Daily Sunshine

হতাশ তরুণ-তরুণীরা : একটি গোলাপ ১৫০ টাকা!

Share

রোজিনা সুলতানা রোজি : বসন্ত বরণ কিংবা ভালোবাসা। গোলাপ না হলে কি চলে…? নিজের কিছু থাক বা না থাক, প্রিয়জনকে একটি গোলাপ না দিলে যেন ভালোবাসা অপূর্ণই থেকে যায়। তাই তো প্রিয় মানুষকে খুশি করতে এবং ভালোবাসায় ভিন্ন মাত্রা যোগ করতে তরুণ-তরুণীদের ছুটাছুটি ফুলের দোকানগুলোতে।

কিন্তু দশ বা বিশ টাকার একটি গোলাপের দাম যদি হঠৎ করে হয় ১৫০ টাকা, তাহলে কাঙ্খিত মনের মানুষকে খুশি করার জন্য হিমশিম খেতে হয়। আর এমনটাই ঘটেছে রাজশাহী নগরীর ফুলের দোকানে। এছাড়াও পদ্মা নদীর চর এলাকায় ফাল্গুন কিংবা ভালোবাসার দিনকে কেন্দ্র করে ভাসমান ফুলের দোকানগুলোতে গোলাপের দাম আকাশছোঁয়া। এক সপ্তাহ আগে যে গোলাপের দাম ছিলো সর্বোচ্চ ১০ থেকে ২০ টাকা। অথচ শুক্রবার সুযোগ বুঝে সেই ফুলের দাম হাকা হয়েছে ১৫০ টাকা পর্যন্ত। এতে চরম হতাশ ক্রেতারা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ফুলের দোকানগুলোতে উপচে পড়া ভিড়। সেখানে আকার ও মান ভেদে দামের পার্থক্য লক্ষনীয় । কোন গোলাপ ৫০ থেকে ৮০ টাকা আবার কোন কোন দোকানে এক একটি গোলাপ ১০০ থেকে ১৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ফুলের দাম বেশি হলেও ভালোবাসার দিনে গোলাপের চাহিদা কমেনি এতটুকুও।

দাম সাধ্যের মধ্যে না থাকলেও তরুন-তরুণী এবং বিভিন্ন বয়সী মানুষ একটি গোলাপ কিনতে কার্পণ্য করেন নি। কিন্তু প্রিয় মানুষটির কাছে একটি গোলাপ এগিয়ে দিয়ে ভালোবাসার জানান দিয়ে ঠোটে মুক্তঝরা হাঁসি দেখালেও মনে মনে ঠিকই ব্যথিত হয়েছেন। মনের মাঝে কিঞ্চিত পরিমান হলেও কষ্ট পেয়েছেন এই গোলাপপ্রেমীরা। পদ্মা নদীর চর এলাকায় ভাসমান ফুলের দোকানগুলোতে গোলাপের মানের কোন পার্থক্য নেই। গোলাপ মানেই ১০০ এবং ১৫০ টাকা। এতে ফুলের দাম নিয়ে দর্শনার্থী ক্রেতারা মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

তারা বলছেন, হঠাৎ করে গোলাপের দাম এতোটা বেড়ে যাবে এটা সত্যিই দুঃখের বিষয়। কেননা, এই ভালোবাসার দিনে সবাই আশা করে তাদের মনের মানুষের হাতে একটি গোলাপ তুলে দিতে। কিন্তু তাতে যদি দামের এই অবস্থা হয় তাহলে তা চিন্তার বিষয়ই বটে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, গোলাপের দাম বেশি হওয়ায় বেচা-বিক্রি কিছুটা হলেও খারাপ হয়েছে। তাতে তাদের কিছুই করার নেই বলে জানান তারা।

রাজশাহী পুষ্প ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি এবং রোজ পুষ্প বিতানের মালিক আবুল কাশেম জানান, তারা যেখান থেকে ফুল সংগ্রহ করেন সেখানেই গোলাপের দাম বেশি নিয়েছে। তাই হয়তো কিছু কিছু ব্যবসায়ী বেশি লাভের আশায় একটি গোলাপ ১০০ থেকে ১৫০ টাকায় বিক্রি করছেন। গোলাপের দাম বেশি হওয়ায় এবার বসন্ত এবং ভালোবাসার এই দিনে বেচা-বিক্রি একটু খারাপই হয়েছে। তবে সকল ব্যবসায়ীরা এ ভাবে চড়া দামে গোলাপ বিক্রি করেন নি বলেও জানান তিনি।

ফেব্রুয়ারি ১৫
০৪:৪৬ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

ডাবেই সচল বাচ্চুর জীবিকার চাকা

ডাবেই সচল বাচ্চুর জীবিকার চাকা

রোজিনা সুলতানা রোজি : সকাল থেকে রাত অবধি ডাবের সঙ্গেই সচল তার জীবিকার চাকা। প্রায় গত ৮ বছরের বেশী সময় ধরে সড়কের পাশে ফুটপাতে ডাব বিক্রি করে এক সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে তার সংসার ভালোই চলছে। ক’দিন আগেও প্রতিদিন ডাব বিক্রি করে প্রতিদিন ৬ থেকে সাতশ টাকা আয় হয়েছে তার।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সেই ফয়সালকে রিমান্ডে চায় দুদক

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সেই ফয়সালকে রিমান্ডে চায় দুদক

স্টাফ রিপোর্টার : তিন কোটি ৪৫ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের রাজশাহী শাখার কর্মকর্তা এফএম শামসুল ইসলাম ফয়সালকে সাত দিনের রিমান্ডে চায় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আদালতে তার এই রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে। আগামী ১ মার্চ রিমান্ড আবেদনের শুনানি হবে। এর আগে গত ১২ ফেব্রুয়ারি এফএম শামসুল ইসলাম

বিস্তারিত