Daily Sunshine

স্কুল ছাত্রীর শ্লীলতাহানীর মামলায় আসামি শিক্ষক

Share

স্টাফ রিপোর্টার, বাগমারা: উপজেলার বড়বিহানালী গার্লস স্কুল এ্যান্ড কলেজের ১০ম শ্রেণি পড়ুয়া এক ছাত্রীকে স্কুল ছুটির প্রাক্কালে কৌশলে টয়লেটে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় একই স্কুলের সহকারি শিক্ষক মোস্তফা সারোয়ার মিঠু।
এ ঘটনায় ওই ছাত্রী তার অভিভাবকসহ গত রবিবার বিকেলে বাগমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে শিক্ষক মোস্তফা সারোয়ার মিঠুর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। ইউএনও অভিযোগটি সোমবার থানার ওসির নিকট প্রেরন করলে ওসি আতাউর রহমান ঘটনাস্থল তদন্ত করে মামলাটি রেকর্ড করেন। ঘটনার শিকার ছাত্রীর জবানবন্দিও রেকর্ড করা হয়েছে। শিক্ষক মোস্তফা সারোয়ার মিঠুর বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলাটি রজু করা হয়েছে।
মামলা ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত ৮ জানুয়ারি বুধবার দুপুরের দিকে স্কুল ছুটির প্রাক্কালে ১০ম শ্রেণির কারিগরি শাখার ওই ছাত্রী বাড়ি ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এ সময় শিক্ষক মোস্তাফা সারোয়ার মিঠু একা পেয়ে তার সাথে কথা আছে বলে কৌশলে স্কুলের তৃতীয় তলায় টয়লেটে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। ছাত্রীর চিৎকার শুনে সহপাঠি ও কয়েকজন শিক্ষক ছুটে এলে লম্পট শিক্ষকের হাত থেকে রক্ষা পায় সে। প্রধান শিক্ষকসহ অন্যরা ঘটনাটি তাকে জানাজানি না করার পরামর্শ দেন। কিন্তু ঘটনা মূহুর্তে পাশ্ববর্তী বিহানালী বাজার ও স্থানীয়দের মধ্যে জানাজানি হলে স্কুল চত্বরে জড়ো হয়। প্রধান শিক্ষক মিঠুকে স্কুল থেকে কৌশলে পালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। স্থানীয়রা তাকে অবরুদ্ধ করে প্রধান শিক্ষক শাফিউল আলমের কাছে এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচারের দাবী জানায়। প্রধান শিক্ষক বিচারের আশ্বাস দিলে তারা অবরুদ্ধ মিঠুকে ছেড়ে দেয়।
এদিকে ঘটনার পর মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে ওই ছাত্রী ও তার পরিবার। অভিযুক্ত শিক্ষক মিঠু প্রধান শিক্ষকের যোগসাজসে তাদের সাঙ্গপাঙ্গ দিয়ে ওই ছাত্রী ও তার পরিবারকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখায় বলে অভিযোগে দাবী করে ওই ছাত্রী।
স্থানীয় বিহানালী বাজারের ব্যবসায়ী ও দুজন জনপ্রতিনিধি জানান, ঘটনাটির পর ওই ছাত্রীকে আর স্কুলে দেখা যায়নি। তারা অভিযোগ করে বলেন, ঘটনাটি সুষ্ঠু বিচার না করে তা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য প্রধান শিক্ষকের যোগসাজসে একটি মহল মোটা অংকের টাকা নিয়ে বিভিন্ন স্থানে দেনদরবার করে। এমনকি লম্পট শিক্ষক মিঠুকে ঘটনার দায় থেকে কৌশলে বাঁচানোর জন্য এক সপ্তাহের ছুটি দিয়ে বিশ্ব ইজতেমায় যাওয়ার সুযোগ করে দেওয়া হয়।
তাদের মতে এ ঘটনার পর স্কুলের অন্য ছাত্রীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে এবং স্কুলটিতে ছাত্রীর উপস্থিতি অনেক কমে গেছে।
এ বিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক শাফিউল আলম বলেন ওইদিন শিক্ষক ও ছাত্রীর মধ্যে সামান্য বিশৃঙ্খলার ঘটনা ঘটেছিল, যা স্কুলে বসেই মিমাংসা করা হয়েছে। এ নিয়ে কারো কোন আপত্তি ছিল না।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরিফ আহম্মেদ অভিযোগ দায়েরের বিষয় নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে যথাযত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বাগমারা ওসিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ওসি আতাউর রহমান জানান, ঘটনার শিকার ছাত্রী বাদী হয়ে শিক্ষক মোস্তাফা সারোয়ার মিঠুর বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে। এ বিষয়ে দ্রুত তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানুয়ারি ২১
০৪:৪১ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

পুষ্পমেলায় ২৬৫ প্রজাতির গোলাপ!

পুষ্পমেলায় ২৬৫ প্রজাতির গোলাপ!

আসাদুজ্জামান নূর : ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটাতে হয়তো গোলাপ ফুলের জুড়ি নেই, তাই হয়তো অন্য কোন ফুলের নামে দিবস পালিত হয় না। কিন্তু ৭ ফেব্রুয়ারি পালিত হয় রোজ ডে। এদিন ভালোবাসার মানুষকে গোলাপ ফুল উপহার দেন অনেকেই। এছাড়াও গোলাপের বিশেষত্ব এটা সব ঋতুতেই পাওয়া যায়। সবার পছন্দের তালিকার শীর্ষে গোলাপ না

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

স্টাফ রিপোর্টার : অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ গ্রাচ্যুইটির টাকাসহ ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে আমরণ অনশনের মধ্যে রাজশাহী পাটকলের আটজন শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এরা হলেন, আব্দুল গফুর, জয়নাল আবেদিন, আলতাফুন বেগম, মহসীন কবীর, আসলাম আলী, মোশাররফ হোসেন, মোজাম্মেল হক ও

বিস্তারিত