Daily Sunshine

ভালবাসা ও বসন্তে স্থির রাজশাহীর বাজার

Share

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীবাসীর জন্য যেন এক উপহার ছিল ভালবাসা দিবসে। বাঙালীর মনে দোলা দেয়া বসন্ত ঋতু ও ভালবাসা দিবসে মোটামুটি স্থির ছিল রাজশাহীর কাঁচাবাজার। যেন বসন্তে ভালবাসায় মোড়ানো উপহার। এছাড়াও কেজিতে ১০ টাকা কমেছে পেঁয়াজের দাম।
গতকাল শুক্রবার দাম কমে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৯০ টাকা দরে। এছাড়াও শীতের শুরু থেকেই চড়া দামে বিক্রি হওয়া সবজির দাম গত শুক্রবারের মতই স্থির ছিল। ভালবাসা দিবসে দাম বাড়ার শঙ্কা ছিল সবার মনে। তবে সেই শঙ্কা কেটে গেছে বাসন্তি রঙে। এদিকে, দাম না বাড়লেও সবজির সামগ্রিক দামে খুশি নন ক্রেতারা।
বাজারে কাঁচা মরিচ ৬০ টাকা, বেগুণ ৪০ টাকা, লাউ ৩৫-৪০ টাকা পিস, শিম ৪০ টাকা, ফুলকপি কেজি ১০ টাকা বেড়ে ২৫ টাকা, বাঁধাকপি ১৫ টাকা, আলু ১৫ টাকা, করলা ১০০ টাকা, পেঁপে ২০ টাকা, কলা ২০ টাকা হালি, কচুর লতি ৩০ টাকা, পেঁয়াজের লতি ১০ আঁটি, গাজর ২৫ টাকা, টমেটো প্রকারভেদে ২০-৩০-৪০ টাকা, শসা ৩৫-৪০ টাকা ও মিষ্টি কুমড়া ২৫ টাকা, ব্রো-কলি ২০-২৫ টাকা ও দাম বৃদ্ধি পেয়ে মুলা ২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। এছাড়াও লাল শাক, সবুজ শাক, কলমি শাকসহ প্রায় সবধরনের শাক বিক্রি হয়েছে ১৫-২০ টাকা দরে।
অন্যদিকে, রসুন ১৮০-২০০ টাকা, আদা ১৩০-১৪০ টাকা, প্রতিহালি সাদা ডিম ২৮ টাকা ও লাল ডিম ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। এছাড়াও ভোজ্য তেলের মধ্যে খোলা সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ৯০ টাকা ও বোতলজাত তেল ১০০ টাকার মধ্যে বিক্রি হয়েছে।
মাছের বাজারে রকমভেদে দাম উঠানামা করতে দেখা গেছে। বাজারে ওজনভেদে ইলিশ ৪০০-৬০০-৮০০ টাকা, রুই ১৮০-২০০ টাকা, মৃগেল ১৩০-১৪০ টাকা, আইকড় ২৪০ টাকা, শিং ৬৫০ টাকা, বাটা ২০০ টাকা, কালবাউস ২৪০ টাকা, ট্যাংরা ৩৫০-৪০০ টাকা, সিলভার কার্প রকমভেদে ১২০-২০০ টাকা, পাঙ্গাশ ১২০-১৩০ টাকা, চিংড়ি ও গলদা চিংড়ি ৫৫০-৭০০ টাকা, পাবদা ৪০০-৪৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। এছাড়াও কাতল রকমভেদে ২৬০-৩৫০ টাকা, তেলাপুয়া ১৩০-১৪০ টাকা, কৈ ১৪০ টাকা, শিং ৪০০ টাকা ও বোয়াল ওজনভেদে ৪৫০-১০০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়েছে।
এদিকে, সকল ধরনের মাংসের দাম অপরিবর্তিত থাকলেও বেড়েছে ব্রয়লার মুরগির দাম। দাম বেড়ে প্রতিকেজি ব্রয়লার বিক্রি হয়েছে ১২০ থেকে ১২৫ টাকা দরে। গরুর মাংস ৫২০-৫৫০ টাকা, খাঁশি ৭০০-৭৫০ টাকা, হাঁস ২৭০ টাকা, সাদা লেয়ার ১৬০ টাকা, সোনালী মুরগি ১৮০ টাকা ও দেশি মুরগি ৩৪০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে।
চালের বাজারে প্রতিকেজি মিনিকেট ৫০ টাকা, আটাশ ৪০-৪২-৪৫ টাকা, জিরাশাল ৪৫-৫০ টাকা, বাসমতি ৫৫-৬০ টাকা, কাটারিভোগ সিদ্ধ ৭৫ টাকা, মিনিকেট ৫০-৫৫ টাকা, বাসমতি ৫৫-৬০ টাকা, পায়জাম ৬০ টাকা, কালোজিরা ৮৫ টাকা, স্বর্ণা ৩০-৩৫ টাকা, কালজিরা পোলাও ৮০-৯০ টাকা ও চিনিগুড়া আতপ ৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে।

ফেব্রুয়ারি ১৫
০৪:৩৮ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

ডাবেই সচল বাচ্চুর জীবিকার চাকা

ডাবেই সচল বাচ্চুর জীবিকার চাকা

রোজিনা সুলতানা রোজি : সকাল থেকে রাত অবধি ডাবের সঙ্গেই সচল তার জীবিকার চাকা। প্রায় গত ৮ বছরের বেশী সময় ধরে সড়কের পাশে ফুটপাতে ডাব বিক্রি করে এক সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে তার সংসার ভালোই চলছে। ক’দিন আগেও প্রতিদিন ডাব বিক্রি করে প্রতিদিন ৬ থেকে সাতশ টাকা আয় হয়েছে তার।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সেই ফয়সালকে রিমান্ডে চায় দুদক

প্রিমিয়ার ব্যাংকের সেই ফয়সালকে রিমান্ডে চায় দুদক

স্টাফ রিপোর্টার : তিন কোটি ৪৫ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের রাজশাহী শাখার কর্মকর্তা এফএম শামসুল ইসলাম ফয়সালকে সাত দিনের রিমান্ডে চায় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আদালতে তার এই রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে। আগামী ১ মার্চ রিমান্ড আবেদনের শুনানি হবে। এর আগে গত ১২ ফেব্রুয়ারি এফএম শামসুল ইসলাম

বিস্তারিত