Daily Sunshine

বাঘায় ছুটে বেড়াচ্ছে এক দলছুট হনুমান

Share

স্টাফ রিপোর্টার, বাঘা : পথ ভুলে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার লোকালয়ে এসে ছুটে বেড়াচ্ছে এক হনুমান। সকালে এক এলাকা তো বিকেলে অরেক এলাকার গাছে গাছে ছুটে বেড়াচ্ছে হনুমানটি। আর এটি দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন কৌতূহলী মানুষ। অনেকে মোবাইলে ফোনে ছবি তুলে রাখছেন।
উপজেলার বাউসা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান জানান, ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্র এলাকায় তিনদিন ধরে হনুমানটি দেখা যাচ্ছে। হঠাৎ করেই তার আগমন ঘটেছে। তারপর থেকে হনুমানটি পুরো এলাকার বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়াচ্ছে। বেশীরভাগ সময় থাকছে গাছের ডালে ডালে। হনুমানটি কী ভাবে কোথায় থেকে লোকালয়ে এসেছে, তা কেউ বলতে পারছেন না।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কৌতূহলী লোকজনের উৎপাত থেকে বাঁচতে হনুমানটি উঁচু গাছের ডালে আশ্রয় নিয়েছে। হনুমানটিকে খাওয়ানোর জন্য অনেকেই কলা, বিস্কুট, পাউরুটি দিচ্ছে।
উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. আমিনুল ইসলাম বলেন, কোন প্রাণী অসুস্থ হয়ে গেলে তাদের চিকিৎসা দেয়া হয়। তবে উপজেলা পর্যায় কোন প্রাণী সংক্ষণ করার ব্যবস্থা তাদের নেই।
বাঘা পৌরসভার প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান পিন্টু জানান, উপজেলার গাওপাড়া এলাকায় কয়েক দিন থেকে হনুমান দেখা যাচ্ছে। এ হনুমানকে দেখতে আসা মানুষ বিভিন্ন ধরনের খাবার দিচ্ছে। এ খাবার খাচ্ছেও। হনুমানটি দেখার জন্য মানুষ ভিড় করছে। এ বিষয়ে প্রশাসনকে অবগত করা হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেননি।
রাজশাহী বনবিভাগের প্রধান কর্মকর্তা জিল্লুর রহমান বলেন, তাদের কাছে প্রাণী সংরক্ষন ও ধরার কোন ব্যবস্থা নেই। এটি ধরতে হলে ঢাকা থেকে লোকবল আনতে হবে। এরপর বন্যপ্রানীদের জন্য অভয়অরন্য কোনো বনে গিয়ে ছেড়ে দিতে হবে। দেশের কোন চিড়িয়াখানায়ও রাখা যেতে পারে। তবে হুনমানটিকে বিরক্ত না করে নিজের মত চলতে দেয়ায় ভালো বলে মত দেন তিনি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা শাহিন রেজা বলেন, হনুমান বৃক্ষচারী ও শান্তি প্রিয় প্রাণী। এরা চলাফেরা, ঘুম, খাবার সংগ্রহ, খেলাধুলা ও বিশ্রামসহ সবকিছু গাছে-গাছে সম্পন্ন করে। মূলত গাছের পাতা খেয়ে জীবনধারণ করে হনুমাণ। এটিকে বিরক্ত না করে সংরক্ষনের জন্য প্রাণী সম্পদ বিভাগের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন তিনি।

ডিসেম্বর ০৩
০৪:২১ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

বাবুর্চি থেকে হোটেল মালিক আফজাল

বাবুর্চি থেকে হোটেল  মালিক আফজাল

মাহফুজুর রহমান প্রিন্স, বাগমারা: ছিলেন বাবুর্চি এখন হোটেল মালিক। ৯০’ এর দশকে হোটেলের বয় হিসাবে যাত্রা শুরু এই যুবকের। আজ তিনি নিজেই একটি হোটেল পরিচালনা করছে। সুদীর্ঘ এই পেশাদার জীবনে অনেক পেয়েছেন। পেয়েছেন অর্থ, খ্যাতি, সম্মান ও সর্বোপরি সবার ভালোবাসা। এ ছাড়া বাগমারার সকল হোটেল কর্মচারিরা তাকে নেতাও বানিয়েছে। তিনি

বিস্তারিত




চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত