Daily Sunshine

ট্রলিতেই কলির জীবন

Share

রোজিনা সুলতানা রোজি : হাসপাতালের রোগী বহনকারী ট্রলির চাকা ঘুরলেই ঘুরে কলির জীবিকার চাকা। দৈনিক ৮ ঘন্টা পরিশ্রমের মজুরী হিসেবে পান মাত্র ৫০ টাকা। এছাড়া রোগীরা খুশি হয়ে ১০-২০ টাকা যা দেয় তাতে সংসার খরচ, মেয়ের বিয়েসহ ছেলের পড়াশুনা কোন রকমে চলে। এভাবেই প্রায় সাত বছর ধরে ট্রলির চাকার সাথেই ঘুরছে কলির জীবিকার চাকা।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রামেক হাসপাতালে কথা হয় কলির সাথে। তখন তিনি রোগীর ট্রলি বহন করছিলেন। সে অবস্থাতেই তিনি জানান, তার পুরো নাম নাজনীন রহমান কলি। বয়স চল্লিশ পেরিয়েছে। সবাই তাকে কলি বলেই ডাকেন। তিনি নগরীর লক্ষিপুর মহল্লার মৃত আবদুল বারীর মেয়ে। সাত বোন ও চার ভাইয়ের মধ্যে তিনি সবার ছোট। কলি যখন ৭ম শ্রেণীতে পড়াশুনা করতো তখন পরিবার থেকেই তার বিয়ে দেয়া হয়। ১৩-১৪ বছর সুখের সংসার জীবনে তার এক মেয়ে ও এক ছেলে হয়। কিন্তু সংসার নামক জীবন যুদ্ধে হেরে যায় কলি। স্বামী কলিকে তালাক দিয়ে অন্যত্র বিয়ে করে চলে যায়। তখন থেকেই তিনি ভাটাপাড়া এলাকায় একটি টিনশেড বাসায় ভাড়া থাকেন।
কলির স্বাভাবিক জীবন যাপন তখন দূর্বিসহ হয়ে উঠে। বাবা মারা যাওয়ায় ভাইদের কাছেও ঠাঁই হয়নি তার। এছাড়াও কলিও একজন শে^তী রোগী। হাত-পা ব্যাথা করে। বিশেষ রোগে তার শরীরে রক্তও পরিবর্তন করতে হয়েছে। চিকিৎসার জন্য তাকে তিনবার ভারতেও যেতে হয়েছে।
কলি জানান, তার চিকিৎসা, সংসার খরচ, মেয়ের বিয়েসহ ছেলের পড়াশুনার ভার বহনের জন্য দৈনিক মুজুরী ৫০ টাকা হিসেবে ধরেন হাসপাতালের রোগী বহনকারী ট্রলির হাতল। এতে রোগীরা খুশি হয়ে যা বকশিস দেয় তা দিয়ে এবং কখনো সমিতি থেকে লোন নিয়ে কোন রকমে সংসার চালাচ্ছেন এবং ছেলেকে পড়াশুনা করাচ্ছেন।
কলি আরো জানান, এভাবে কষ্ট করে ছেলের পড়াশুনা করাচ্ছেন। বর্তমানে তার ছেলে নুহিন-ফিল আল-আমিন জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ে ম্যানেজমেন্ট (ব্যবস্থাপনা) বিষয়ে স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্র। দ্বিতীয় বর্ষের জন্য পরিক্ষার জন্য ফরম ফিলাপও করেছে কলির কষ্টের টাকায়।
এখন তার একমাত্র ভরসাই ছেলে। তার ধারনা, ছেলে পড়াশুনা করে ভাল মানুষ হতে পারলে হয়তো টিনের চালার ফাঁক দিয়ে তার জীবনে সুখের চাঁদটি উঁকি দিবে। সে আশায় সমানে হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম করে যাচ্ছেন কলি।

অক্টোবর ২৫
০৪:০১ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

শিল্পের নান্দনিকতায় মুগ্ধ দর্শনার্থী

শিল্পের নান্দনিকতায়  মুগ্ধ দর্শনার্থী

রোজিনা সুলতানা রোজি : এ যেন এক অন্য সবুজের সমারোহ এবং প্রকৃতিপ্রেমীদের মিলন মেলা। গাঢ় সবুজের ফাঁকে ফাঁকে শোভা পাচ্ছে লাল, সাদা, গোলাপী, হলুদসহ হরেক রকম ফুল। টবে বসানো আস্ত আস্ত সবুজ গাছের খর্বাকৃতি। বাংলাবট, লাইকড়, তেঁতুল, কামীনি প্রভৃতি সব গাছের সমারোহ। এ যেন শিল্পীর ছোয়ায় একেকটি নান্দনিক বৃক্ষের সমাহার।

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত