটা গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এখানে ভালো না খেললে আবার বিপিএলেও তাদের প্রতি আগ্রহ থাকে না। এজন্য ঢাকা লিগের পরিধিটা বিস্তৃত।’
লিগ হবে কিনা এমন শঙ্কা ঢুকে গেছে ক্রিকেটারদের মনেও। ঘরোয়া ক্রিকেটের নিয়মিত মুখ আব্দুর রাজ্জাক যেমন বললেন, ‘লিগ কি আসলেও হবে কিনা সেটা নিয়েই তো দ্বিধায় আছি। যেভাবে পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে। চারিদিকে শুধু লকডাউন। আবার পরিস্থিতি ঠিক হওয়ার পরও তো সময় দিতে হবে। হুট করেই তো সব শুরু করা যাবে না।’
ক্রিকেটাররা ধরে নিয়েছেন অন্তত মাসখানেক লাগবে লিগ শুরু হতে। যদি এপ্রিলের শেষ দিকে কিংবা মে মাসের প্রথম সপ্তাহে লিগ শুরু করা যায় তাহলে ভালোমতো লিগ শেষ হতে পারে। অবশ্য মাঝে রমজান, ঈদ, বৃষ্টি কতো কিছু নিয়েই তো চিন্তা করতে হবে আয়োজকদের।
ঢাকা লিগের আয়োজক সিসিডিএমের সমন্বয়ক আমিন খান বলেছেন, ‘ঢাকা লিগ জমজমাট এ কারণে যে, এখানে ক্রিকেটারদের ফোকাস বেশি থাকে। জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা খেলে। চাপ বেশি থাকে। ক্লাবের মর্যাদার বিষয়ও থাকে। আমরা চাই লিগ ঠিকঠাক মতো হোক। প্রয়োজনে আগামী মৌসুমের এক মাস যদি আমরা নিতে পারি তাহলে লিগ শেষ করা সম্ভব।’ ক্রিকেটাররা চান মাঠে ফিরতে। কিন্তু মাঠে ফেরার আগেই সবার চাওয়া করোনা থেকে মুক্তি। সৃষ্টিকর্তার কাছে তাদের এই একটাই প্রার্থনা।

মার্চ ২৬
০৪:২৯ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

ডাবেই সচল বাচ্চুর জীবিকার চাকা

ডাবেই সচল বাচ্চুর জীবিকার চাকা

রোজিনা সুলতানা রোজি : সকাল থেকে রাত অবধি ডাবের সঙ্গেই সচল তার জীবিকার চাকা। প্রায় গত ৮ বছরের বেশী সময় ধরে সড়কের পাশে ফুটপাতে ডাব বিক্রি করে এক সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে তার সংসার ভালোই চলছে। ক’দিন আগেও প্রতিদিন ডাব বিক্রি করে প্রতিদিন ৬ থেকে সাতশ টাকা আয় হয়েছে তার।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সেই ফয়সালকে রিমান্ডে চায় দুদক

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সেই ফয়সালকে রিমান্ডে চায় দুদক

স্টাফ রিপোর্টার : তিন কোটি ৪৫ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের রাজশাহী শাখার কর্মকর্তা এফএম শামসুল ইসলাম ফয়সালকে সাত দিনের রিমান্ডে চায় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আদালতে তার এই রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে। আগামী ১ মার্চ রিমান্ড আবেদনের শুনানি হবে। এর আগে গত ১২ ফেব্রুয়ারি এফএম শামসুল ইসলাম

বিস্তারিত