Daily Sunshine

এমপিওভুক্ত হল রাজশাহীর ২৭ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

Share

স্টাফ রিপোর্টার : দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ‘মান্থলি পেমেন্ট অর্ডার’- এমপিওর অন্তর্ভুক্ত হল ২৭৩০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার গণভবনে এক অনুষ্ঠানে এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রকাশ করেন। গত ১ জুলাই, অর্থাৎ চলতি অর্থ বছরের শুরু থেকেই এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। এমপিওর তালিকাভুক্ত বেসরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীরা তাদের বেতনের একটি অংশ সরকার থেকে পান।
নতুন করে এ তালিকায় যুক্ত হওয়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ৪৩৯টি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৯৯৪টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৬৮টি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৯৩টি কলেজ (উচ্চ মাধ্যমিক) এবং ৫৬টি ডিগ্রি কলেজ রয়েছে। এছাড়াও ৩৫৭টি দাখিল মাদ্রাসা, ১২৮টি আলিম মাদ্রাসা, ৪২টি ফাজিল মাদ্রাসা, ২৯টি কামিল মাদ্রাসা এবার এমপিওভুক্ত হয়েছে। আর ৬২টি কৃষি, ১৭৫টি ভোকেশনাল এবং ২৮৩টি বিএম (এইচএসসি) কলেজ রয়েছে এ তালিকায়।
এমপিওর অন্তভুক্ত তালিকায় রাজশাহীর রয়েছে ২৭টি প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে নিম্ন মাধ্যমিক পর্যায়ে রয়েছে বাগমারার একটি, পবার চারটি, চারঘাটের একটি ও গোদাগাড়ীর একটি। এছাড়াও মাধ্যমিক পর্যায়ে রয়েছে, গোদাগাড়ীর দুইটি, তানোরের একটি, নগরের বোয়ালিয়া থানা এলাকার একটি, পবা উপজেলায় তিনটি, মোহনপুর, বাগমারা, পুঠিয়া ও দুর্গাপুরে একটি করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিও হয়েছে। আর এমপিওভুক্ত হয়েছে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বাঘায় একটি কলেজ।
অপরদিকে, আলিম মাদ্রাসা পর্যায়ের মোহনপুরের একটি, চারঘাটের একটি, পবার একটি এবং দাখিল মাদ্রাসা এমপিওর তালিকায় এসেছে গোদাগাড়ীর দুইটি, পবার একটি, পুঠিয়ার একটি ও চারঘাটের একটি।

অক্টোবর ২৪
০৪:০৩ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

হেমন্তেই শীতের পদধ্বনি

ফয়সাল আলম: কুয়াশার চাদরে মুড়ে শীত আসছে। এখন যদিও হেমন্তকাল তবুও শীতের আগমনী বার্তা শুরু হয়েছে রাজশাহী অঞ্চলে। কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা, অনুভূত হচ্ছে শীতের পদধ্বনি। সন্ধ্যার পর থেকেই শীত অনুভূত হচ্ছে। রাতে ও মধ্যরাতে অনুভূত হচ্ছে আরও বেশী। জেলা শহর ও সীমান্তবর্তী উপশহরসহ গ্রামাঞ্চলে শীত পড়তে শুরু করেছে। সন্ধ্যালগ্নে

বিস্তারিত




এক নজরে

চাকরি

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সরকারি চাকরি আইনের সাতটি ধারা বাতিল চেয়ে উকিল নোটিস

সানশাইন ডেস্ক: সদ্য কার্যকর হওয়া সরকারি চাকরি আইনের সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক সাতটি ধারা বাতিল বা প্রত্যাহার করতে স্পিকার ও ছয় সচিবকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ রোববার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে নোটিসটি পাঠিয়েছেন। স্পিকার, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রাষ্ট্রপতি সচিবালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রী

বিস্তারিত