Daily Sunshine

রঙিন শরবতেই জীবিকা নূরের

Share

রোজিনা সুলতানা রোজি: জীবন একটি যুদ্ধক্ষেত্র। জীবিকার জন্য বিভিন্নভাবে বিভিন্ন সময়ে নানা পেশার সঙ্গে যুদ্ধ করেই মানুষ টিকে থাকে। জীবন পরিচালনায় মানুষ বেছে নেয় বিভিন্ন রকম পেশা। এক একটি পেশা যেন এক একটি যুদ্ধক্ষেত্র। জীবন-জীবিকার তাগিদে যুদ্ধে টিকে থাকার জন্য নূর হোসেনও বেছে নিয়েছেন এমনই ক্ষুদ্র পরিসরে শরবত বিক্রির পেশা। জীবিকার সন্ধানে ছুটি আসেন সুদূর চাঁদপুর জেলা থেকে রাজশাহী শহরে। তার শরবতের কদরও রয়েছে রাজশাহী নগরীতে।
দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে তার জীবনের কষ্টগুলো যেন শরবতে গুলিয়ে বিক্রি করেন তিনি। এ যেন জীবিকার জন্য জীবনের সঙ্গে আলাদা এক যুদ্ধ। এভাবেই টিকে আছেন তিনি। চালাচ্ছেন সংসার। বৃহষ্পতিবার বিকেলে নগরীর সাহেব বাজার জিরো পয়েন্ট সংলগ্ন বড় মসজিদ এলাকায় শরবত বিক্রির সময় কথা হয় নূর হোসেনের সাথে।
নূর হোসেন জানান, তিনি চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ থানার রঘুনাথপুর গ্রামের মৃত ক্বারী আহম্মাদ উল্লাহ্র ছেলে। জীবিকার টানে ছুটে আসেন রাজশাহী শহরে। তিন ছেলে এবং স্ত্রীকে নিয়ে নগরীর শিরইল কলোনী এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকেন। তার বড় ছেলে আফতাব হোসেন নগরীর কলাবাগান এলাকার বাংলাদেশ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে ডিপ্লোমা পাশ করেছেন। মেজো ছেলে মামুন রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে পড়াশুনা করছে। আর ছোট ছেলে ইফতি হোসেন নগরীর ইউসেফ স্কুলের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র।
তিনি জানান, নগরীর সাহেব বাজার এলাকা থেকে শরবত বানানোর বিভিন্ন উপকরন কিনেন। তারপর নগরীর বিভিন্ন এলাকায় উপকরনগুলো পানির সঙ্গে গুলিয়ে শরবত বানিয়ে বসে পড়েন তা বিক্রির জন্য। তার প্রতি গ্লাস শরবতের দাম মাত্র ১০ টাকা। এভাবে তার দৈনিক আয় হয় ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা। গ্রীষ্মকালে তার সরবতের কদর অনেকটা বেড়ে যায়। শীতে সামান্য কম হলেও তাতে তেমন কোনো সমস্যায় পড়তে হয় না।
তিনি আরো জানান, প্রায় ৩০ বছর ধরে এভাবে শরবত বিক্রি করেই সংসার খরচসহ তিন ছেলেদের পড়াশুনার ভার বহন করে আসছেন। তিনি জানান, ছেলেরা সুশিক্ষিত হয়ে ভাল মানুষ হতে পারলে তার মাথার ঘাম পায়ে ফেলে হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম সার্থক হবে।

নভেম্বর ০১
০৪:২৯ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

শিল্পের নান্দনিকতায় মুগ্ধ দর্শনার্থী

শিল্পের নান্দনিকতায়  মুগ্ধ দর্শনার্থী

রোজিনা সুলতানা রোজি : এ যেন এক অন্য সবুজের সমারোহ এবং প্রকৃতিপ্রেমীদের মিলন মেলা। গাঢ় সবুজের ফাঁকে ফাঁকে শোভা পাচ্ছে লাল, সাদা, গোলাপী, হলুদসহ হরেক রকম ফুল। টবে বসানো আস্ত আস্ত সবুজ গাছের খর্বাকৃতি। বাংলাবট, লাইকড়, তেঁতুল, কামীনি প্রভৃতি সব গাছের সমারোহ। এ যেন শিল্পীর ছোয়ায় একেকটি নান্দনিক বৃক্ষের সমাহার।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত