Daily Sunshine

বাগমারায় শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগ

Share

স্টাফ রিপোর্টার, বাগমারা: উপজেলার বড়বিহানালী গার্লস স্কুল এ্যান্ড কলেজের ১০ম শ্রেণি পড়ুয়া এক ছাত্রীকে স্কুল ছুটির প্রাক্কালে কৌশলে টয়লেটে নিয়ে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা চালায় একই স্কুলের সহকারি শিক্ষক মোস্তফা সারোয়ার মিঠু। পরে ওই ছাত্রীর আর্তচিৎকারে তার অন্যান্য সহপাঠি ও শিক্ষকরা ছুটে এলে সে লম্পট মিঠুর হাত থেকে রক্ষা পায়।
মূহুর্তের মধ্যে ঘটনাটি গোটা স্কুলসহ পাশ্ববর্তী বিহানালী বাজারে জানাজানি হলে স্থানীয়রা ছুটে এসে শিক্ষক মিঠুকে অবরোধ করে প্রধান শিক্ষকের কাছে এর বিচার জানায়। এ সময় প্রধান শিক্ষক তদন্ত করে সুষ্ঠ বিচারের আশ্বাস দিলে মিঠুকে ছেড়ে দেয় স্থানীয়রা। পরে প্রধান শিক্ষক বিষয়টি তদন্তের নামে কালক্ষেপণ করে টাকার বিনিময়ে বিষয়টি ধামাচাপা দেন বলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বাজারের লোকজন অভিযোগ করেন।
তারা বলেন, এর আগে ওই ছাত্রীটির বিয়ে হয়েছিল। লম্পট মিঠুর অনৈতিক সম্পর্ক ও তার উত্যক্তের কারণেই ছাত্রীটির সংসার ভেঙ্গে যায়।
স্থানীয় অভিভাবক মহল ও জনপ্রতিনিধি সূত্রে জানা গেছে, গত ৯ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে স্কুল ছুটির প্রাক্কালে ১০ম শ্রেণির কারিগরি শাখার ওই ছাত্রীটি বাড়ি ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এ সময় শিক্ষক মোস্তাফা সারোয়ার মিঠু ওই ছাত্রীকে এক পেয়ে তার সাথে কথা আছে বলে তাকে সুকৌশলে স্কুলের টয়লেটে নিয়ে যায়।
এসময় সে ছাত্রীকে একা পেয়ে টয়লেটের অন্ধকারময় স্থানে জাপটে ধরে তাকে আংশিক বিবস্ত্র করে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। তখন ছাত্রীটি চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করলে আশেপাশে তার সহপাঠি ও কয়েকজন শিক্ষক ছুটে এলে ছাত্রীটি লম্পট মিঠুর হাত থেকে রক্ষা পায়। ঘটনাটি সাথে সাথে গোটা স্কুল ও আশেপাশের এলাকায় জানাজানি হয় এবং এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।
এ সময় মিঠু অন্যান্য শিক্ষক ও বাজারের লোকজনের ভয়ে কৌশলে স্কুল থেকে কৌশলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। স্থানীয় লোকজন তাকে অবরুদ্ধ করে প্রধান শিক্ষক শাফিউল আলমের কাছে এর সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচারের দাবী জানায়। পরে প্রধান শিক্ষক তাদের বিচারের আশ্বাস দিলে তারা অবরুদ্ধ মিঠুকে ছেড়ে দেয়।
এ সময় ঘটনাটি স্কুলের সভাপতি সাবেক সহকারি অধ্যাপক সেকেন্দার আলীকে জানানো হলে তিনি ও প্রধান শিক্ষক মিলে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে তিন দিনের মধ্যে রিপোর্ট জমা দিতে বলেন। এ ঘটনার পর একাধিক তিন কর্ম দিবস পার হয়ে যায়।
লম্পট মোস্তফা সারোয়ার মিঠু বিশ্ব ইজতেমায় যাওয়ার কথা বলে স্কুল থেকে ছুটি নিয়ে ভেগে চলে যান। স্থানীয়রা জানান, মিঠু একজন লম্পট ও চরিত্রহীন । সে শিক্ষক নামের কলংঙ্ক। এর আগেও সে একই স্কুলের আরো দুই ছাত্রীর সাথে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে ছিল। সে সময়ও প্রধান শিক্ষক বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ায় সে আবার একই ঘটনার পূনরাবৃত্তি ঘটায়। মিঠু ইজতেমায় যাওয়ার কথা বলে আত্মগোপনে থেকে প্রধান শিক্ষকের মাধ্যমে দেড় লক্ষ টাকার বিনিময়ে এমন ঘূনীত অভিযোগ ধামাচাপা দিয়েছে।
তবে প্রধান শিক্ষক লম্পট মিঠুর বিরুদ্ধে অভিযোগ স্বীকার করলেও টাকার বিনিময়ে ধামাচাপা দেওয়ার বিষয়টি ভিত্তিহীন দাবী করে বলেন, সামান্য ঘটনা। ঘটনাটি স্কুলে বসেই মিসাংসা করা হয়েছে।

জানুয়ারি ১৬
০৪:৩৩ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

সেলাই মেশিনেই চল্লিশ বছর

সেলাই মেশিনেই চল্লিশ বছর

রোজিনা সুলতানা রোজি : জীবন তো চলবেই জীবনের মতো ! তবে জীবনের মান চলমান রাখতে বিভিন্ন জন বেছে নিচ্ছেন বিচিত্র পেশা। কারন, জীবনের ভার বহন করতে জীবিকা প্রয়োজন সর্বাগ্রে। কেউ ছোটবেলা তো কেউ বড় হয়ে, সবাইকেই কোনো না কোনো পেশার সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত করতেই হয়। যার যার সুবিধা মত তারা

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

অনশনে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে রাজশাহী পাটকলের আট শ্রমিক

স্টাফ রিপোর্টার : অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ গ্রাচ্যুইটির টাকাসহ ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে আমরণ অনশনের মধ্যে রাজশাহী পাটকলের আটজন শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এরা হলেন, আব্দুল গফুর, জয়নাল আবেদিন, আলতাফুন বেগম, মহসীন কবীর, আসলাম আলী, মোশাররফ হোসেন, মোজাম্মেল হক ও

বিস্তারিত