Daily Sunshine

রাবির মাস্টাররোল কর্মচারিদের চাকরি স্থায়ীকরণের দাবি

Share

রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) দৈনিক মজুরির ভিত্তিতে চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন মাস্টাররোল কর্মচারিরা। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপাচার্য দপ্তরে এ স্মারকলিপি জমা দেন তারা।
স্মারকলিপিতে উল্লেখ করেন, আমরা অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৯৯৬ থেকে অদ্যবধি মাস্টাররোলে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে কাজ করে আসছি। ২০০৬ থেকে এ পর্যন্ত প্রায় দেড় হাজার কর্মকর্তা ও কর্মচারিকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। অথচ ইউজিসি ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা (সূত্র নং – ১৮/২রাবি:-১/২০০৩/৮১১, তারিখ ২৪-১২-২০০৮) থাকা সত্ত্বেও মাস্টাররোল চাকরি স্থায়ী করা হয়নি।
সমস্যার কথা তুলে ধরে এতে আরও বলা হয়, প্রায় দুই দশক মাস্টাররোলে চাকরি করায় দেশের অন্য সকল প্রতিষ্ঠানে আমাদের চাকরি পাওয়ার বয়সসীমা অতিক্রান্ত হয়ে গেছে। আমাদের দৈনন্দিন জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে এবং ঋণগ্রস্ত হয়ে ক্রমশ ভিটেমাটিহারা ও নিঃস্ব হয়ে পড়ছি।
মাস্টাররোল কর্মচারিদের চাকরি স্থায়ীকরণ সংক্রান্ত সকল প্রক্রিয়া, সিন্ডিকেট কর্তৃক গঠিত কমিটির মাধ্যমে চূড়ান্ত সুপারিশমালা ও অর্থ অনুমোদিত হয়ে আছে। এসময় পরবর্তী সিন্ডিকেটেই তাঁরা চাকরি স্থায়ীকরণের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানান।
প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালের ২০ ডিসেম্বর শিক্ষা উপদেষ্টা ড. হোসেন জিল্লুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইউজিসির আলোচনা সভায় রাবির মাস্টাররোল কর্মচারিদের প্রসঙ্গে চারটি সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় এবং তদনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হয়।

নভেম্বর ০৮
০৪:২২ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

শিল্পের নান্দনিকতায় মুগ্ধ দর্শনার্থী

শিল্পের নান্দনিকতায়  মুগ্ধ দর্শনার্থী

রোজিনা সুলতানা রোজি : এ যেন এক অন্য সবুজের সমারোহ এবং প্রকৃতিপ্রেমীদের মিলন মেলা। গাঢ় সবুজের ফাঁকে ফাঁকে শোভা পাচ্ছে লাল, সাদা, গোলাপী, হলুদসহ হরেক রকম ফুল। টবে বসানো আস্ত আস্ত সবুজ গাছের খর্বাকৃতি। বাংলাবট, লাইকড়, তেঁতুল, কামীনি প্রভৃতি সব গাছের সমারোহ। এ যেন শিল্পীর ছোয়ায় একেকটি নান্দনিক বৃক্ষের সমাহার।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত