Daily Sunshine

থোকায় ঝুলছে ‘নীলউদ্দিন’

Share

আসাদুজ্জামান মিঠু : রাজশাহীর তানোর উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামে গ্রাঅবসরপ্রাপ্ত সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুর রহমান বাড়ি। বাড়ির পাশে আমের গাছে ধরে আছে আম। যেখানে আমের মৌসুম শেষ সেখানে আম ধরেছে গাছে। বাড়ির মালিক জানায় আমের জাতটির নাম ‘নীলউদ্দিন’। বছর দুই বার গাছে ধরে আম। মুলত ভারতীয় জাতের আম এটি।
গাছটির মালিক আব্দুর রহমানের ছেলে জামাল উদ্দিন জানান, সারা বছর আম পাওয়া যাবে ভেবে পাঁচ বছর আগে আমার পিতা চাঁপাইনবাবগঞ্জ হর্টিকালচার সেন্টার থেকে সখের বসে পাঁচটি নীলউদ্দিন জাতের কলম করা চারা এনে রোপণ করেছিলেন। রোপনের তিন বছরের মাথায় তার গাছে আম আসতে শুরু করে।
অসময়ে গাছে প্রচুর পরিমাণে থোকায় আম ধরে। আমের কারণে গাছের ডাল হেলে পড়বে মাটিতে পড়ে। একটি আমের ওজন ৫০০ থেকে ৭০০ গ্রাম পর্যন্ত হয়। এ আম দেখতে গ্রামসহ আসপাশের লোকজন প্রতিদিন আসে। তবে অন্য অন্য বছরের চেয়ে চলতি বছর একটু কম আম ধরেছে। তবুও যেটুকু আম গাছে আছে প্রতিটি আমের ওজন ৪০০ থেকে ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, অসময়ের আম হলেও খেতে খুব খারাপ নয়। এটি আরো ৩০ থেকে ৪০ দিন পরে পাকতে শুরু করবে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ হর্টিকালচার সেন্টারের কৃষিবিদ ও গবেষক জহরুল ইসলাম জানান, ১৯৯৮ সালে ‘নীল উদ্দিন’ নামে আমের জাতটি কৃষিবিদ কামরুজ্জামান ভারত থেকে নিয়ে আসে। এরপরে হর্টিকালচার সেন্টারে মাতৃ বাগান হিসাবে গড়ে তোলা হয়। সেখানে গবেষনা করে এ কলম চারা ২০০৩ সাল থেকে বরেন্দ্র অঞ্চলের অনেক সখিন কৃষকদের সরবহ করা হয়।
তিনি আরো জানান, বছর দুইবার পাওয়া যায় ‘নীল উদ্দিন’। আমের মৌসুমে একবার। আবার অক্টোবর-নভেম্বর মাসে আরো একবার পাওয়া যায় আমটি। এ জাতের আম অসময়ে ভারতে বেশি পাওয়া যায়। নীল উদ্দিন গাছেই হলুদ রং ধারণ করে। খেতে মিষ্টতা অন্য আমের চেয়ে কিছুটা কম। তবে, অসময়ে পাওয়া যায় বলে এ আমের কদর বেশি। এ আমের অন্য বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এটি তেমন রসালো নয়। দানা দানা ভাব আছে। যা বিদেশিদের কাছে পছন্দনীয়।
তিনি আরো বলেন, শুদু ‘নীলউদ্দিন’ নয়, চাঁপাইনবাবগঞ্জ হর্টিকালচার সেন্টারের গবেষকেরা আরো উন্নত মানের বারো মাসি আম উদ্ভাবিত করতে কাজ করে যাচ্ছে। সফলও হয়েছে। যেমন, বারি আম-১১ জাতের এ আম বছরে চারবার ফলন দিবে। খেতে মৌসুম আমের মত লাগবে। গাছগুলোর এ বৈশিষ্ট্য স্থায়ী হলে দেশে আম উৎপাদনে বিপ্লব ঘটবে সেই আশাবাদও বিজ্ঞানীদের। ফলে ফলপ্রেমীরা সারা বছরই নিতে পারবেন আমের স্বাদ।

অক্টোবর ৩০
০৪:০৯ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

শিল্পের নান্দনিকতায় মুগ্ধ দর্শনার্থী

শিল্পের নান্দনিকতায়  মুগ্ধ দর্শনার্থী

রোজিনা সুলতানা রোজি : এ যেন এক অন্য সবুজের সমারোহ এবং প্রকৃতিপ্রেমীদের মিলন মেলা। গাঢ় সবুজের ফাঁকে ফাঁকে শোভা পাচ্ছে লাল, সাদা, গোলাপী, হলুদসহ হরেক রকম ফুল। টবে বসানো আস্ত আস্ত সবুজ গাছের খর্বাকৃতি। বাংলাবট, লাইকড়, তেঁতুল, কামীনি প্রভৃতি সব গাছের সমারোহ। এ যেন শিল্পীর ছোয়ায় একেকটি নান্দনিক বৃক্ষের সমাহার।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত