Daily Sunshine

নওগাঁয় অপহরণের শিকার শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ

Share

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর মহাদেবপুরে প্রথম বার্ষিক পরীক্ষা দেয়ার জন্য বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথ থেকে নবম শ্রেনীর পরীক্ষার্থীকে প্রকাশ্য-দিবালোকে অপহরন করে নিয়ে যাওয়ার পর আড়াই মাস পেড়িয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত অপহরনের শিকার শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করতে পারে নি পুলিশ।
উল্টো অপহরণকারীদের পক্ষ নিয়ে অপহরনের শিকার (নাবালিকা) নবম শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়েকে অপহরনকারীর সাথে বিয়ে মেনে নেওয়ার জন্য শিক্ষার্থীর পরিবারকে চাপ দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অপহৃতার পরিবার। এদিকে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তার ভূমিকা, অপরদিকে অপহরনকারীর সহযোগীরা ঘটনার পরের দিন মিষ্টি বিতরন করে আনন্দ উল্লাস প্রকাশ করায় দূঃচিন্তা ও আতঙ্কের মধ্যেদিয়ে দূর্বীসহ জীবন-যাপন করছেন অপহৃতা শিক্ষার্থীর দরিদ্র পরিবার।
অপহৃতার পিতা নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার ভীমপুর ইউনিয়নের তেজপাইন গ্রামের সুরেশ চন্দ্র মন্ডল ও মাতা মলিনা রানী মন্ডল জানান, আমার নাবালিকা মেয়ে কুমারী লাবনী মন্ডল (১৪) পাশ্ববর্তী রসুলপুর উচ্চ-বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতেন। বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসার পথে একই গ্রামের বৈদ্যনাথ হাওলাদারের পড়ুয়া লম্পট ছেলে মোহন চন্দ্র হাওলাদার (২২) ও তার সহযোগীরা বিভিন্ন ভাবে প্রেমের প্রস্তাবসহ অশ্লিল মন্তব্য করায় এক পর্যায়ে মেয়েটি সম্পূর্ণ ভাবে ভেঙ্গে পড়ে এবং ঘটনাটি এসে বাড়িতে জানালে, আমরা প্রাথমিক ভাবে ছেলেটি ও তার পরিবারের লোকজনকে জানিয়ে এমন আচরন করতে নিষেধ করে। এরপর মোহন চন্দ্র হাওলাদার ও তার সহযোগীরা আরও বেপরোয়া হয়ে আমার মেয়েকে বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসাকালে ফের হুমকি-ধামকি দিতে থাকলে আমার মেয়েটি বেশ কিছুদিন বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ রাখি।
গত ২৭ নভেম্বর বুধবার বার্ষিক পরিক্ষার প্রথমদিন সকালে পরিক্ষা দেয়ার জন্য আমার মেয়ে কুমারী লাবনী মন্ডল ও তার সহপাঠি কুমারী পাপিয়া মন্ডল, কুমারী হাসি মন্ডল একসাথে বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে বটতলি নামক স্থানে পৌছালে, এসময় পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ঘটনাস্থল থেকে সজল প্রমানিক (২২), সবুজ হাওলাদার (২৩) ও টুটুল হাওলাদার (১৭) এর সহযোগীতায় পাকুরিয়া গ্রামের বিপ্লব হোসেন নামের এক যুবকের মোটর-বাইকে লাবনী মন্ডলকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায় মোহন চন্দ্র হাওলাদার।
এরপর নিরুপায় হয়ে আমরা বাবা ও মাসহ প্রতিবেশী স্বজনরা দিনভর অনেক খোঁজাখুজি করে না পেয়ে ঘটনার দিনগত সন্ধায় মহাদেবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করি এবং ওই সময়ই নওহাটা মোড় পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই ফরিদ ঘটনাস্থল পরিদর্শনও করেন।
এ বিষয়ে মহাদেবপুর থানার ওসি নজরুল ইসলাম জুয়েল জানান, যতদ্রুত সম্ভব অপহরণের শিকার শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করাসহ জড়িতদের গ্রেফতার করার জন্য ইতমধ্যেই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

ফেব্রুয়ারি ১৯
০৫:০৮ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

ডাবেই সচল বাচ্চুর জীবিকার চাকা

ডাবেই সচল বাচ্চুর জীবিকার চাকা

রোজিনা সুলতানা রোজি : সকাল থেকে রাত অবধি ডাবের সঙ্গেই সচল তার জীবিকার চাকা। প্রায় গত ৮ বছরের বেশী সময় ধরে সড়কের পাশে ফুটপাতে ডাব বিক্রি করে এক সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে তার সংসার ভালোই চলছে। ক’দিন আগেও প্রতিদিন ডাব বিক্রি করে প্রতিদিন ৬ থেকে সাতশ টাকা আয় হয়েছে তার।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সেই ফয়সালকে রিমান্ডে চায় দুদক

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সেই ফয়সালকে রিমান্ডে চায় দুদক

স্টাফ রিপোর্টার : তিন কোটি ৪৫ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের রাজশাহী শাখার কর্মকর্তা এফএম শামসুল ইসলাম ফয়সালকে সাত দিনের রিমান্ডে চায় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আদালতে তার এই রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে। আগামী ১ মার্চ রিমান্ড আবেদনের শুনানি হবে। এর আগে গত ১২ ফেব্রুয়ারি এফএম শামসুল ইসলাম

বিস্তারিত