Daily Sunshine

ভালোবাসার দিনে এলো বসন্ত

Share

আজ পহেলা ফাল্গুন
রোজিনা সুলতানা রোজি : বসন্ত এসে গেছে…। হ্যা, প্রকৃতিও আজ দক্ষিণা দুয়ার খুলে দিয়েছে। সে দুয়ারে বইছে ফাগুনের হাওয়া। বসন্তের আগমনে কোকিলও মধুর সুরে গাইছে গান। ভ্রমরও গুনগুনিয়ে গানের তালে ফুলে ফুলে শুরু করেছে খেলা। গাছে গাছে উঁকি দিয়েছে পলাশ আর শিমুলের আভা। কারন আজ শুক্রবার পহেলা ফাল্গুন। ফাল্গুনের হাত ধরেই ঋতুরাজ বসন্তের আগমন।
এ দিকে প্রকৃতিও আগুনরাঙা ভালোবাসার রঙে নিজেকে রাঙিয়ে নিয়েছে। বাহারি প্রজাপতি হরেক রকম ফুলের ঘ্রাণে মেতে উঠেছে ভালোবাসার খেলায়। একদিকে বাসন্তি রঙ, অন্য দিকে ভালোবাসার রঙের জোয়ারে প্রকৃতি আজ প্লাবিত। বাসন্তি ফাগুণের আমন্ত্রনে আজ উপস্থিত ভালোবাসা। কারন, একই দিনে আজ বসন্ত বরণ এবং ভালোবাসা।
চারিদিকে তাই ভালোবাসার অবগাহন। যেন প্রতিটি হৃদয়ে ভালোবাসা ছোঁয়ায় রাঙিয়ে দিতে রকমারী রঙ নিয়ে এসেছে ঋতুরাজ। ভালোবাসার রঙে ঋতুরাজকে স্বাগত জানাতেই প্রকৃতির আজ এতো বর্ণিল সাজ সেজেছে। বসন্তের এই আগমনে প্রকৃতির সাথে তরুণ হৃদয়েও লেগেছে ভালোবাসার দোলা। সকল কুসংস্কারকে পেছনে ফেলে, বিদাভেদ ভুলে, নতুন কিছুর প্রত্যয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার বার্তা নিয়ে বসন্তের উপস্থিতি। সঙ্গে ভালোবাসা দিবসের আমেজ চারিদিকে। তাইতো কবির ভাষায় আজ ভালোবাসার সঙ্গে মিলে মিশে গাইছে মধুরও বসন্ত এসেছে।
ফাগুনের মাতাল হাওয়া দোলা দিয়েছে বাংলার নিস্বর্গ প্রকৃতিতে। নতুন রূপে প্রকৃতিকে সাজিয়েছে ঋতুরাজ বসন্ত। ফুলেল বসন্ত, মধুময় বসন্ত, যৌবনের উদ্দামতা বয়ে আনার বসন্ত আর আনন্দ, উচ্ছ্বাস ও উদ্বেলতায় মন-প্রাণ কেড়ে নেওয়ার আজ প্রথম দিন।
শীতের খোলসে ঢুকে থাকা শিমুল পলাশের রঙ ছড়িয়েছে গাছে গাছে। অলৌকিক স্পর্শে জেগে উঠেছে পাপড়ি। মৃদুমন্দা বাতাসে ভেসে আসা ফুলের গন্ধে বসন্ত জানিয়ে দিচ্ছে, সত্যি সত্যি সে ঋতুর রাজা। লাল আর হলুদের বাসন্তী রঙে প্রকৃতির সাথে নিজেদের সাজিয়ে আজ বসন্তের উচ্ছলতা ও উন্মাদনায় ভাসবে বাঙালি।বসন্ত অনেক ফুলের বাহারে সজ্জিত হলেও গাঁদা ফুলের রঙকেই এদিনে তাদের পোশাকে ধারণ করে তরুণ-তরুণীরা। খোঁপায় শোভা পায় গাঁদা ফুলের মালা। বসন্তের আনন্দযজ্ঞ থেকে বাদ যায় না গ্রাম্যজীবনও। আমের মুকুলের সৌরভে আর পিঠাপুলির মৌতাতে গ্রামে বসন্তের আমেজ একটু বেশিই ধরা পড়ে। বসন্তকে তারা আরও নিবিড়ভাবে বরণ করে।
দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর তরুণ মনে আবার লেগেছে বসন্তের ছোঁয়া। চারিদিকে যেন সাজ সাজ রব। নতুন কচিপাতার দোলায় দুলছে প্রকৃতি, দুলছে আবেগী মন। আজ নতুন প্রাণেও লেগেছে ফাগুনের সতেজ হাওয়া। ঋতুরাজ বসন্ত আজ প্রত্যেকের হৃদয়কে করেছে উচাটন। বসন্তের আগমন মানেই তরুণ হৃদয়ে নতুন প্রাণের সঞ্চার। এবার বসন্ত এসেছে ঠিক ভালোবাসার দিনে। সেন্ট ভ্যালেন্টাইনের পাখায় ভর করে তরুণ হৃদয়ে আলাদা শিহরণ দোলা দিয়েছে চারিদিকে।
বাংলা পঞ্জিকা বর্ষের শেষ ঋতু বসন্তের প্রথম দিনকে বাঙালি পালন করে ‘পহেলা ফাল্গুন-বসন্ত উৎসব’ হিসেবে। বাঙালির নিজস্ব সার্বজনীন প্রাণের উৎসবে এখন গোটা বাঙালির কাছে ব্যাপক সমাদৃত। বাংলায় বসন্ত উৎসব এখন প্রাণের উৎসবে পরিণত হলেও এর শুরুর একটা ঐতিহ্যময় ইতিহাস আছে।
বাংলার গৌরবময় ঐতিহ্য, বাঙালিসত্তায় ইতিহাসকে ধরে রাখতে পারলেই বসন্ত উৎসবের সঙ্গে সঙ্গে নতুন প্রজন্ম ছড়িয়ে দিতে পারবে বাঙালি চেতনাকে। বঙ্গাব্দ ১৪০১ সাল থেকে প্রথম ‘বসন্ত উৎসব’ উদযাপন করার রীতি চালু হয়। সেই থেকে জাতীয় বসন্ত উৎসব উদযাপন পরিষদ বসন্ত উৎসব আয়োজন করে আসছে।
আজ তরুণীরা বাসন্তি রংয়ের পোশাক আর গাঁদা ফুলে নিজেদের সাজিয়ে তুলবেন। তরুণরা পরবেন বাসন্তী রংয়ের পাঞ্জাবি-ফতুয়া। এবার ভালোবাসার দিনেই পরশ বুলাবে ফাল্গুন। কারণ, আবোর দিনটি ভালোবাসার দিনে। ‘ভ্যালেন্টাইন্স ডে’ও আজ। প্রেমিকযুগল হাতে হাত ধরে শহরে নানা জায়গায় ঘোরাঘুরিতে মত্ত থাকবেন। বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষের পোশাক সাজসজ্জায় বসন্তের আবহ বইবে আজ।

ফেব্রুয়ারি ১৪
০৫:১৮ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

নগর আ’লীগের সভাপতি হতে চাননি ফারুক চৌধুরী

নগর আ’লীগের সভাপতি হতে  চাননি ফারুক চৌধুরী

গুজব ছড়ানো হচ্ছে আসাদুজ্জামান নূর : আসন্ন ১ মার্চ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন। ইতোমধ্যে স্থানীয় গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে, এবারের সম্মেলনে সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনসহ সভাপতি হতে চান রাজশাহী-১ (তানোর-গাদাগাড়ী) আসনের সাংসদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরী। এসকল খবরের সত্যতা

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

স্টাফ রিপোর্টার : অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ গ্রাচ্যুইটির টাকাসহ ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে আমরণ অনশনের মধ্যে রাজশাহী পাটকলের আটজন শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এরা হলেন, আব্দুল গফুর, জয়নাল আবেদিন, আলতাফুন বেগম, মহসীন কবীর, আসলাম আলী, মোশাররফ হোসেন, মোজাম্মেল হক ও

বিস্তারিত