Daily Sunshine

উৎপাদনে ঝুঁকি, পছন্দসই বোরো বীজের জন্য বাজারে ছুটছে কৃষক

Share

আসাদুজ্জামান মিঠু: কৃষি কাজে নতুন নতুন পদ্ধতি আসছে। যন্ত্র দিয়েই চাষাবাদ থেকে শুরু করে কাটা-মাড়াই এবং ঘরে উঠা পর্যন্ত সুবিধা পাচ্ছেন কৃষকরা। সময় ও দাম কম লাগে অনেক। সময় কম লাগলেও অনেক কৃষক এমন সুবিধা পেয়ে ইতমধ্যে পরনির্ভরশীল হয়ে পড়েছে।
যন্ত্রের ব্যবহার যতই বাড়ছে ততই যান্ত্রিক হয়ে পড়ছে কৃষকরা। এতোদিন কৃষক নিজেরাই বীজতলা তৈরি করে চারা তৈরি করতেন এখন সেটাও যেন করতে চাইছে না বেশির ভাগ কৃষক। ফলে বাজারে আসা রেডিমেট বোরো চারার দিকে ঝুঁকছেন কৃষকেরা।
বরেন্দ্র অঞ্চলের হাট-বাজারে চলতি বোরো মৌসুমের শুরু থেকে জমে উঠেছে ধানের চারার হাট। কৃষকেরা শুধু বোরো ধানের জমি রোপনের চাষযোগ্য করে প্রস্তুত করেই চলে আসছে বাজারের চারার হাটে। পরিমাণ মত যার যার মত বোরো চারা ক্রয় করে রোপন করছেন তারা। ঝামেলা ও সময় কম লাগলেও খরচ পড়ছে বেশি।
রাজশাহীসহ বরেন্দ্র অঞ্চলে প্রতিটি জেলার উপজেলা বিভিন্ন বাজারে এ মৌসুমে রোপা বোরো, চারার হাট বসে প্রতিদিন। বোরো চাষের মৌসুমে পৌষ মাসের শেষ সপ্তাহে শুরু হয় এবং তা ফাল্গুনের শেষ সপ্তাহ পর্যন্ত চলে এ হাট।
রাজশাহী কৃষি সম্প্রাসরণ আঞ্চলিক অফিসের তথ্য অনুযায়ী, চলতি মৌসুমে রাজশাহী অঞ্চলে বোরো চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে তিন লক্ষ ৭০ হাজার ৯৬৮ হেক্টর জমিতে।
এর মধ্যে রাজশাহী জেলায়, ৬৭ হাজার ৪১১ হেক্টর, নওগাঁ জেলায় এক লাখ ৯৮ হাজার ৪৬২ হেক্টর, নাটোর জেলায়, ৫৬ হাজার ৩৬০ হেক্টর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় হবে ৪৬ হাজার ৭৩৫ হেক্টর জমিতে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী, কাকন হাট, দামকুড়া, তানোর, মুণ্ডুমালা, কালিগঞ্জ, তালান্দ মান্দার চৌবাড়িয়া চাঁপাই জেলার আমনুরা ছিমলতলা কিছু অংশের ধান চাষীরা এখান থেকে বীজতলা কিনে নিয়ে তাদের জমিতে রোপন করে থাকেন। প্রতিদিন ভোর থেকে এ হাটে ক্রেতাবিক্রেতাদের সমাগম ঘটে।
রবিবার বিকালে রাজশাহীর তানোর উপজেলার মুণ্ডুমালা বাজারে বোরো বীজের চারার ক্রয় করতে এসেছিলেন পাঁচন্দর গ্রামের কৃষক বুলবুল। সেখানেই কথা হয় তার সাথে। কৃষক বুলবুল জানান, তিনি এবার ৭ বিঘা জমিতে বোরো রোপন করবেন। জমি প্রস্তুত করে চারা কেনতে এসেছেন। প্রতি পণ চারা ৩৮০ টাকা করে কিনেছেন। তার এক বিঘা জমিতে চার পণ চারা লাগবে।
তিনি আরো বলেন, বীজতলা করে চারা বোপন করা অনেক কষ্টের তাই বাজারের চারা উপর তিনি নির্ভরতাই বোরো চাষ করেন।
শুধু তানোরের কৃষক বুলবুল একাই নয়, বাজারের বোরো চারার উপর এমন নির্ভরতা যেন পুরো বরেন্দ্র অঞ্চলের কৃষক হয়ে পড়েছে।
রাজশাহীর তানোর উপজেলার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সমশের আলী বলেন, বর্তমান সময়ে জমিতে কাজ করার শ্রমিক সংকট থাকায় চাষীরা হাট থেকে তৈরি করা চারা কিনে নিয়ে তাদের জমিতে আবাদ করে থাকেন। এতে ওই চাষীর সময় অর্থ দুটোই সাশ্রয় হয়। তাই দিনে দিনে জেলার চাষীরা তৈরি করা চারা দিকে ঝুঁকছেন বলেও মন্তব্য করেন ওই কর্মকর্তা।

ফেব্রুয়ারি ১৭
০৪:৫৬ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

ডাবেই সচল বাচ্চুর জীবিকার চাকা

ডাবেই সচল বাচ্চুর জীবিকার চাকা

রোজিনা সুলতানা রোজি : সকাল থেকে রাত অবধি ডাবের সঙ্গেই সচল তার জীবিকার চাকা। প্রায় গত ৮ বছরের বেশী সময় ধরে সড়কের পাশে ফুটপাতে ডাব বিক্রি করে এক সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে তার সংসার ভালোই চলছে। ক’দিন আগেও প্রতিদিন ডাব বিক্রি করে প্রতিদিন ৬ থেকে সাতশ টাকা আয় হয়েছে তার।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সেই ফয়সালকে রিমান্ডে চায় দুদক

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সেই ফয়সালকে রিমান্ডে চায় দুদক

স্টাফ রিপোর্টার : তিন কোটি ৪৫ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের রাজশাহী শাখার কর্মকর্তা এফএম শামসুল ইসলাম ফয়সালকে সাত দিনের রিমান্ডে চায় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আদালতে তার এই রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে। আগামী ১ মার্চ রিমান্ড আবেদনের শুনানি হবে। এর আগে গত ১২ ফেব্রুয়ারি এফএম শামসুল ইসলাম

বিস্তারিত